• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • প্রথাগত রাখি ভুলে মানুষ কিনছে মোদি, মমতার ছবি দেওয়া রাখি

প্রথাগত রাখি ভুলে মানুষ কিনছে মোদি, মমতার ছবি দেওয়া রাখি

দলীয়ভাবে যে যাকে সমর্থন করে তারাই এই রাখি কিনছেন বেশি

দলীয়ভাবে যে যাকে সমর্থন করে তারাই এই রাখি কিনছেন বেশি

দলীয়ভাবে যে যাকে সমর্থন করে তারাই এই রাখি কিনছেন বেশি

  • Share this:

    #নদিয়া: আগামীকাল রাখি বন্ধন উৎসব। মূলত বিভিন্ন ধর্মের মানুষের সাথে মেল বন্ধনের জন্য এই উৎসব শুরু করেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। সাধারনত ভাইবোনের মধ্যে এই উৎসব পালন করা হয়। তবে তরুণ প্রজন্ম এই উৎসবকে ভাইবোনের মধ্যে থামিয়ে রাখেনি। বন্ধু থেকে শুরু করে রাজনৈতিক নেতা, এমনকি সীমান্তে সেনাবাহিনীদেরও পড়ানো হয় রাখি। তবে এ বছর প্রথাগত রাখির থেকে একটু অন্যরকম রাখি অনেকেরই হাতে দেখা যাবে বলে আশা করা যায়। বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীদের ছবি দেওয়া রাখি লক্ষ্য করা যাচ্ছে বিভিন্ন দোকানে।

    এই দিনে মানুষের সব ভেদাভেদ ভুলে মেল বন্ধনে আবদ্ধ হয়। একে অপরকে রাখি পরিয়ে বিশেষভাবে দিনটিকে উদযাপন করা হয়। কিন্তু এ বছর বাজারে এসে গেলো এক নতুনত্ব রাখি, যা কেনার জন্য ক্রেতাদের মধ্যে আগ্রহ যথেষ্টই। ব্যবসায়ীরা জানান, গতবছর লকডাউন এর কারণে বেচাকেনা একপ্রকার বন্ধ ছিল বলেই বলা চলে। এবছর রাখি কেনার ক্ষেত্রে ক্রেতাদের উৎসাহ চোখে পড়ার মতো। বিধানসভা নির্বাচনের পরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও দেশের প্রধানমন্ত্রী সমালোচনায় কেউ এক পা ও পিছিয়ে নেই। আর এই রাখি বন্ধনকে ঘিরে বাজারে একে অপরকে টেক্কা নিচ্ছে দুজনেই। নদিয়ার বিভিন্ন প্রান্তের রাখির দোকানগুলিতে ক্রেতাদের ভিড় থাকলেও অনেকেই হাতিয়ে বেড়াচ্ছেন মোদি এবং মমতার ছবি দেওয়া রাখি।

    বিক্রেতারা জানান, নব যৌবনের ছেলেমেয়েরা অন্যান্য রাখি কিনলেও দলীয়ভাবে যে যাকে সমর্থন করে তারাই এই রাখি কিনছেন বেশি। একাংশ বিক্রেতারা জানান, মমতার ছবি দেওয়া রাখি দিয়ে উঠতে পারছিনা। অপর একাংশ বিক্রেতারা জানান, মোদির ছবি দেওয়া রাখি বেশি বিক্রি। স্বভাবতই আগামীকাল রাখি বন্ধন, আর এই রাখীবন্ধন উপলক্ষেই দুই হেভিওয়েট এর রাখি বাজারে আশায় ব্যবসার ক্ষেত্রে লাভজনক বিষয় নিয়ে অনেকটাই স্বস্তির নিঃশ্বাস মিলছে তাদের। রাজনীতিতে যাই হোক না কেন যে যার দলের প্রতি ভালোবাসা তা রাখি কেনার মধ্যে দিয়েই ২০২৪ এর নির্বাচনের একপ্রকার সমীকরণ বলেই মনে করছেন বিশিষ্টজনেরা।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: