• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • PURBA MEDINIPUR DEMAND FOR PLANTING LIGHTNING ABSORBING TREES IN PURBA MEDINIPUR SR

১ মাসে বজ্রাঘাতে মৃত ৪০, বজ্রশোষক গাছ লাগালে কমবে দুর্ঘটনা, মত পরিবেশবিদদের

পরিবেশবিদদের মতে বৃক্ষছেদন ও অপরিকল্পিত গাছ লাগানোর ফলে বাড়ছে উষ্ণায়ন ও দূষণের মাত্রা। উষ্ণায়নের ফলে সৃষ্টি হচ্ছে বজ্রগর্ভ মেঘ। এর আর তাতেই বজ্রপাতের সংখ্যা।

পরিবেশবিদদের মতে বৃক্ষছেদন ও অপরিকল্পিত গাছ লাগানোর ফলে বাড়ছে উষ্ণায়ন ও দূষণের মাত্রা। উষ্ণায়নের ফলে সৃষ্টি হচ্ছে বজ্রগর্ভ মেঘ। এর আর তাতেই বজ্রপাতের সংখ্যা।

  • Share this:

    #তমলুক: পৃথিবী জুড়ে বাড়ছে দিন দিন বজ্রপাতের ঘটনা। যেমন বাড়ছে মৃত্যুর ঘটনা। উন্নত দেশগুলোতে সরকারি ও সামাজিক স্তরে এই সম্পর্কে সচেতন না থাকলেও ভারত দক্ষিণ পশ্চিম এশিয়ার জনবহুল দেশগুলোতে এই প্রাকৃতিক দুর্ঘটনা আজও উপেক্ষিত। অসতর্কতার কারণে মরে যাচ্ছেন বহু মানুষ। জনবহুল দেশ ভারতবর্ষে প্রতি বছর প্রায় আড়াই হাজার মানুষ বজ্রপাতে মারা যায়। ২০২০-২১ সালের রেকর্ড অনুযায়ী দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যুর ১৩ শতাংশ বজ্রপাতের কারণে হয়েছে। আরেকটি গবেষণায় কুরুক্ষেত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের  গবেষকরা দাবি করেছেন ভারতে প্রতিবছর প্রায় পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ বজ্রপাতে নিহত আহত হয়। ক্রমশই বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে বজ্রপাতের ঘটনা। চলতি মাসে বজ্রপাতে মৃত্যু সংখ্যা প্রায় ৪০। ৭ই জুন সোমবার পশ্চিমবঙ্গে বাজ পড়ে মৃতের সংখ্যা ৩০ এর ওপর। ঐদিন পশ্চিমবঙ্গের মোট বজ্রপাত হয়েছে ৬১ হাজার ৩৬৪। এরমধ্যে আকাশ থেকে মাটিতে ৩৮ হাজার ৫৬৮টি বাজ পড়েছে ও মেঘের মধ্যে ২২ হাজার ৭৯৬ বাজ। গত সোমবার ৭ই জুন থেকে এইদিন পর্যন্ত পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় বজ্রপাতে মৃতের সংখ্যা চার।

    পরিবেশবিদদের মতে বৃক্ষছেদন ও অপরিকল্পিত গাছ লাগানোর ফলে বাড়ছে উষ্ণায়ন ও দূষণের মাত্রা। উষ্ণায়নের ফলে সৃষ্টি হচ্ছে বজ্রগর্ভ মেঘ। এর আর তাতেই বজ্রপাতের সংখ্যা। পক্ষে পরিবেশবিদদের ধারণা বেশি পরিমাণে তাল, নারকেল, সুপুরি, শ্যাওড়া, বট  ছাতিম গাছ যথেচ্ছ ছেদনের ফলে বজ্রপাতে নির্গত কণা বাতাস থেকে শোষণ করার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে পরিবেশ। বাড়ছে  বজ্রপাতে মৃত্যুর ঘটনা।

    পরিবেশবিদদের দাবি বজ্রশোষক হিসাবে নারকেল তাল শ্যাওড়া বট ছাতিম জাতীয় গাছের খুব প্রয়োজন। বজ্রপাতের ফলে বাতাসে ভাসমান কনা শুষে নিয়ে বৈদ্যুতিক চার্য আটকাতে সক্ষম এই গাছগুলো। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার প্রাক্তন সহ সভাধিপতি মামুদ হোসেন জেলাশাসককে ই-মেইলের মাধ্যমে নারকেল, সুপুরি, শ্যাওড়া, বট  ছাতিম সহ প্রভৃতি বজ্রশোষক গাছ ১০০ দিনের কর্ম প্রকল্পে লাগানোর জন্য আবেদন করেছেন। মামুদ হোসেনের অভিমত এই জাতীয় গাছই পারে বাংলাকে বজ্রপাতের হাত থেকে রক্ষা করতে। তাই তিনি জেলা প্রশাসনকে অনুরোধ করেছেন বজ্রশোষক গাছ লাগানোর।

    Published by:Simli Raha
    First published: