হায়দরাবাদে দুইয়ে বিজেপি, তিনে মিম! পুরনিগম দখলে না এলেও প্রাপ্তি অনেক

হায়দরাবাদে দুইয়ে বিজেপি, তিনে মিম! পুরনিগম দখলে না এলেও প্রাপ্তি অনেক

প্রতীকী ছব৷

হায়দরাবাদ পুরনিগম দখলের লক্ষ্যে এ বার সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছিল বিজেপি৷ প্রচারে গিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিজে৷

  • Share this:

    #তেলেঙ্গানা: হায়দরাবাদ হয়তো দখলে আসবে না৷ কিন্তু হায়দরাবাদের পুরনিগম নির্বাচনের ফলাফল থেকে ২০২৩ সালে তেলেঙ্গানা বিধানসভা নির্বাচনে লড়াইয়ের প্রয়োজনীয় আত্মবিশ্বাস পেয়ে গেল বিজেপি৷ দক্ষিণেও আধিপত্য বিস্তারের প্রথম পদক্ষেপও সম্ভবত পেয়ে গেল গেরুয়া শিবির৷

    গ্রেটার হায়দরাবাদ মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন বা GHMC-১৫০টি ওয়ার্ডের ভোটগণনা চলছে৷ শুরুর দিকে এগিয়ে গেলেও মাঝে বেশ কিছুটা পিছিয়ে পড়েছিল বিজেপি৷ অনেকটাই এগিয়ে যায় তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি বা টিআরএস৷ কিন্তু সেই ধাক্কা সামলে ফের একবার ঘুরে দাঁড়ায় গেরুয়া শিবির৷ সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী ৫০টি আসনে এগিয়ে রয়েছে টিআরএস, ৪০টিতে এগিয়ে বিজেপি৷ আর এআইএমআইএম এগিয়ে রয়েছে ২৫টি আসনে৷ তবে মিম মাত্র ৫১টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল৷ সেদিক দিয়ে দেখতে গেলে যথেষ্ট ভাল ফলের দিকেই এগোচ্ছে তারা৷

    হায়দরাবাদ পুরনিগম দখলের লক্ষ্যে এ বার সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছিল বিজেপি৷ প্রচারে গিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিজে৷ এ ছাড়াও দলের হেভিওয়েট মন্ত্রী সাংসদরাও প্রচারে ঝড় তুলেছিলেন৷ এমন কি, ভোট প্রচারে রোহিঙ্গা, পাক অনুপ্রবেশকারীর মতো বিতর্কিত বিষয় তুলে এনেছিলেন তারা৷

    এর পিছনে অবশ্য বিজেপি-র স্পষ্ট অঙ্ক ছিল৷ আঞ্চলিক দলগুলির উপরে নির্ভরতা দূর করে দক্ষিণেও নিজেদের পায়ের তলার জমি শক্ত করতে মরিয়া মোদি-শাহ-নাড্ডারা৷ ২০২৩ সালে তেলেঙ্গানায় বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে হায়দরাবাদের পুরভোটকেই মঞ্চ হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন তাঁরা৷ কারণ হায়দরাবাদ পুরনিগমের এলাকার মধ্যে তেলেঙ্গানার ২৫টি বিধানসভা এবং পাঁচটি লোকসভা এলাকা পড়ে৷ ফলে হায়দরাবাদ পুরনিগম দখল করতে না পারলেও একেবারে িবজেপি-র প্রাপ্তির ভাঁড়ার যথেষ্টই৷ ২০১৬ সালের পুর নির্বাচনে মাত্র চারটি ওয়ার্ডে জিতেছিল বিজেপি৷ সেখানে এখনই তারা ৪০টি আসনে এগিয়ে৷ সেখানে টিআরএস গত নির্বাচনে পেয়েছিল ৯৯টি আসন৷

    এবারের নির্বাচনের ফলাফলের যা গতিপ্রকৃতি, তাতে ভোটের ফলাফল ত্রিশঙ্কুও হতে পারে৷ সেক্ষেত্রে নিজামের শহর দখল করতে কে কার সঙ্গে হাত মেলায়, সেদিকেও গোটা দেশের নজর থাকবে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর