দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

লাদাখ নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই তিন দশক পরে ভারত থেকে চাল কিনবে চিন

লাদাখ নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই তিন দশক পরে ভারত থেকে চাল কিনবে চিন

কয়েকটি ভারতীয় শিল্প আধিকারিককে ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারির মধ্যে এক লক্ষ টন চাল রফতানি করার জন্য বরাত দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: লাদাখ সীমান্তে বিরোধিতা নিয়ে যখন দু’টি দেশের মধ্যে রাজনৈতিক উত্তেজনা প্রবল, তখনই আশার আলো দেখাচ্ছে যুগান্তকারী ঘটনা। প্রায় তিন দশক পর ভারত থেকে চাল কেনার সিদ্ধান্ত নিল প্রতিবেশী রাষ্ট্র চিন । এই মুহূর্তে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি চাল রফতানি করে ভারত । অন্যদিকে, সবচেয়ে বেশি চাল আমদানির তালিকার প্রথমে রয়েছে চিন । কিন্তু ভারত-চিনের কূটনৈতিক দ্বৈরথের মধ্যে দু’দেশের বানিজ্যিক সম্পর্ক যখন প্রায় তলানিতে ঠেকেছে, সে সময় প্রতিপক্ষ রাষ্ট্রের এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে নিঃসন্দেহে আশাবাদী বানিজ্যিক মহল । তবে শি জিনপিং সরকারের এই সিদ্ধান্ত নতুন কোনও চাল কিনা সেই নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছেন কূটনীতিবিদদের একাংশ।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই কয়েকটি ভারতীয় শিল্প আধিকারিককে ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারির মধ্যে এক লক্ষ টন চাল রফতানি করার জন্য বরাত দেওয়া হয়েছে। তিন দশকে এই প্রথমবার চিন ভারত থেকে চাল কিনতে চলেছে।

সরকারি সূত্রে খবর, ভারতীয় শিল্প কর্মকর্তারা টন প্রতি ৩০০ ডলার (প্রায় ২২,১২৫ টাকা) দরে চিনকে চাল রফতানি করবে। ‘রাইস এক্সপোর্টাস অ্যাসোসিয়েশন’ –এর সভাপতি বিভি কৃষ্ণ রাও বুধবার জানান, ‘‘এই প্রথমবার চিন আমাদের থেকে চাল কিনতে চলেছে। চালের গুণগত মান বিচার করে পরের বছরেও চিন আরও বেশি পরিমাণে চাল আমদানি করতে পারে।’’

প্রতিবছর বেজিং অন্যান্য দেশ গুলি থেকে চাহিদা মেটাতে প্রায় ৪০ লক্ষ টন চাল আমদানি করে । কিন্তু ভারত থেকে কখনই চাল কেনে না। এ ক্ষেত্রে কারণ হিসেবে ভারতীয় চালের গুনমানকে অজুহাত করা হয়েছে। চিন সাধারণত ভিয়েতনাম, মায়ানমার, পাকিস্তান, তাইল্যান্ড থেকেই চাল আমদানি করত এত বছর ।

চিনের দাবি, তাইল্যান্ড, মায়ানমার, ভিয়েতনাম, পাকিস্তান থেকে কম দামে ভাল মানের চাল পাওয়া যায়। কিন্তু করোনা কালে ওই দেশগুলিতে চালের পরিমাণে ঘাটতি দেখা দেওয়ায় চালের দাম আগের তুলনায় অনেক বেড়ে গিয়েছে। সেই কারণে চিন ভারত থেকে চাল আমদানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Written By: Somosree Das

Published by: Simli Raha
First published: December 2, 2020, 9:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर