Home /News /malda /
Homestay Business | Tourism: পুজোর আগেই পর্যটন শিল্পে বড় খবর! তৈরি হচ্ছে শতাধিক হোমস্টে! কোথায় জানুন

Homestay Business | Tourism: পুজোর আগেই পর্যটন শিল্পে বড় খবর! তৈরি হচ্ছে শতাধিক হোমস্টে! কোথায় জানুন

title=

Homestay Business | Tourism: থাকার জায়গা নিয়ে আর ভাবতে হবে না! ঐতিহাসিক স্থানের পাশেই পেয়ে যাবেন থাকা খাওয়া! শতাধিক নতুন হোম স্টে চালু হচ্ছে এই জায়গায়! জানলে অবাক হবেন! পুজোর আগেই চালু হয়ে যাবে!

  • Share this:

    #মালদহ:  পাহাড় ও ডুয়ার্সের আদলে এবার মালদহ জেলায় তৈরি হচ্ছে হোমস্টে। আসন্ন দুর্গাপুজোর মধ্যেই মালদহ জেলার ঐতিহাসিক স্থান ও পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে হোমস্টে চালু হচ্ছে। মালদহ জেলা প্রশাসন ও পর্যটন দফতরের উদ্যোগে জোরকদমে চলছে হোমস্টে চালু প্রক্রিয়া। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের কাছ থেকে হোমস্টে চালুর আবেদন চাওয়া হয়েছিল। জেলার ঐতিহাসিক স্থান ও পর্যটন কেন্দ্র গুলির আশেপাশের বহু মানুষ নিজেদের বাড়িতে হোমস্টে চালুর ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। আগ্রহীদের আবেদন পত্র যাচাই করার কাজও জেলা প্রশাসন শুরু করেছে। সমস্ত কিছু ঠিক থাকলে পুজোর আগেই হয়ত জেলায় শতাধিক হোমস্টে চালু হবে।

    মালদা জেলায় পর্যটন শিল্পের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের বহু ক্ষেত্র রয়েছে। জেলার মানুষের মধ্যে পর্যটনের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা গড়ে তুলতে মালদহ জেলা প্রশাসন এমন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। জেলার মানুষের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে মালদহের পর্যটন এলাকাগুলিতে হোমস্টে করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মালদহ জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রশাসনের কাছে ইতিমধ্যে হোমস্টে গড়তে চেয়ে প্রায় ১৫০ টি আবেদন পত্র জমা করেছেন। আবেদনপত্র গুলি ইতিমধ্যে যাচাই করে দেখছেন প্রশাসনের কর্তারা।

    ইতিমধ্যে প্রায় ১০০ টি আবেদন পত্র যাচাইয়ের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। যে সমস্ত উদ্যোগীরা হোমস্টে করতে চেয়ে আবেদন করেছেন তাদের সরকারের তরফ থেকে আর্থিক অনুদানও দেওয়া হবে। তবে গাইডলাইন অনুযায়ী হোমস্টে হবে যেখানে পর্যটকদের জন্য পৃথক অত্যন্ত ১২০ বর্গ ফিটের ঘর এবং সঙ্গে শৌচাগার থাকতে হবে বাধ্যতামূলক। এছাড়াও সরকারি আরও বিধি নিয়ম রয়েছে। সমস্ত কিছু মেনে ঘর তৈরি হলেই হোমস্টে তৈরির অনুমতি মিলবে।

    ইতিহাস সমৃদ্ধ মালদহ জেলা। গৌড়, আদিনা পান্ডুয়া ও জগজীবনপুর ,সহ বহু ঐতিহাসিক নিদর্শন রয়েছে এখানে। রাজ্য ও রাজ্যের বাইরে থেকে পর্যটকেরা জেলায় আসলে থাকতে হয় মালদহ শহরের হোটেলে বা লজে। অনেক ক্ষেত্রেই সমস্যা হয় পর্যটকদের। তাই রাজ্য ও রাজ্যের বাইরে পর্যটকদের সুবিধার জন্য পর্যটন কেন্দ্র গুলির আশেপাশেই হোমস্টে খোলার অনুমতি দিচ্ছে জেলা প্রশাসন। মালদা জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলার সমস্ত হোমস্টে গুলির বিবরণ ও বুকিং প্রক্রিয়া পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পর্যটন দফতরের ওয়েবসাইটে নথিবদ্ধ থাকবে। সেখান থেকেই অনলাইন মাধ্যমে বুকিং করতে পারবেন বিভিন্ন প্রান্তের পর্যটকেরা।

    হরষিত সিংহ

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Homestay, Malda, Malda News

    পরবর্তী খবর