দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

মেদিনীপুরের সভায় '৭ মিথ্যা অভিযোগ' শাহ'র, 'ফ্যাক্ট চেক' করালেন ডেরেক

মেদিনীপুরের সভায় '৭ মিথ্যা অভিযোগ' শাহ'র, 'ফ্যাক্ট চেক' করালেন ডেরেক

মেদিনীপুরের সভায় অমিত শাহ'র আনা একগুচ্ছ অভিযোগের মধ্যে সাতটি অভিযোগ ডাঁহা মিথ্যা৷ পাল্টা অভিযোগ করলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও' ব্রায়েন৷

  • Share this:

#কলকাতা: বিজেপি বনাম তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে এবার অভিযোগ আর পাল্টা অভিযোগের খেলা চলছে৷ ২৪ ঘণ্টা আগেই মেদিনীপুরের মেগা সভায় বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তৃণমূল ছেড়ে বেরিয়ে আসা দলের অন্যতম হেভিওয়েট শুভেন্দু অধিকারী৷ মেদিনীপুরের কলেজ মাঠের সভাতে দাঁড়িয়েই রাজ্য সরকার ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিভিন্ন ইস্যুতে বিঁধেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ।

বাংলার মানুষকে একাধিক কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে বলেও বোমা ফাটান শাহ৷ কিন্তু বিজেপি নেতার আনা একগুচ্ছ অভিযোগের মধ্যে সাতটি অভিযোগ ডাঁহা মিথ্যা বলে পাল্টা অভিযোগ করলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও' ব্রায়েন৷  শাহ'র কথাবার্তা তাঁর মতোই নিম্নমানের বলেই রবিবার টুইটারে খোঁচা দেন ডেরেক৷ শাহকে 'ফ্যাক্ট চেক' করিয়ে তাঁকে "পর্যটক দলের ভৃত্য" বলেও অভিহিত করেন তিনি৷

ডেরেক ঠিক যে মর্মে তাঁর 'ফ্যাক্ট চেক' বিবৃতি দিয়েছেন টুইটারে, তা নিম্নরূপ:

(১)

অমিত: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস ছেড়ে অন্য দলে যোগ দিয়েছিলেন। আজ অন্যদের বিরুদ্ধে দল ভাঙানোর অভিযোগ করেছেন।

ডেরেক: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস ছেড়ে অন্য কোনও দলে যোগ দেননি। কংগ্রেস ছেড়ে তিনি ১৯৯৮ সালে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস গঠন করেছিলেন।

(২)

অমিত: বাংলার মানুষ আয়ুষ্মান ভারত থেকে প্রকল্প কোনও সুবিধা পাচ্ছে না৷

ডেরেক: আয়ুষ্মান ভারত চালু হওয়ার ২ বছর আগেই বাংলায় স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প শুরু হয়৷ রাজ্যের ১.৪ কোটি পরিবারকে স্বাস্থ্যবিমার আওতায় সর্বোচ্চ৫ লক্ষ টাকার সুবিধা দেওয়া হয়েছে৷ আয়ুষ্মান ভারতের থেকে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সুযোগ-সুবিধা অনেক ভাল৷ বাড়ির মহিলার নামেই কার্ড করে দেওয়া হয়েছে৷

(৩)

অমিত: প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মান নিধির ৬ হাজার টাকা পাওয়া থেকে বাংলার কৃষকদের বঞ্চিত করা হয়েছে।

ডেরেক: কৃষকবন্ধু প্রকল্পের আওতায় বাংলার কৃষকদের একর পিছু বার্ষিক ৫০০০ টাকা দেয়৷ সেখানে কেন্দ্র প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মান প্রকল্পে একর প্রতি মাত্র ১২১৪ টাকা দেয়৷ শস্য বিমায় বাংলার কৃষকদের সরকার বিমার পুরো প্রিমিয়ামের অর্থ দেয়৷ সেখানে কেন্দ্র প্রধানমন্ত্রী ফসল বিমা যোজনায় প্রিমিয়ামের একটা অংশ মাত্র দেয়৷

(৪)

অমিত: রাজ্যে ৩০০ বিজেপি সমর্থক খুন হয়েছেন গত দেড় বছরে।

ডেরেক: অন্তর্কলহের জন্য বহু বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়েছে৷ এমনকী আত্মহত্যার জন্য মৃত্যু হলেও তাকে রাজনৈতিক খুন বলে চালানো হচ্ছে। ১৯৯৮ সালে থেকে এখনও পর্যন্ত ১০২৭ তৃণমূল কর্মী খুন হয়েছেন রাজনৈতিক শত্রুতায়। বিজেপি-র ১১৬ জন লোকসভা সাংসদের অপরাধমূলক রেকর্ড আছে৷

(৫)

অমিত: নরেন্দ্র মোদি বাংলার মানুষের জন্য যে খাদ্যশস্য পাঠিয়ে ছিলেন তা নিজেদের করে নিয়েছেন তৃণমূল কর্মীরা।

ডেরেক: বাংলায় খাদ্য সাথী প্রকল্পে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত ১০ কোটি মানুষকে ফ্রি-তে রেশন দেওয়া হয়েছে।

(৬)

অমিত: বাংলায় জেপি নড্ডাকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেয়নি সরকার।

ডেরেক: জেপি নড্ডার জন্য জেড প্লাস নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি সব নিয়ম ভেঙে তিনি তাঁর কনভয়ের সঙ্গে বিরাট সংখ্যার অনান্য গাড়িকে অনুসরণ করার অনুমোদন দিয়েছিলেন৷

(৭)

অমিত: নরেন্দ্র মোদী বাংলার বহু গরিব মানুষকে ঘর ও পরিকাঠামো দিয়েছেন।

ডেরেক:এক্ষেত্রে কেন্দ্র দেয় ৬০ শতাংশ ও রাজ্য সরকার দেয় ৪০ শতাংশ খরচ। ২০১১-২০ সাল পর্যন্ত রাজ্য সরকার তৈরি করেছে ৩৩৮৭০০০ ঘর বানিয়ে দিয়েছে৷ এতে খরচ হয়েছে ৩৯৯৯৩ কোটি টাকা। গীতাঞ্জলি প্রকল্পে ৩লক্ষ ৯০ হাজার ঘর তৈরি করেছে রাজ্য। খরচ হয়েছে ৩ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা। সব প্রকল্প মিলিয়ে রাজ্য সরকার ৭০০০ কোটি টাকা খরচ করে ৪ লক্ষ ৩০ হাজার ঘর বানিয়ে দিয়েছে৷

(শাহ'র দাবি ও ডেরেকের জবাব পরপর তুলে ধরা হল)

Published by: Subhapam Saha
First published: December 20, 2020, 7:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर