corona virus btn
corona virus btn
Loading

ভয়ঙ্কর ফণীর দাপটে মৃত ৩২, ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় দেড় কোটি মানুষ, উদ্ধারকাজ জোরকদমে

ভয়ঙ্কর ফণীর দাপটে মৃত ৩২, ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় দেড় কোটি মানুষ, উদ্ধারকাজ জোরকদমে
এক সপ্তাহ আগেই ভয়াল ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে তছনছ হয়ে গিয়েছে ওড়িশা। ফণীর প্রভাবে সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ওড়িশার উপকূলীয় এলাকাগুলি । তারপর থেকেই ওড়িশায় বন্ধ বিদ্যুত সরবরাহ । পানীয় জলের অভাবে হাহাকার রাজ্যে ।
  • Share this:

#ভূবনেশ্বর: ঘূর্ণিঝড় ফণীর আতঙ্কে এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি রাজ্যের মানুষ ৷ চোখ বন্ধ করলেই দু:স্বপ্নের মত ভেসে উঠছে সেদিনের ছবি ৷ শেষ মুহূর্তের পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ে এখনও পর্যন্ত ৩২ জন প্রাণ হারিয়েছেন ৷

ফণীর জেরে ঘরছাড়া হয়েছেন বহু মানুষ ৷ গোটা রাজ্যটাই একেবারে তছনছ হয়ে গিয়েছে ৷ তবে, দ্রুত পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছেন রাজ্য সরকার ৷ উদ্ধারকারী দলের কর্মীরা পৌঁছে যাচ্ছেন রাজ্যের আনাচে-কানাচে ৷ জোরকদমে চলছে পুনরুদ্ধারের কাজ ৷

ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে পুরীও ৷ পর্যটকদের অন্যতম আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা পুরীর ছবি দেখলে বারবার শিউরে উঠতে হয় ৷ হোটেলগুলি যেন হানাবাড়িতে পরিণত হয়েছে ৷ ভেঙে পড়েছে সাধারণ মানুষের ঘর-বাড়ি ৷ ২০০ কিমি প্রতি ঘণ্টায় বয়ে যাওয়া ঝড়ের জেরে গোটা শহরটা যেন এক ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে ৷ এই ঘূর্ণিঝড়ের জেরে প্রায় ১.৫ কোটি মানুষ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷

খড়দা জেলা সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ এই এলাকা থেকেই ২০ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে ৷ মনে করা হচ্ছে, গোটা ওডিশা জুড়ে ঘূর্ণিঝড়ের জেরে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে যেতে পারে প্রায় ৪০ ৷

স্পেশাল রিলিফ কমিশনারের তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘূর্ণিঝড়ের জেরে ১১টি জেলার ১৪৫ টি ব্লক একেবারে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে গিয়েছে ৷ পাশাপাশি, ১৫,৮৪৬ টি গ্রাম এবং ৭৭৩টি ওয়ার্ড ধুলিসাৎ হয়ে গিয়েছে ৷ এছাড়াও প্রায় ১৭,২৮০ টি গৃহপালিত পশুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে ৷

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, প্রায় ৩.৩২ লক্ষ বাড়ি সাইক্লোনে কমবেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ উল্লেখ্য, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় ১৩.৮৮ লক্ষ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে গিয়ে বিশ্বের দরবারে রীতিমত নজির গড়েছে ওডিশা ৷ রাষ্ট্রপুঞ্জের ভূয়শী প্রশংসা কুড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকও ৷

ফণীর জেরে যারা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন ৷ তাদের জন্য একটি ত্রাণ তহবিলও ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ প্রতি পরিবার পিছু ৫০ কেজি দরে চাল এবং ২ হাজার টাকা ঘোষণা করেছেন ৷

Written by- Anand ST Das

First published: May 5, 2019, 11:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर