ক্যাবে তিন রাজ্যের না, আদৌ কী রাজ্য আটকাতে পারে CAB

ক্যাবে তিন রাজ্যের না, আদৌ কী রাজ্য আটকাতে পারে CAB

রাজ্যে এনআরসি হবে না। সিএবিও হবে না। কেন্দ্রকে চ্যালেঞ্জ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। ২০২১ ভোটে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে হাতিয়ার করতে চাইছে বিজেপি।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় দেশের উত্তর পূর্বে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি। এরাজ্যেও সেই অশান্তিরও আঁচ। নতুন আইনের প্রতিবাদে উত্তাল বিভিন্ন রাজ্য। এদিন পশ্চিমবঙ্গ, কেরল ও পঞ্জাবে সরকারের তরফে জানানো হয়েছে যে তারা নাগরিকত্ব আইন লাগু করবে না ৷ কিন্তু কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে রাজ্যের কাছে এই ক্ষমতা নেই ৷ এই রাজ্যগুলিকেও এই আইন কার্যকর করতেই হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, সংবিধান অনুযায়ী তিনটি লিস্ট রয়েছে ৷ ইউনিয়ন লিস্টে থাকা কোনও বিষয় যদি সংসদে পাস হয়ে গিয়ে থাকে তাহলে গোটা দেশে তা লাগু করতে হবে ৷

গায়ের জোরে এনআরসি, ক্যাব করার চেষ্টা চলছে। বাংলায় ক্যাব-এনআরসি নয় বলে জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, বাংলায় ডিটেনশন ক্যাম্প হবে না। সিএবি বিল পাস করে আইন হলেই কেন্দ্র বাধ্য করতে পারে না বলেও জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিল পাস হওয়ার আগে থেকেই এর বিরোধীতা করে এসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ এর পাশাপাশি কেরল ও পঞ্জাবও বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিয়েছে যে তার এই বিল রাজ্যে লাগু করবে না ৷

রাজ্য সভায় পাস হওয়ার পর বৃহস্পতিবার নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে সই করেন রাষ্ট্রপতি ৷ কেরলের মুখ্যমন্ত্রী বিলের বিরোধীতা করে জানিয়েছেন এই বিল সংবিধান বিরোধী ৷অমরিন্দর সিং জানিয়েছেন পঞ্জাব বিধানসভায় তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে ৷ এবং তারা এই সংবিধান বিরোধী বিল লাগু হতে দেবেন না ৷ অন্যদিকে ১৬ ডিসেম্বর বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

রাজ্যে এনআরসি হবে না। সিএবিও হবে না। কেন্দ্রকে চ্যালেঞ্জ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। ২০২১ ভোটে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে হাতিয়ার করতে চাইছে বিজেপি। সেই অস্ত্রেই বিজেপিকে রোখার কৌশল তৃণমূলনেত্রীর। সোমবার থেকেই রাস্তায় নামছেন মমতা।

এনআরসি ও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের শুরু থেকেই বিরোধিতায় সরব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সংসদের দুই কক্ষে বিল পাসের পর তাতে সই করেছেন রাষ্ট্রপতি। কিন্তু, এর বিরোধিতায় মমতার সুর একই ভাবে সপ্তমে।

First published: December 13, 2019, 7:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर