Home /News /national /
১৪ বছরেই বই প্রকাশ করে দেশের কনিষ্ঠতম লেখকের রেকর্ড; চেনেন কি এঁকে?

১৪ বছরেই বই প্রকাশ করে দেশের কনিষ্ঠতম লেখকের রেকর্ড; চেনেন কি এঁকে?

File image of Prabhsimrat Gill.

File image of Prabhsimrat Gill.

তাঁর নাম OMG বুক অফ রেকর্ডসেও ওঠে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নিজের বই নিজেই প্রকাশ করার প্রচলন রয়েছে অনেক লেখকের মধ্যে। কিন্তু একদম শুরুতেই এভাবে হয় তো কেউ ভাবে না। তাই মোহালির এই বছর ১৪-র তরুণ নিজের বই নিজে প্রকাশ করে নাম তুলে নিলেন এশিয়া বুক অফ রেকর্ডসে। বর্তমানে তিনিই হলেন সবচেয়ে কমবয়সী লেখক, যিনি একজন প্রকাশকও বটে।

জানা গিয়েছে, এর আগে এর জন্য তাঁর নাম OMG বুক অফ রেকর্ডসেও ওঠে। এই বিষয়ে Tribune-এর রিপোর্ট বলছে, প্রভসিমরত গিল (Prabhsimrat Gill) নামের ওই যুবকের লেখা বই এক্সপ্লোর দ্য নিউ ইউ (Explore the New YOU) আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি অর্জন করেছে। Amazon-এ বিক্রিত আমেরিকা ও কানাডায় বেস্ট সেলার বইটি।

এই নন-ফিকশন বইটিতে প্রভসিমরত বিভিন্ন জিনিসের কথা উল্লেখ করেছেন। বিশেষ করে লক্ষ্য, বিশ্বাস, অভ্যেসের মতো মূল্যবোধের কথা এই বইতে উঠে এসেছে। বইয়ের প্রথমাংশে জীবনের মানে ও জীবন সংক্রান্ত একাধিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন তিনি। ভয় কাটিয়ে কী ভাবে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হওয়া যায়, কী ভাবে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস গড়ে তোলা যায়, সেই সব কিছু উঠে এসেছে তাঁর লেখায়।

বইয়ের দ্বিতীয় অংশে লেখক আরও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন। তাঁর লেখায় উঠে এসেছে লক্ষ্যপূরণের কথা। তাঁর কথায় উঠে এসেছে নিজের অভ্যেস তৈরি করার কথা।

কী ভাবে এত ছোট বয়সে এল এই ভাবনা?

লকডাউনে সকলেই ঘরবন্দী হয়ে পড়ায় মানসিক সমস্যার পরিমাণ বেড়েছে। অনেকেরই অবসাদ, অতিরিক্ত চিন্তা তৈরি হয়েছে। যার থেকে মানুষকে মুক্তি দিতে এই লেখক কিছু করার কথা ভাবেন। মানুষকে হাসি-খুশি রাখতে এর থেকে ভালো কোনও পন্থা তিনি পাননি। তাই বই লেখা শুরু বলে জানান। প্রভসিমরত বলেন, আমি চাই মানুষ নিজেদের স্বপ্ন পূরণ করুক। তাই অন্যান্য সব কিছু থেকে দূরে থেকে তাঁরা যাতে জীবনের মূল্যবোধ মনে রেখে স্বপ্ন পূরণের পথে হাঁটে তারই চেষ্টা করি।

এত ছোট বয়সে বই লিখে, তা প্রকাশ করেই চমক দিয়েছেন তিনি, এমন নয়। বইরে প্রথম অংশের কাজ শেষ করেন মাত্র ১৫ দিনে। তার পর তার সম্পাদনা করে বই সম্পূর্ণ তৈরি করেন। বইটি বিক্রি শুরুতেই লোকজনের পছন্দ হতে থাকে এবং বর্তমানে Amazon-এ বেস্ট সেলার এটি।

তাঁর এই রেকর্ডে খুশি তাঁর স্কুল। প্রিন্সিপাল এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, প্রভসিমরত যা করেছে তার জন্য আমি খুবই খুশি। তাঁর দক্ষতাকে আরও বাড়ানোর জন্য আমাদের স্কুলের শিক্ষকরাও অনেকটা সাহায্য় করেছে। আমি ওকে শুভেচ্ছা জানাই। ও নিশ্চয় স্কুলের নাম আরও উজ্জ্বল করবে!

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Mohali

পরবর্তী খবর