Home /News /life-style /
Pet Care: তীব্র গরমে হাত থেকে কী ভাবে বাঁচাবেন আদরের পোষ্যকে? এখুনি জেনে নিন

Pet Care: তীব্র গরমে হাত থেকে কী ভাবে বাঁচাবেন আদরের পোষ্যকে? এখুনি জেনে নিন

Pet Care: গরমের হাত থেকে পোষ্যকে বাঁচান। সব থেকে বেশি কষ্ট ওদের হয়। বাড়ির পোষা কুকুর ও বিড়ালের জন্য এখুনি এই কাজ করুন। নাহলে ঘটতে পারে চরম অঘটন!

  • Share this:

    #কলকাতা: গরমে হাসফাস জীবন। এক ফোটাও বৃষ্টি নেই। এই অবস্থায় মানুষ তো কষ্ট পাচ্ছেই সেই সঙ্গে আপনার বাড়ির পোষ্যেদের কষ্ট কিন্তু আরও বেশি। বাড়িতে কুকুর বিড়াল অনেকেই পোষেন। নিজের সন্তানের মতোই আদর ভালোবাসা পায় তারা। কিন্তু গরমকালটা ওদের জন্য সব থেকে কষ্ট কর। বাড়ির পোষ্য কুকুর বিড়ালের কথা বিশেষ করে বলা হচ্ছে কারণ, ওরা সবেতেই একটু আলাদা যত্ন পায়। তাই ওদের মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতাও বদলে যায়। সেই তুলনায় রাস্তার কুকুর-বিড়ালরাও গরমে কষ্ট পায় ঠিকই। কিন্তু সামান্য হলেও বাড়ির পোষা জীবেদের থেকে ওদের মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা বেশি। তার পরেও যখনই রাস্তাতেও এমন কুকুর বা বিড়ালকে কষ্ট পেতে দেখলে, কিছু না হোক একটু ঠান্ডা জল খেতে দিন। মাথায়, চোখে মুখে একটু জল দিয়ে দিন। তবে এখানে আলোচনার বিষয় বাড়ির পোষ্যরা।

    গরমে ঠিক কী করবেন কুকুরদের জন্য:

    ১) রোজ এক প্লেট দই খেতে দিন। ২) পোষ্যের মেঝেতে বসার জায়গায় ভেজা তোয়ালে বা কাপড় বিছিয়ে দিন। ৩) যারা স্পিৎজ, লাসা জাতীয় কুকধর পোষেন তারা একটু বেশি সর্তক থাকুন। গায়ের লোম একদম ছোট করে কেটে দিন। ৪)বেশি লোম আছে যে সব কুকুরের তাদের বেশির ভাগ সময় এসি ঘরে রাখুন।

    আরও পড়ুন: সঙ্গমের পরেই কি শরীর ছেড়ে উঠে যান সঙ্গী? জানেন কিসের ইঙ্গিত

    কী করবেন না:

    ১) নাকের ফুটো তুলনামুলক ছোট এমন কুকুর বা পোষ্যদের গরম বেশি। এদের দিনের বেলা ঘরের বাইরে বের করবেন না। ২) সিলিং ফ্যান চালালে হবে না। এদের গরম দূর করতে এসি চালাতেই হবে। ৩) রোজ স্নান করাবেন না। লোমের গোড়ায় যদি জল থেকে যায়, তবে ছত্রাক হতে পারে। যা থেকে রোগ হতে পারে। সপ্তাহে দু'দিনের বেশি স্নান করাবেন না। ৪) এসি ঘর থেকে বের করেই রোদে নিয়ে যাবেন না।

    এবার আপনার পোষ্য যদি বিড়াল হয়। কী করবেন এই গরমে:

    ১) পার্সিয়ান ক্যাট জাতীয় লোমশ বিড়ালদের সব সময় এই গরমে এসি ঘরেই রাখুন। ২) খাবার জলের মধ্যে রোজ ইলেকট্রল বা গ্লুকন-ডি মিশিয়ে দিন। ৩)অতিরিক্ত গরমে বিড়ালের সানবার্ন হয়। বিড়ালের কানে ও নাকে সানস্ক্রিন লাগান। পাওয়া যায় ওদের জন্য।

    কী করবেন না:

    ১) বারবার স্নান করাবেন না। লোম না শুকোলে ছত্রাক থেকে সংক্রমণ হতে পারে। ২) বিড়াল খেতে না চাইলে জোর করবেন না। ৩) বিড়ালকে নিয়ে এই সময় বাইরে যাবেন না। ৪) গায়ে যেন পোকা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Pet Care, Summer

    পরবর্তী খবর