'দেবেন্দ্র সিংয়ের পদবী খান হলে RSS গর্জে উঠত,' পুলওয়ামা প্রসঙ্গ টেনে বিতর্কিত মন্তব্য অধীরের

'দেবেন্দ্র সিংয়ের পদবী খান হলে RSS গর্জে উঠত,' পুলওয়ামা প্রসঙ্গ টেনে বিতর্কিত মন্তব্য অধীরের
কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী

পুলওয়ামা হামলার নেপথ্যে কাদের হাত রয়েছে, সেই প্রশ্নও তোলেন লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা৷ বিজেপি-র পাল্টা আক্রমণ, পাকিস্তানকে বারবার ক্লিনচিট দিচ্ছে কংগ্রেস৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: জঙ্গিদের সাহায্যের অভিযোগে জম্মু-কাশ্মীরের ডিএসপি দেবেন্দ্র সিংয়ের গ্রেফতারির ঘটনায় কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর মন্তব্যে তৈরি হল বিতর্ক৷ মঙ্গলবার অধীর বললেন, 'পদবী খান হলে আরএসএস গর্জে উঠত৷ আরএসএস-র ট্রোল আর্মি গর্জে উঠত৷' পুলওয়ামা হামলার নেপথ্যে কাদের হাত রয়েছে, সেই প্রশ্নও তোলেন লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা৷ বিজেপি-র পাল্টা আক্রমণ, পাকিস্তানকে বারবার ক্লিনচিট দিচ্ছে কংগ্রেস৷

পুলিশের একটি সূত্র News18-কে জানিয়েছে, ২০১৮ সালে অ্যান্টি-হাইজ্যাকিং ইউনিট থেকে সরিয়ে শ্রীনগর বিমানবন্দরে পোস্ট করা হয় দেবেন্দ্র সিংকে৷ তিনি ছিলেন দার জেলার ডিএসপি৷ স্পেশাল অপারেশনস গ্রুপের সদস্য ছিলেন না৷ এই গ্রুপ জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের কাউন্টার ইনসার্জেন্সি ইউনিট৷

অধীর এ দিন বলেন, 'কাশ্মীর উপত্যকায় অস্ত্রধারীদের রক্ষা কবজ ফাঁস হয়ে গিয়েছে৷ যদি দেবেন্দ্র সিং না হয়ে খান হত, তা হলে গর্জে উঠত আরএসএস-এর ট্রোল আর্মি৷ আমাদের দেশের শত্রুদের কোনও রং, জাত ও ধর্ম দেখা হবে না৷ আসলে পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলার জন্য একটি নতুন মুখ দরকার ছিল৷ দেবেন্দ্র সিংয়ের নামও অভিযুক্তদের তালিকায় যুক্ত করা উচিত৷ বিচার বিভাগীয় তদন্ত হওয়া দরকার৷'

দেবেন্দ্র সিং দেবেন্দ্র সিং

এরপরই বিজেপি পাল্টা আক্রমণ করে বলে, 'পাকিস্তানকে বারবার ক্লিনচিট কেন দিচ্ছে কংগ্রেস৷ পাক সুরে কথা বলছে কংগ্রেস৷ পাকিস্তানকে অক্সিজেন জোগাচ্ছে কংগ্রেস৷' পুলওয়ামা তর্জায় কংগ্রেসের পাশে অবশ্য দাঁড়িয়েছে শিবসেনা৷

পুলিশের জেরায় দেবেন্দ্রর দাবি করেছে, হিজবুল মুজাহিদিন কম্যান্ডর সৈয়দ নভিদ মুস্তাক ও জঙ্গি রফি রাথারের সঙ্গে মিলে একটি আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার পরিকল্পনা চালাচ্ছিল৷ এই প্রক্রিয়ায় আইনজীবী ইরফান শফি মিরও জড়িত রয়েছেন৷ মির হল প্রাক্তন আইনজীবী, অন্তত ৫ বার পাকিস্তানে যাতায়াত করেছেন৷ জম্মু-কাশ্মীরের পুলিশের এক আধিকারিকের কথায়, 'দাভিন্দর আত্মসমর্পণের তত্ত্ব দিচ্ছে, কিন্তু আমরা তদন্ত করে দেখছি৷'

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ ও ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর একটি যৌথ বাহিনী এই ঘটনার তদন্ত করছে৷ সূত্রের খবর, গ্রেফতার হওয়া জঙ্গিরা দেবেন্দ্রর আত্মসমর্পণ তত্ত্ব খারিজ করেছে৷ সূত্রের খবর, ১২ লক্ষ টাকায় রফা হয়েছিল৷ দাভিন্দর নিজে ছিলেন গাড়িতে৷ ভেবেছিল, ডেপুটি সুপারের গাড়ি কেউ থামিয়ে তল্লাশি করবে না৷ প্রসঙ্গ, দক্ষিণ কাশ্মীরে ট্রাক ড্রাইভারের হত্যা মামলায় মূল অভিযুক্তই হল মুস্তাক নামে ওই জঙ্গি৷

First published: 03:57:32 PM Jan 14, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर