Home /News /murshidabad /
Green Coconut Price : তীব্র গরমে চরম তেষ্টাতেও ডাবের জল পান এখন বিড়ম্বনা! কেন?

Green Coconut Price : তীব্র গরমে চরম তেষ্টাতেও ডাবের জল পান এখন বিড়ম্বনা! কেন?

ডাবের

ডাবের দাম ঊর্ধ্বমুখী

Green Coconut Price : মুর্শিদাবাদ জেলার সদর শহর বহরমপুর থেকে শুরু করে কান্দি সহ সর্বত্র চিত্র এক। এক পিস ডাবের দাম প্রায় ৫০ টাকা থেকে ৬০ টাকা।

  • Share this:

    মুর্শিদাবাদ : তীব্র গরমে কাজে গিয়ে ক্লান্তি দুর করতে পথের একপাশে বসে থাকা ডাব বিক্রেতার কাছ থেকে ডাব কিনতে চাইছেন অনেকেই । মনে আশা শরীর ঠান্ডা করার । কিন্তু দাম জিজ্ঞাসা করতেই শরীরের তাপমাত্রা বাড়ছে আরও কয়েক ধাপ । জানেন কি ডাবের দাম কত? এখন ডাবের দাম ঊর্ধ্বমুখী । ফলে মাথায় হাত পড়েছে সাধারণ মানুষের । মুর্শিদাবাদ জেলার সদর শহর বহরমপুর থেকে শুরু করে কান্দি সহ সর্বত্র একই ছবি ।

    ডাবের দাম গড়পড়তায় প্রায় ৫০ টাকা থেকে ৬০ টাকা । গরম পড়তেই জেলার পাইকারি ডাবের আড়ত থেকে হাজারে হাজারে ডাব পাড়ি দিচ্ছে বিহার-সহ ভিন রাজ্যে । গত বছরও এইসব পাইকারি আড়তদাররা একটি ডাব কিনেছেন ২০-২২ টাকায় । ট্রাকে করে ডাব পাঠিয়ে দাম পেয়েছেন ২৬-২৮ টাকা । এবার জ্যৈষ্ঠের মাঝামাঝি সময়ে অতিরিক্ত গরম পড়তেই ডাবের চাহিদা বাড়লেও হঠাৎ যেন ডাবের যোগান কমে যাচ্ছে । চৈত্রের প্রথম সপ্তাহে পাইকারি ডাবের দাম ছিল ২২-২৪ টাকা । খুচরো বিক্রি হচ্ছিল ৩০-৩৫ টাকায় । জ্যৈষ্ঠের মাঝামাঝিতে এখন দাম ঠেকেছে ৫০-৬০ টাকায় ।

    আরও পড়ুন : এগিয়ে আসছে আষাঢ়ের পুণ্য লগ্ন, মহিষাদলে জোরকদমে চলছে রথযাত্রার প্রস্তুতি

    আরও পড়ুন : বহরমপুর ও ডোমকলে নদীতে স্নান করতে নেমে তলিয়ে গেল ৪ কিশোর

    এই গরমে ডাবের চাহিদা অনেক বেশি । কিন্তু সেই চাহিদা অনুযায়ী ডাবের সরবরাহ অত্যন্ত কম । দীর্ঘ দিন ধরে খরার কারণে নারকেল গাছে ফলন খুবই কম হয়েছে । যে কারণে দামও অনেক বেশি । সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ঘুরে ঘুরে ডাব সংগ্রহ করলেও ডাবের দাম এখন উর্ধ্বমুখী, স্বীকার করেছেন ডাব বিক্রেতারাও । তাঁদের কথায়, দৈনিক গড়ে ৪০০ টির মতো ডাব বিক্রি হয় । মূলত গ্রামীণ এলাকা থেকে ডাব নিয়ে আসা হয়, শহর এলাকায় গাছ কেটে ফেলায় ডাবের যোগানও কম হচ্ছে। তার জেরেই গ্রামীণ এলাকা থেকে ডাব নিয়ে এসে বিক্রি করা হয় শহর এলাকায় । সেই জন্য ডাবের দামও ঊর্ধ্বমুখী বলে জানাচ্ছেন বিক্রেতারা । ক্রেতাদের কথায়, ‘‘চড়া দাম হলেও ডাব খাচ্ছি। শরীরেও একটু তৃপ্তি মিলছে।’’ তবে ডাবের দাম বৃদ্ধি হলেও তেষ্টা মেটাতে ডাবে চুমুক দিচ্ছেন পথ চলতি সাধারণ মানুষ ।

    ( প্রতিবেদন : কৌশিক অধিকারী  )
    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Murshidabad

    পরবর্তী খবর