• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Child Fever in Durgapur: অজানা জ্বরের থাবা! আক্রান্ত ৪২ শিশু! চিন্তায় দুর্গাপুর

Child Fever in Durgapur: অজানা জ্বরের থাবা! আক্রান্ত ৪২ শিশু! চিন্তায় দুর্গাপুর

photo source local 18

photo source local 18

Child Fever in Durgapur: শিশু বিশেষজ্ঞদের বিশেষ টিম আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছে।

  • Share this:

    #দুর্গাপুর:  অজানা জ্বরের থাবা এবার দুর্গাপুরে (Child Fever in Durgapur)। গত কয়েকদিনে আক্রান্ত হয়েছে ৪২টি শিশু। সকলেই দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। জ্বর, সর্দি-কাশি সহ একাধিক উপসর্গ রয়েছে তাদের। অনেকের রয়েছে শ্বাসকষ্টের সমস্যাও। শিশু বিশেষজ্ঞদের বিশেষ টিম আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছে। এই ঘটনা চিন্তায় ফেলেছে জেলা প্রশাসনকে। কপালে চিন্তার ভাঁজ দুর্গাপুরবাসীরও।

    করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মধ্যে, উত্তরপ্রদেশে শিশুদের অজানা জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা চিন্তা বাড়াচ্ছিল দেশবাসীর। গত সাতদিনের মধ্যে উত্তরবঙ্গেও আক্রান্ত হয়েছে বেশ কয়েকজন শিশু। এবার সেই অজানা জ্বর (Child Fever in Durgapur)থাবা বসিয়েছে দুর্গাপুরে। দিন কয়েকের ব্যবধানেই দুর্গাপুর মহকুমা জুড়ে ৪২টি শিশু আক্রান্ত হয়েছে।

    অনেকেই মনে করছেন, এই ঘটনা হয়তো করোনার ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট এর ঝাপটা। তবে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার ধীমান মন্ডল বলেছেন, এই ধরনের জ্বর (Child Fever in Durgapur) ঋতু পরিবর্তনের সময় হয়। বেশিরভাগ শিশুর মধ্যে ইনফ্লুয়েঞ্জা জ্বরের লক্ষণ রয়েছে। এখনও তেমন চিন্তার বিষয় কিছু হয়নি বলে আশ্বস্ত করেছেন তিনি।

    দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল, করোনার তৃতীয় ধাক্কার আশঙ্কায় অনেক আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়েছে। বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে শিশু বিভাগ। বর্তমানে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে শিশুদের (Child Fever in Durgapur) জন্য ৫৫ টি বেড রয়েছে। যার মধ্যে ৪২ টি বেডে শিশুদের চিকিৎসা চলছে।

    হাসপাতালে সুপার, এই বিষয়ে চিন্তার তেমন কিছু নেই বললেও, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যথেষ্ট সতর্ক রয়েছে। অজানা জ্বরে(Child Fever in Durgapur) আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার দিকে দেওয়া হয়েছে বিশেষ নজর। চিকিৎসা শুরুর আগে RAT বা আরটিপিসির টেস্ট করা হচ্ছে। হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে তৈরি করা হয়েছে একটি টিম। তারা আলোচনার মাধ্যমে সমস্ত শিশুর চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছেন।

    দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার ডক্টর ধীমান মন্ডল জানিয়েছেন, শিশুরা ভাইরাল ফিভার নিয়েই ভর্তি হয়েছে। তবুও কোনোরকম ঝুঁকি নিতে চাইছেন না তারা। একসঙ্গে ৪২ জ্বর নিয়ে ভর্তি হওয়ার বেশ চিন্তার। শিশুদের শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা ভাবাচ্ছে চিকিৎসকদের। শিশু বিভাগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সঙ্গে অন্যান্য বিভাগের চিকিৎসকদের নিয়ে বিশেষ টিম তৈরি করা হয়েছে। যে টিমের প্রতিটি সদস্য, পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে শিশুদের শারীরিক অবস্থার দিকে নজর রাখছেন।

    অন্যদিকে শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বলছেন, এই সময় আতঙ্কিত না হয়ে বাড়ির শিশুদের প্রতি আরও যত্নশীল হওয়া উচিত। যাতে কোনভাবে শিশুদের ঠান্ডা (Child Fever in Durgapur) না লাগে, সেদিকে পরিবারের অভিভাবকদের নজর দিতে হবে। ঋতু পরিবর্তনের সময় অনেক শিশুই ভাইরাল ফিভারে আক্রান্ত হয়। তাই বাড়ির প্রতিটি ছোট সদস্যকে যত্নে রাখতে হবে। কোনওরকম শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে, আতঙ্কিত না হয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

    তবে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মধ্যেই, অজানা জ্বরের (Child Fever in Durgapur) প্রকোপ চিন্তা বাড়িয়েছে গোটা দুর্গাপুরের। চিন্তা বাড়ছে জেলা প্রশাসনের। সাবধান হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষগুলিও। চিকিৎসকরা, শিশু-সহ বাড়ির সবাইকে সাবধানে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন। করোনাবিধি মেনে চলার অনুরোধ করছেন।

    Nayan Ghosh 

    Published by:Piya Banerjee
    First published: