দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজস্থানে কংগ্রেসকে ধাক্কা দিলেন মায়াবতী, ৬ বিধায়ককে দলে ফেরাতে হাইকোর্টে গেল বিএসপি

রাজস্থানে কংগ্রেসকে ধাক্কা দিলেন মায়াবতী, ৬ বিধায়ককে দলে ফেরাতে হাইকোর্টে গেল বিএসপি
বিএসপি প্রধান মায়াবতী৷

বিএসপি-র এই বিধায়কদের সদস্য পদ খারিজ করার দাবি জানিয়ে প্রথমে বিজেপি নেতা মদন দিলওয়ার হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন৷

  • Share this:

#জয়পুর: এতদিন সচিন পাইলট এবং তাঁর অনুগামীদের নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট ৷ এবার রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী এবং কংগ্রেসের শিবিরের অস্বস্তি বাড়িয়ে আচমকাই দল বদল করে কংগ্রেসে যোগ দেওয়া ছয় বিধায়কের উপর অধিকার দাবি করে হাইকোর্টে মামলা করলেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী ৷ যা রাজস্থানের রাজনৈতিক নাটকে নতুন মোড় এনে দিয়েছে৷

রাজস্থানে বিধানসভা ভোটের পর বিএসপি-র ছয় বিধায়ককে দলে টেনেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট ৷ গত বছর সেপ্টেম্বরে দল বদল করার আবেদন জমা করতেই তা সাদরে গ্রহণ করেছিলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ সি পি জোশী ৷ যা নিয়ে ক্ষুব্ধ ছিলেন মায়াবতী৷ বিধায়করা দলবদল করার পরই গেহলটের বিরুদ্ধে ছুরি মারার অভিযোগ করেছিলেন তিনি৷ এবার সুযোগ পেয়েই পাল্টা গেহলটকে চাপে ফেলে দিলেন মায়াবতী৷ এই নিয়ে দ্বিতীয়বার বিএসপি বিধায়কদের দল ভাঙিয়ে কংগ্রেসে নিয়ে এসেছিলেন গেহলট৷ এর আগের বার মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময়ও একই কাজ করেছিলেন তিনি৷

বিএসপি বিধায়করা দলে যোগ দেওয়ায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণে সুবিধে হয়েছিল গেহলটের৷ ১২ জন নির্দল বিধায়ক ছাড়াও কয়েকটি ছোট দলের ৫ বিধায়কও গেহলট সরকারকে সমর্থন করেছিল৷

বিএসপি-র এই বিধায়কদের সদস্য পদ খারিজ করার দাবি জানিয়ে প্রথমে বিজেপি নেতা মদন দিলওয়ার হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন৷ তাঁর অভিযোগ ছিল, সচিন পাইলট এবং তাঁর অনুগামী ১৮ বিধায়কের সদস্যপদ খারিজ করার বিষয়টি নিয়ে রাজস্থান বিধানসভার অধ্যক্ষ যে তৎপরতা দেখিয়েছেন, তা তিনি বিএসপি বিধায়কদের ক্ষেত্রে দেখাননি৷ অথচ ওই ৬ বিধায়ক কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পরে স্পিকারের কাছে একই দাবি জানিয়েছিল বিএসপি-ও৷ শেষ পর্যন্ত রবিবার বিকেলে বিএসপি জানিয়ে দিয়েছে, ৬ বিধায়কের উপর নিজেদের দাবি জানিয়ে তারাও এবার আদালতে যাচ্ছে৷ এর আগে ওই ৬ বিধায়ককে একটি আস্থা ভোটে গেহলট সরকারের বিরুদ্ধে ভোট দিতে নির্দেশ দিয়েছিল বিএসপি৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: July 27, 2020, 11:37 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर