হোম /খবর /দেশ /
আরব সাগরের ৭০ মিটার নীচে থেকে ১০ দিন পর পাওয়া গেল পাইলট নিশান্তের দেহ

আরব সাগরের ৭০ মিটার নীচে থেকে ১০ দিন পর পাওয়া গেল পাইলট নিশান্তের দেহ

সিনিয়র অফিসারকে বিয়ের জন্য ছুটি চেয়ে তাঁর আবেদন করার চিঠি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় কয়েক মুহূর্তে।

  • Last Updated :
  • Share this:

#গোয়া: হেসে খেলে জীবনটা উপভোগ করতে চেয়েছিলেন তিনি। কৌতুকবোধ ছিল নজরকাড়া। সিনিয়র অফিসারকে বিয়ের জন্য ছুটি চেয়ে তাঁর আবেদন করার চিঠি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় কয়েক মুহূর্তে। বিয়ে করাটা গুলি কামড়ানোর সঙ্গে তুলনা করেছিলেন তিনি। হবু স্ত্রী নায়াব রানধাওয়ার কথা উল্লেখ করেছিলেন চিঠিতে। সিনিয়র অফিসার জবাবে লিখেছিলেন, ‘‘সব ভাল জিনিসের একটা শেষ হয় । ওয়েলকাম টু হেল।’’

সেই নিখোঁজ নৌবাহিনীর পাইলট নিশান্ত সিংয়ের খোঁজ চলছিল গত কয়েকদিন ধরে। ২৬ নভেম্বর নিজের ‘মিগ ২৯ কে’ বিমান থেকে ইজেক্ট করে গেলেও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না তাঁর। নৌবাহিনীর এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার আইএনএস বিক্রমাদিত্য থেকে উড়ান ভরেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন আরেকজন কো-পাইলট। যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা দিলে দু’জনেই বিমান থেকে ইজেক্ট করেন। পরে ওই পাইলটকে উদ্ধার করা গেলেও নিশান্তের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। আজ গোয়ার সমুদ্রতট থেকে ৩০ মাইল দূরে সমুদ্রের ৭০ মিটার তলায় পাওয়া যায় কমান্ডারের দেহ। প্রোটোকল মেনে তাঁর বাড়ির লোককে খবর দেওয়া হয়েছে। দেহ শনাক্ত করার জন্য ডিএনএ পরীক্ষা চলছে।

তিনি নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার পর নৌবাহিনী ব্যাপকভাবে তল্লাশি শুরু করে। ল্যান্ডিং গিয়ার, টার্বো চার্জার, ফিউল ট্যাংক-সহ বিমানের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেলেও কমান্ডারের দেহ কিছুতেই পাওয়া যাচ্ছিল না। ডুবুরি, সি -বেড ম্যাপিং ছাড়াও কাজে লাগানো হয় সার্ভাইলেন্স এয়ারক্রাফট এবং উদ্ধারকার্যে পারদর্শী বিশেষ সেন্সরযুক্ত হেলিকপ্টার। গত ১০ দিনের সন্ধান শেষে অবশেষে উদ্ধার করা গেল নিশান্তের দেহ।

আজ সেই সিনিয়র অফিসারের চোখে জল। মনে পড়ে যাচ্ছে একসঙ্গে কাটানোমুহূর্তগুলোর কথা। ক’দিন আগেও মালাবার এক্সারসাইজে কোয়াড অর্থাৎ চার দেশের নৌসেনা মিলে অনুশীলন করেছিল সাগরে, সেখানেও রোজ আকাশে উড়তেন নিশান্ত। এ বার সেই অনন্ত আকাশেই যেন মিলিয়ে গেলেন নৌবাহিনীর সদা হাস্যময় এই কমান্ডার।

Written by - Rohan Roy Chowdhury

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Commander, Goa, Navy