• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • অসমেও এক কীর্তি!‌ করোনা সন্দেহভাজনরা থুতু ছিটিয়ে বেড়াল হাসপাতাল জুড়ে

অসমেও এক কীর্তি!‌ করোনা সন্দেহভাজনরা থুতু ছিটিয়ে বেড়াল হাসপাতাল জুড়ে

এই হাসপাতালে মোট ৪২ জনকে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে, কারণ নিজামুদ্দিন দরগায় যাওয়া ও করোনা আক্রান্ত আট জনের সরাসরি সংযোগে তাঁরা এসেছিলেন

এই হাসপাতালে মোট ৪২ জনকে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে, কারণ নিজামুদ্দিন দরগায় যাওয়া ও করোনা আক্রান্ত আট জনের সরাসরি সংযোগে তাঁরা এসেছিলেন

এই হাসপাতালে মোট ৪২ জনকে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে, কারণ নিজামুদ্দিন দরগায় যাওয়া ও করোনা আক্রান্ত আট জনের সরাসরি সংযোগে তাঁরা এসেছিলেন

  • Share this:

    গুয়াহাটি:‌ অসমের গোলাঘাট হাসপাতালের চিকিৎসক ও চিকিৎসাকর্মীদের অবস্থা ভয়াবহ। তাঁরা কিছুতেই বুঝতে পারছেন না, কী করে পরিস্থিতি সামাল দেবেন। কারণ, করোনা সন্দেহভাজনরা যেমন ব্যবহার করছেন তাতে তো তাঁদের চিকিৎসা করাই একেবারে অসম্ভব হয়ে পড়ছে।

    গোলাঘাট হাসপাতালের চিকিৎসকদের অভিযোগ, করোনা সন্দেহভাজনরা গোটা হাসপাতাল জুড়ে থুতু ছিটিয়ে বেড়িয়েছে। এমনকী হাসপাতালের চিকিৎসাকর্মীদের গায়েও তাঁরা থুতু দিতে চেষ্টা করেছে। শুক্রবার অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে।

    এই হাসপাতালে মোট ৪২ জনকে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে, কারণ নিজামুদ্দিন দরগায় যাওয়া ও করোনা আক্রান্ত আট জনের সরাসরি সংযোগে তাঁরা এসেছিলেন। তাই তাঁদের নজরে রাখতে চেয়েছে প্রশাসন। কিন্তু রোগ নিরাময়ে সাহায্য করার বদলে উল্টে অভব্য আচরণ করছে রোগীরা। পরিস্থিতি এমনও হয়েছে যে কোয়ারেন্টাইন ওয়ার্ডের জানলা বন্ধ করে হাসপাতালের পিছনের দরজা দিয়ে রোগীদের চিকিৎসকদের ওপরে তুলতে হয়েছে।

    নিজামুদ্দিন দরগা থেকে ফেরার পর অসমের আরও চার বাসিন্দার করোনা ধরা পড়েছে। তাই সব মিলিয়ে সংখ্যাটি দাঁড়িয়েছে ২০। এদের সকলেই নিজামুদ্দিন দরগায় গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে প্রশাসন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, ‘‌এই ঘটনা শুনে আমি মর্মাহত। আশা করি এর পর থেকে আক্রান্তরা বুঝতে পারবেন, এর ফল কী ভয়ানক হতে পারে।’‌

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: