• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • অরণ্য সপ্তাহ উপলক্ষে সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

অরণ্য সপ্তাহ উপলক্ষে সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

অরণ্য সপ্তাহ উপলক্ষে সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

অরণ্য সপ্তাহ উপলক্ষে সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

১৫৮ নম্বর সীমান্ত রক্ষা বাহিনী হরিদাসপুরের উদ্যোগে প্রায় ১০০ টি চারা গাছ রোপন করা হয় এদিন।

  • Share this:

    উত্তর ২৪ পরগনা : করোনা মহামারীর মধ্যেও ঘূর্ণি ঝড়ের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য। ঘূর্ণিঝড় আম্ফান এবং ইয়াস এর ফলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় দুই ২৪ পরগনায়। ঘরছাড়া হয় বহু মানুষ। ব্যাপক পরিমাণে নষ্ট হয় গাছপালার। এই পরিপ্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশে ম্যানগ্রোভ অরণ্যে জোর দেওয়া হয় সরকারের তরফ থেকে। রাজ্যের তৃণমূলের সরকার তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় এসে বন মন্ত্রী হিসাবে নির্বাচিত করেছে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে। মনমোহন মহোৎসবে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছিলেন রাজ্যে মোট ১৫ কোটি ম্যানগ্রোভ অরণ্য লাগানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। এছাড়াও প্রায় ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে রাজ্যে মোট সাড়ে ৩৫০ টি বনসৃজন তৈরীর পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান তিনি। এই কথা মাথায় রেখে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন পৌরসভার উদ্যোগে চলছে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি।

    এই লক্ষ্যে ১৫৮ নম্বর সীমান্ত রক্ষা বাহিনী হরিদাসপুর তাদের উদ্যোগে এবং ছয়ঘড়িয়া পঞ্চায়েতের সহযোগিতায় অরণ্য সপ্তাহ পালন বনগাঁ রাখালদাস হাইস্কুলে। তাদের উদ্যোগে প্রায় ১০০ টি চারা গাছ রোপন করা হয় এদিন। এ বিষয়ে কোম্পানির কমান্ডার অসীম ভক্ত জানান, 'আমার দেশ এভাবেই এগিয়ে চলুক এবং আমরা সব সময় দেশের পাশে ছিলাম, আছি আর থাকবো। এছাড়াও রাখালদাস হাইস্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শ্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস বলেন, 'আমাদের যে অরণ্য সপ্তাহ পালন হচ্ছে সেই কথা মাথায় রেখে বৃক্ষ রোপনের কর্মসূচি আমরা আয়োজন করেছি। এ বিষয়ে সহযোগিতা ও সাহায্য করেছেন বিএসএফ এবং ছয়ঘড়িয়া পঞ্চায়েত। এর জন্য তাদের অনেক ধন্যবাদ জানাই। এছাড়াও পঞ্চায়েত প্রধান প্রসেনজিৎ ঘোষ বলেন, অরণ্য সপ্তাহ পালন হচ্ছে তাই সে কথা মাথায় রেখে আজ বনগাঁ রাখালদাস স্কুলে আমরা বৃক্ষ রপন করলাম। এছাড়াও কিছুদিন আগেই বনগাঁ পৌরসভার উদ্যোগে প্রায় ১৫ হাজার বৃক্ষরোপণের কথা জানানো হয়েছে। আগামীদিনে আম্ফান, ইয়াসে যেভাবে গাছপালার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সেই কথা মাথায় রেখে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি লাগাতার চালু থাকবে। এ ছাড়াও সাধারণ মানুষ যাতে আরও সতর্ক হয়ে এই বৃক্ষরোপন কর্মসূচীতে এগিয়ে আসেন। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে গাছপালার ভূমিকা যে কতটা তা সফল মানুষের বুঝতে এবং জানতে হবে এই লক্ষ্যেই আগামীদিনে চলবে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি।

    রাতুল ব্যানার্জি

    Published by:Piya Banerjee
    First published: