হোম /খবর /হাওড়া /
হাওড়ার প্রায় ৫০০ বছরের পুরোনো মাকড়দহের চৌধুরীবাড়ির দুর্গাপুজো! জানুন ইতিহাস

হাওড়ার প্রায় ৫০০ বছরের পুরোনো মাকড়দহের চৌধুরীবাড়ির দুর্গাপুজো! জানুন ইতিহাস

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

আন্দুলের রাজবাড়ির জমিদারের হাত ধরেই শুরু হয়। এখনও জমিদার জনার্দন চৌধুরীর নামেই সংকল্প হয় এই পুজো।

  • Share this:

#হাওড়া: হাওড়ার মাকড়দহে যে কটি বনেদি বাড়িতে বহু বছর ধরে সাবেকিয়ানা ও ঐতিহ্যের সাথে দুর্গাপুজো (Durga Puja 2021) চলে আসছে , সেগুলির মধ্যে সবচেয়ে প্রাচীনতম দুর্গাপুজো হল মাকড়দহ চৌধুরীপাড়ায় জমিদার জনার্দন চৌধুরীর বাড়ির পুজো ।

আনুমানিক প্রায় পাঁচশো বছর আগে আন্দুল রাজবাড়ির জমিদার শ্রী জনার্দন চৌধুরীর নির্দেশে , তার জমিদারির কোষাধ্যক্ষের ব্যাপারে দেখভাল করার জন্য তার পরিবারের কয়েকজন সদস্যরা মাকড়দহের বর্তমানের এই চৌধুরী বাড়িটিতে (Durga Puja 2021)বসবাস শুরু করেন ।তারপর আনুমানিক প্রায় ৪৯১ বছর আগে জমিদার জনার্দন চৌধুরীর হাত ধরেই মাকড়দহের চৌধুরী বাড়িতে শুরু হয় দেবী দুর্গার আরাধনা (Durga Puja 2021)। তারপর থেকে চৌধুরীদের বংশধরদের হাত ধরেই সেই প্রাচীন রীতিনীতি মেনে শতকের পর শতক ধরে চলে আসছে চৌধুরীবাড়ির দুর্গাপূজা । শুধু পুজোর ক্ষেত্রেই নয় , এই বাড়িতে মৃৎশিল্পীরাও সেই প্রাচীনকাল থেকেই বংশপরম্পরায় দুর্গা প্রতিমা আসছেন যুগ যুগ ধরে ।

ঢাকিরাও বংশপরম্পরায় কয়েক পুরুষ ধরে ঢাক বাজিয়ে আসছেন চৌধুরীবাড়ির দেবী দুর্গার আরাধনায়(Durga Puja 2021) । এখনও জমিদার জনার্দন চৌধুরীর নামেই সংকল্প হয় এই পুজো ।প্রতিটি বনেদি বাড়ির দুর্গাপুজোতেই(Durga Puja 2021) কিছু ভিন্ন বৈশিষ্ট্য থাকে । মাকড়দহের চৌধুরীবাড়ীও এর ব্যতিক্রম নয় । এখানে শাক্ত মতে (কালিকা পুরাণ মতে) পুজো হয় মায়ের । মহালয়ার পর প্রতিপদ থেকে চৌধুরীদের ঠাকুরদালান সংলগ্ন চণ্ডীর ঘরে শুরু হয় মা চন্ডীর আরাধনা । চলে চণ্ডীপাঠ ও চন্ডীপুজাও ।

সকালবেলা থাকে ভাত ও খিচুড়ি ভোগ এবং রাতে মাকে দেওয়া হয় লুচিভোগ । প্রথা মেনে সেই প্রাচীনকাল থেকে ঠাকুরদালানেই হয় মা দুর্গার প্রতিমা তৈরির কাজ । যদিও মায়ের চক্ষুদান করা হয় ষষ্ঠীর দিন । মায়ের মূর্তিতে রঙও করা হয় ওই দিন(Durga Puja 2021) । ঠাকুরদালান সংলগ্ন বেলতলায় ওইদিনই বোধন হয় মায়ের ।

দুর্গাপুজোয় সপ্তমী ও অষ্টমীর(Durga Puja 2021) দিন ছাগবলি ও নবমীর দিন ছাগ ও ফলবলি দেওয়া হয় মাকে । অষ্টমীর দিন সম্পূর্ণ গ্রাম ভিড় করে চৌধুরী বাড়িতে । ওইদিন সকালে জাঁকজমকপূর্ণভাবে পুজো হয় মায়ের মন্দিরে । নিজের মনস্কামনা মেটাতে দণ্ডী কাটার পাশাপাশি ওইদিন অনেকে বুক চিরে মাকে নিজের রক্তও উৎসর্গ করে । পাশাপাশি নিজের সদ্যজাত সন্তানের ওজনের সমান বাতাশা হরিলুঠে মানসিক হিসেবেও দেয় অনেকে ।

নবমীর (Durga Puja 2021) দিন চৌধুরীপাড়া সংলগ্ন বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় হাজারেরও বেশি পরিবারকে পাত পেড়ে খাওয়ানোর প্রথাও চলে আসছে প্রাচীনকাল থেকে । দশমীর দিন বাড়ির মহিলারা সকলে মিলে একসাথে সিঁদুর খেলার প্রথাও রয়েছে এই বনেদি বাড়িতে ।

মায়ের বিসর্জন (Durga Puja 2021)এখনও সেই বাঁশে চাপিয়ে, কাঁধে করে নিয়ে গিয়েই মাকড়চন্ডী পুকুরে নিমজ্জন করা হয় । এক্ষেত্রে সবচেয়ে প্রথমে মাকড়চন্ডী পুকুরে চৌধুরীদের প্রতিমা বিসর্জনের পরই ওই পুকুরে এলাকার বাকি প্রতিমা গুলি বিসর্জন হয় । একাদশীর পুজোর ক্ষেত্রেও অতি প্রাচীন মাকড়চন্ডী মন্দিরে রীতি অনুযায়ী সর্বপ্রথম পুজো পড়ে চৌধুরীদেরই ।মাকড়দহের এই প্রাচীন পুজোয়(Durga Puja 2021) আসবেন কিভাবে ? হাওড়া স্টেশন থেকে ডোমজুড়গামী যেকোনো বাসে উঠে মাকড়দা বাসস্টপেজে নামার পর যে কোনো অটো বা টোটোকে চৌধুরী পাড়া দুর্গা দালান বললেই সে পৌঁছে দেবে প্রায় পাঁচশো বছরের পুরনো এই জমিদার বাড়িতে ।

Santanu Chakraborty

Published by:Piya Banerjee
First published:

Tags: Choudhury barir durgapuja, Howrah, Howrah oldest durga puja