corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেগে গিয়ে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ছুড়ে ফেললেন পুরোহিত

রেগে গিয়ে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ছুড়ে ফেললেন পুরোহিত
প্রতীকী ছবি ৷
  • Share this:

#আলওয়ার: স্ব-ঘোষিত ধর্মগুরুদের যে সব কাণ্ড-কারখানা সামনে আসছে তা লজ্জাজনকই বটে ৷ কেউ ধর্ষণকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ৷ আবার কারও নাম জড়িয়েছে প্রচুর অর্থ আত্মসাতের জন্য ৷ আর সেই সব ধর্ষক ধর্গুরুদের সঙ্গে তুলনা করায় রেগে গিয়ে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন এক পুরোহিত ৷ এরপর কাটা পুরুষাঙ্গটি তিনি ভক্তদের দিকে ছুড়ে দেন ৷ এমনই ঘটনা ঘটেছে শুক্রবার আলওয়ারের মন্ধন গ্রামের সেওয়াভালি ধাম আশ্রমে।

ঠিক কী ঘটেছিল সেদিন?

সেদিন আশ্রমে জাগরণ চলছিল ৷ আশ্রমে হাজির ছিলেন প্রচুর ভক্ত ৷ তাঁদের সামনেই মঞ্চে বসেছিলেন ৪১ বছরের ওই পুরোহিত ৷ নাম অনিল পুরোহিত ৷ সেই সময় গ্রামের মানুষ ওই পুরোহিতকে বিভিন্ন কটু কথা বলে বিব্রত করতে শুরু করেন। গ্রামবাসীরা ওই পুরোহিতের সামনেই ধর্ষণকাণ্ডে জড়িত আসারাম বাপু, গুরমিত রাম রহিম সিং, ফলাহারি বাবা এবং দাতি মহারাজকে নিয়ে মন্তব্য করতে শুরু করেন।

অনিল পুরোহিত সেই সব কথা বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করেন ৷ তিনি এও জানান যে, যারা ধরনের নীচ কাজের সঙ্গে জড়িত আইন তাদের যোগ্য শাস্তি দেবে। কিন্তু গ্রামের মানুষ কোনও কথা না শোনায় অনিল পুরোহিত খুব রেগে যান। এবং রাগের বশে তিনি প্রথমে তাঁর পুরুষাঙ্গে কেটে ফেলার হুমকিও দেন। তাতেও কোনও ফল না হওয়ায় তিনি সত্যি সত্যিই তাঁর পুরুষাঙ্গে কেটে ফেলেন।

এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‘‌কিছু মিনিটের মধ্যেই তিনি অচৈতন্য হয়ে পরেন। তাঁকে নিয়ে যাওযা হয় নিকটর্তী হাসপাতালে।’‌স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা গিয়েছে, অনিল পুরোহিত বেশ কিছুদিন ধরেই ধর্মগুরুদের নিয়ে এ ধরনের খবর শোনার পর চিন্তাগ্রস্ত ছিলেন। তাঁর আশ্রমেও বহু মানুষ আসেন। বিশেষ করে জাগরণের সময় অনেক ভক্তের সমাগম ঘটে। তাই তাঁকেও কোনও সময় যদি এ ধরনের অভিযোগের সম্মুখীন হতে হয়, তা নিয়েই তিনি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন। তবে এ ধরনের কোনও কাজ করবেন তা কেউই ভাবতে পারেননি।

First published: June 17, 2018, 7:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर