Unnao Rape Case: উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে দোষী বিধায়কের স্ত্রী'কে টিকিট বিজেপির, সায় শীর্ষ নেতৃত্বেরও!

Unnao Rape Case: উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে দোষী বিধায়কের স্ত্রী'কে টিকিট বিজেপির, সায় শীর্ষ নেতৃত্বেরও!

কুলদীপ ও সঙ্গীতা

ওই ধর্ষণকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পাশাপাশি নির্যাতিতার বাবার রহস্য মৃত্যুর ঘটনাতেও যুক্ত থাকায় ২০২০ সালে কুলদীপকে ফের দোষী সাব্যস্ত করে আদালত।

  • Share this:

    #উত্তরপ্রদেশ: উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডের কথা মনে আছে? উত্তরপ্রদেশের উন্নাওতে চাকরি চাইতে যাওয়া এক নাবালিকাকে ধর্ষণ করেছিলেন বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গার। ওই ধর্ষণকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পাশাপাশি নির্যাতিতার বাবার রহস্য মৃত্যুর ঘটনাতেও যুক্ত থাকায় ২০২০ সালে কুলদীপকে ফের দোষী সাব্যস্ত করে আদালত। বর্তমানে জেলে রয়েছেন বিজেপির ওই বহিষ্কৃত বিধায়ক। কিন্তু তাতেও তাঁর সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ হচ্ছে না বিজেপির। কুলদীপ জেলে, তাই এবার তাঁর স্ত্রীকে ভোটে দাঁড় করাল গেরুয়া শিবির।

    কুলদীপের স্ত্রী সঙ্গীতা সেঙ্গারকে উত্তরপ্রদেশে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য টিকিট দিয়েছে বিজেপি। ফতেপুর চৌরাসি ত্রিতয়ার থেকে গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী হয়েছেন তিনি। ২০১৬ সাল থেকে উন্নাওয়ের জেলা পঞ্চায়েত চেয়ারপার্সন হিসেবে কাজ করছেন সঙ্গীতা। কিন্তু কুলদীপ উন্নাও কাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় অনেকেই ভেবেছিলেন, দলের নেতার কুকাজকে ধিক্কার জানিয়ে সম্পূর্ণভাবেই সম্পর্কচ্ছেদের পথে হাঁটবে বিজেপি। কিন্তু বাস্তবে তেমন কিছুই হল না।

    আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে উত্তরপ্রদেশে ৪ দফায় পঞ্চায়েত নির্বাচন হচ্ছে। ফল প্রকাশ আগামী ২ মে। আগে কোনও দলের প্রতীকে পঞ্চায়েত নির্বাচন হত না যোগী রাজ্যে। এবারই প্রথম দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হবে। সেই মতো বৃহস্পতিবার ৫১ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে বিজেপি। আর তাতেই নাম রয়েছে সঙ্গীতা সেঙ্গারের।

    বাস্তবে স্বামী কুলদীপকে দল থেকে বিতাড়িত করা হলেও বিজেপির সঙ্গে এখনও ঘনিষ্ঠতাই রয়েছে সঙ্গীতার। যে ববাঙ্গারমউ বিধানসভা কেন্দ্রে বিধায়ক ছিলেন কুলদীপ, সেই কেন্দ্রের উপনির্বাচনের সময় বিজেপি প্রার্থী শ্রীকান্ত কাটিয়ারের হয়ে প্রচারও করতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। আর এবার তাঁকে পঞ্চায়েত নির্বাচনের টিকিট দিল বিজেপি। আর তাঁকে জেতাতে আসরে নামছেন বিজেপির রাজ্যস্তরের শীর্ষ নেতারা। প্রসঙ্গত, উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডের জেরে কুলদীপ সেঙ্গারকে ১০ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ১০ বছরের হাজতবাসের সাজা দিয়েছে আদালত।

    Published by:Suman Biswas
    First published: