নিষিদ্ধপল্লীর মহিলাদের পাশে দাঁড়িয়ে নজির হাওড়ার সেচ্ছাসেবী সংগঠনের

নিষিদ্ধপল্লীর মহিলাদের পাশে দাঁড়িয়ে নজির হাওড়ার সেচ্ছাসেবী সংগঠনের।

লকডাউনের জেরে আর্থিকভাবে বিধ্বস্ত উলুবেড়িয়ার হাট কালিগঞ্জের যৌন কর্মীদের পাশে দাঁড়ালো হাওড়ার সেচ্ছাসেবী সংগঠন সূর্যোদয়

  • Share this:

    কয়েকদিন আগেই এই মাসের দুই জুন উৎযাপিত হয়েছে আন্তর্জাতিক সেক্স ওয়ার্কার্স ডে। এই কাজের সাথে যুক্তদের বিচারের অধিকার সম্পর্কিত থিমও ছিলো এই বছরের সেক্স ওয়ার্কার্স ডে-র দিনে। রাজ্যের যৌন কর্মীদের কাছে এই থিম তো অনেক দূর কি বাত, মানুষ হিসেবে সমাজের তথাকথিত সভ্য নাগরিকদের কাছ থেকে মেলেনা সামান্য সন্মান টুকুও।

    ২০২০ সাল থেকে এই দেশে করোনা ভাইরাসের আগমণের  ফলে কাজকর্ম সব বন্ধ। তাই বর্তমানে প্রবল আর্থিক সমস্যার সম্মুখীন এই পেশার সাথে যুক্ত মহিলারা। মেলেনি কোনোরূপ সরকারী সাহায্য। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে মাঝে মধ্যেই উঠে আসছে যৌনকর্মীদের আত্মহত্যার খবর।

    তাই দীর্ঘদিনব্যাপী লকডাউনের জেরে আর্থিকভাবে বিধ্বস্ত উলুবেড়িয়ার হাট কালিগঞ্জের যৌন কর্মীদের পাশে দাঁড়ালো হাওড়ার সেচ্ছাসেবী সংগঠন সূর্যোদয়।  অভাবের জ্বালায় জর্জরিত সেইসব মহিলাদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের হতে তুলে দেওয়া হলো রেশন সামগ্রী , স্যানিটারি ন্যাপকিন সমেত নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস।বাইরের জগতের কেউ যে এই পেশার সাথে যুক্ত মহিলাদের দুঃখ, যন্ত্রণার কথা ভাবে, তা জেনে খুশি কালিগঞ্জের যৌনকর্মীরা।

    এই বিষয়ে সেচ্ছাসেবী সংগঠন সূর্যোদয়ের সভাপতি দীপঙ্কর দাস জানালেন, \"লকডাউনের এই কঠিন সময়ে সমাজের গরীব মানুষদের নিয়ে সবাই ভাবছে। কিন্তু এই দুঃসময়ে, রোজগার বন্ধের ফলে এই যৌনকর্মীদের কিভাবে দিন কাটছে তা নিয়ে মাথাব্যথা নেই কারোর। এরা যে আমাদের সমাজেরই একটা অংশ সেটা ভুলে গেলে চলবেনা। তাই এই সময়ে  এদের পাশে দাঁড়িয়ে মনুষ্যত্বের পরিচয় দিয়েছে সূর্যোদয়ের সদস্যরা।\"পাশাপাশি হাওড়া ও রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় এই পেশার সাথে যুক্ত মানুষের পাশে সবাইকে দাঁড়ানোর জন্যও অনুরোধ করলেন তিনি।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: