• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • ৫০০ জন জুটমিল শ্রমিকের করোনা টিকার ব্যবস্থা করলেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী

৫০০ জন জুটমিল শ্রমিকের করোনা টিকার ব্যবস্থা করলেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী

ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীর উদ্যোগে টিটাগড় কেলভিন জুটমিলের ৫০০ জন শ্রমিককে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। মূলত ?

ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীর উদ্যোগে টিটাগড় কেলভিন জুটমিলের ৫০০ জন শ্রমিককে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। মূলত ?

ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীর উদ্যোগে টিটাগড় কেলভিন জুটমিলের ৫০০ জন শ্রমিককে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। মূলত ?

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা : করোনা মহামারীতে প্রাণ হারিয়েছে রাজ্যের বহু মানুষ। দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণ যে হারে বেড়েছে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। হিমশিম খেতে হয়েছিল দেশ তথা রাজ্যকে। তবে রাজ্যে এখন করোনা গ্রাফ নিম্নমুখী। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজারের নিচে। জেলাতেও কমেছে করোনা সংক্রমণ। গত ২৪ ঘন্টায় উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় আক্রান্ত হয়েছে ৯৭ জন। মৃত্যুর সংখ্যাও অনেকটাই কম। কেন্দ্রীয় সরকার থেকে রাজ্য সরকার করোনা মহামারী থেকে রক্ষা পেতে জোর দিয়েছে টিকাকরণে। প্রথম থেকেই ধাপে ধাপে শুরু হয়েছে টিকাকরণ। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় জোর কদমে চলছে টিকাকরণ। করোনা মহামারীতে টিকাকরণের দিক থেকে অনেকটাই এগিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য। আর তাই টিকাকরণকে আরও মজবুত করতে সরকার থেকে প্রশাসনের উদ্যোগে জোর কদমে চলছে টিকাকরণ। ঠিক এমনই চিত্র দেখা গেল উত্তর ২৪ পরগনার টিটাগড়ে। ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীর উদ্যোগে জুট মিল শ্রমিকদের টিকাকরণ দেওয়া শুরু হল। ব্যারাকপুর কেন্দ্রের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীর উদ্যোগে এদিন টিটাগড় কেলভিন জুটমিলের ৫০০ জন শ্রমিককে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। মূলত যাদের বয়স ৪৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে তাদেরকে এদিন ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। বাকি শ্রমিকদেরও পর্যায়ক্রমে করোনা রোধে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। করোনা মোকাবিলায় মিলের মধ্যেই ভ্যাকসিন পেয়ে খুশি মিল জুটমিল শ্রমিকরা। সেলিব্রেটি বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী এদিন বলেন, জুটমিল শ্রমিকেরা তিনটে শিফটে কাজ করেন। তাদের পক্ষে পৌরসভা কিংবা হাসপাতালে গিয়ে ভ্যাকসিন নেওয়া সম্ভব নয়। তাই এদেরকে মিলের মধ্যেই ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। বিধায়কের দাবি, ব্যারাকপুর ও টিটাগড় অঞ্চলের সমস্ত জুটমিল শ্রমিকরাই করোনা ভ্যাকসিন পাবেন। ধাপে ধাপে পর্যায়ক্রমে সমস্ত শ্রমিকদের দেওয়া হবে ভ্যাকসিন। আগামীদিনে ব্যারাকপুর সংলগ্ন সমস্ত অঞ্চলে সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে প্রত্যেককেই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে বলে জানান ব্যারাকপুরের বিধায়করা চক্রবর্তী।

    রাতুল ব্যানার্জি

    Published by:Piya Banerjee
    First published: