লাইফস্টাইল

corona virus btn
corona virus btn
Loading

২০২০-তে বেশ মজায় ছিল তারা, চিড়িয়াখানার ভাইরাল ভিডিও মন ভালো করে দেবে!

২০২০-তে বেশ মজায় ছিল তারা, চিড়িয়াখানার ভাইরাল ভিডিও মন ভালো করে দেবে!

জানা গিয়েছে, ভিডিওটি Smithsonian’s National Zoo-র ভিডিও। তারাই প্রথম নিজেদের ইন্টাগ্রাম (Instagram) হ্যান্ডেলে সেটি শেয়ার করে। মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি।

  • Share this:

কোনও মানুষ সারা দিন কী করে, কী করতে পারে, তা তো আমরা বেশ কিছু ভ্লগ থেকে আজকাল জানতেই পারি। কিন্তু পশু-পাখিরা কী করে, তা যদি দেখা যায়, তা হলে মন্দ হয় না। আর এই পশু-পাখিদের ক্যান্ডিড মোমেন্টই উঠে আসে বেশ কিছু টিভি চ্যানেলের ক্যামেরায় বা চিড়িয়াখানার ক্যামেরায়। সম্প্রতি এমনই একটা ভিডিও ভাইরাল হয়, যাতে পান্ডা থেকে চিতা, সকলের একাধিক ক্যান্ডিড মোমেন্ট আপ্লুত করে নেটিজেনদের।

জানা গিয়েছে, ভিডিওটি Smithsonian’s National Zoo-র ভিডিও। তারাই প্রথম নিজেদের ইন্টাগ্রাম (Instagram) হ্যান্ডেলে সেটি শেয়ার করে। মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি।

যাতে দেখা যায়, একটি সজারু আপন মনে স্যান্ড বাথ নিচ্ছ। বাঘের ছানারা ঘুরে বেড়াচ্ছে। খেলছে নিজেদের মধ্যে। কোনওটা আবার সামনে এসে ক্যামেরার কাছে আওয়াজ করছে। সুন্দর পিঙ্ক ফ্লেমিংগো ঘুরে বেড়াচ্ছে। চিতার ছানা খেলা করছে। হনুমান দড়ির উপর দিয়ে হাঁটার চেষ্টা করছে।

শুধু এরাই নয়, ক্যামেরায় ধরা পড়ে আরও বেশ কিছু পশু-পাখি। যাদের মধ্যে কাউকে যোগ ব্যায়াম করতে দেখা যায়। কাউকে সাঁতার কাটতে। একটি পান্ডাকে দেখা যায় বাঁশ গাছ খেতে। ঘোড়াদের দৌড়তে দেখা যায়। কেউ তাদের বিরক্ত করছে না। আর তারা সবাই যেন আপন মনে নিজেদের মতো কী খুশিতেই না রয়েছে!

ভিডিওটি দেখে একজন ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী লেখেন, ক্লিপটি দেখতে দেখতে মুখে হাসি এসে গেল। যদি সকলে এমন ভিডিও দেখে খুশি থাকতে পারত, তা হলে কতই না ভালো হত! একজন আবার কমেন্টে লিখেছেন, কাকে ছেড়ে কাকে দেখব। সবাই ভীষণ কিউট। তবে, তাঁর আবার বিশেষ করে সজারুর স্যান্ড বাথ পছন্দ হয়েছে। একজন আবার চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এমন একটা ভিডিও বানানোর জন্য।

শুধু এই নয়, কয়েকজন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন পশু-পাখিদের এত সুন্দর করে রাখার জন্য। তাদের থাকার জায়গায় পরিষ্কার রাখার জন্য এবং একই সঙ্গে তাদের যত্ন নেওয়ার জন্য। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ এর পরিপ্রেক্ষিতে কোনও উত্তর না দিলেও অনেকেই এই বক্তব্যের সঙ্গে সহমত হন। এবং সকলেই বলেন, পশুদের ভালো খাওয়া-দাওয়া, এত সুন্দর খেলার জায়গা ও খেলার সরঞ্জামের ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাতেই হয়!

Published by: Piya Banerjee
First published: December 31, 2020, 4:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर