দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

কর্মপ্রার্থীদের জন্য বড় খবর, চাকরির ক্ষেত্রে নিয়োগে আসছে বড়সড় পরিবর্তন, ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সিতে অনুমোদন মন্ত্রিসভার

কর্মপ্রার্থীদের জন্য বড় খবর, চাকরির ক্ষেত্রে নিয়োগে আসছে বড়সড় পরিবর্তন, ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সিতে অনুমোদন মন্ত্রিসভার
PM Narendra Modi

আলাদা আলাদা পরীক্ষা নয়, এবার একটি সর্বভারতীয় চাকরির পরীক্ষার মাধ্যমেই হবে বিভিন্ন বিভাগে শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ৩৪ বছর পর শিক্ষানীতির আমূল পরিবর্তনের পর এবার কর্মক্ষেত্রে নিয়োগের ক্ষেত্রেও মোদি সরকার আনছে বড়সড় পরিবর্তন ৷ বদলে যেতে চলেছে নিয়োগের সমস্ত নীতি ৷ মঙ্গলবার ক্যাবিনেট বৈঠকে প্রস্তাবিত ন্যাশনাল রিক্রুইটমেন্ট এজেন্সি গঠনের জন্য অনুমোদন দিল নরেন্দ্র মোদির মন্ত্রিসভা ৷ সাংবাদিক সম্মেলনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর জানিয়েছেন এদিন মন্ত্রিসভায় এবার দেশে কর্মপ্রার্থী নিয়োগের জন্য ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি গঠনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ৷ এতে আগের থেকে অনেক সহজেই চাকরি পেতে পারবেন যোগ্য চাকরিপ্রার্থীরা ৷

বিভিন্ন বিভাগে নন গেজেটেড শূন্যপদে নিয়োগের জন্য আলাদা আলাদা করে পরীক্ষা নয়, ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সির মাধ্যমে নেওয়া হবে একটিই পরীক্ষা Common Eligibility Test (CET) ৷ এই পরীক্ষার মাধ্যমে কেন্দ্র সরকারের বিভিন্ন শূন্যপদে ও পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কে যোগ্য কর্মপ্রার্থীদের নিয়োগ করা হবে ৷

বছরে ১.২৫ লাখ সরকারি চাকরির জন্য আলাদা আলাদা বিভিন্ন পরীক্ষা দেন প্রায় ২.৫ কোটি সরকারি চাকরিপ্রার্থী ৷ তার বদলে এবার থেকে ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সির মাধ্যমে নেওয়া হবে একটিই সর্বভারতীয় অনলাইন পরীক্ষা ৷ ওই পরীক্ষার স্কোরের ভিত্তিতেই হবে চাকরিপ্রার্থীর নির্বাচন ৷ বিভিন্ন সরকারি দফতর ও পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক শূন্যপদের নিরিখে ওই স্কোর দেখেই বেছে নেবেন প্রার্থী ৷ এর ফলে পরীক্ষার আয়োজন ও সেই সংক্রান্ত খাতে খরচ হওয়া সরকারের কোটি কোটি টাকা বাঁচবে ৷ চাকরিপ্রার্থীরাও বার বার পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপ, পরীক্ষা দিতে বিভিন্ন কেন্দ্রে ছুটে যাওয়া এমন হয়রানি থেকে মুক্তি পাবেন ৷

জানা গিয়েছে বছরে দু’বার ১২টি ভাষায় নেওয়া হবে এই CET ৷ প্রতি জেলার হেডকোয়াটার্রে থাকবে এর সেন্টার ৷ পরীক্ষার জন্য এক হাজার সেন্টার অর্থাৎ পরীক্ষা কেন্দ্র তৈরি করবে কেন্দ্র ৷ তবে এতে আবেদনের জন্য বয়সে কোনও ছাড় দেওয়া হবে না ৷ তবে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী পরীক্ষার ফি-এর ক্ষেত্রে ছাড় বজায় থাকছে ৷ উল্লেখ্য, ২০২০-২১ অর্থবর্ষে বাজেট পেশের সময়ই ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি ও Common Eligibility Test (CET) -এর কথা উল্লেখ করেছিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন ৷

Published by: Elina Datta
First published: August 19, 2020, 4:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर