• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • রাজস্থানের নাটকে যবনিকা পড়ছে না, এবার অনাস্থা প্রস্তাব আনছে বিজেপি

রাজস্থানের নাটকে যবনিকা পড়ছে না, এবার অনাস্থা প্রস্তাব আনছে বিজেপি

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট৷

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট৷

বিজেপি এবং তাদের জোটসঙ্গী রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টি মিলিয়ে রাজস্থানে ৭৫ জন বিধায়ক রয়েছে৷

  • Share this:

    #জয়পুর: দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর অবশেষে কংগ্রেসের সঙ্গে সন্ধিতে পৌঁছেছেন সচিন পাইলট৷ মনে করা হয়েছিল, রাজস্থানে অশোক গেহলট সরকারের উপর থেকে আশঙ্কার কালো মেঘ হয়তো কেটে গেল৷ কিন্তু রাজস্থানের রাজনৈতিক নাটক যেন শেষ হয়েও শেষ হতে চাইছে না৷ এবার বিজেপি জানিয়ে দিল, সচিন পাইলট কংগ্রেসে ফিরলেও রাজস্থানে অশোক গেহলট সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে চলেছে তারা৷

    এ দিন জয়পুরে বিজেপি-র পরিষদীয় দলের বৈঠকের পর আগামী শুক্রবার এই অনাস্থা প্রস্তাব আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ রাজস্থানের বিরোধী দলনেতা গুলাব চাঁদ কাটারিয়া এ দিন এই খবর জানিয়েছেন৷

    রাজস্থানের বিরোধী দলনেতা এবং বিজেপি বিধায়ক কাটারিয়া বলেন, 'একদিকে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, অন্যদিকে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিও ভেঙে পড়ছে৷ যাঁরা সরকার ফেলে দেওয়ার চক্রান্ত করছিল, তাঁদেরকে গ্রেফতার করিয়ে বিজেপি-র সঙ্গে যোগসাজশ প্রমাণের চেষ্টা করছিল কংগ্রেস সরকার, কিন্তু সেই চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে৷ অনাস্থা প্রস্তাবে এই বিষয়গুলির উল্লেখ থাকবে৷' তাঁর আরও দাবি, কংগ্রেস শিবির রাজস্থানে নিজেদের ভাঙন রুখতে পারলেও এখনও সমস্যা রয়েছে৷ কাটারিয়ার দাবি অনুযায়ী, কংগ্রেসের এক নেতা পূর্ব দিকে গেলে অন্যজন পশ্চিমে হাঁটছেন৷

    ২০০ আসন বিশিষ্ট রাজস্থান বিধানসভায় বিজেপি এবং তাদের জোটসঙ্গী রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টি মিলিয়ে রাজস্থানে ৭৫ জন বিধায়ক রয়েছে৷ তাঁদের মধ্যে ৭৪ জনই এ দিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন৷ যদিও বর্তমান আসন সংখ্যার নিরিখে অনেকটাই স্বস্তিতে রয়েছে কংগ্রেস৷ কারণ খাতায় কলমে শুধু তাদের হাতেই ১০৭ জন বিধায়ক রয়েছে৷ সচিন পাইলট এবং তাঁর অনুগামী ১৮ জন বিধায়ক ফেরায় অশোক গেহলট আরও স্বস্তিতে৷ এ ছাড়া নির্দল বিধায়কদের সমর্থন ধরলে সংখ্যাটা ১২০ ছাড়িয়ে যাবে৷

    বিজেপি-র জাতীয় সব সভাপতি এবং রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজেও এ দিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন৷ পাশাপাশি রাজস্থানের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতা অবিনাশ খান্না এবং অন্যান্য সিনিয়র নেতাদের উপস্থিতিতেই এ দিনের বৈঠকে অনাস্থা প্রস্তাব আনার সিদ্ধান্ত হয়৷ বিবাদ মিটিয়ে সচিন পাইলট কংগ্রেসে ফেরার পর পরই বিজেপি-র এই সিদ্ধান্তে বেশ খানিকটা অবাক রাজনৈতিক মহল৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: