• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • যাজক আশীর্বাদের জন্য হাত তুলতেই হাই ফাইভ দিল খুদে, ভিডিও দেখে হেসে খুন সবাই

যাজক আশীর্বাদের জন্য হাত তুলতেই হাই ফাইভ দিল খুদে, ভিডিও দেখে হেসে খুন সবাই

এই করোনাকালে পোশাকের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফ্যাশনেবল ফেস মাস্ক এঁটে এক মা তাঁর ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে গিয়েছেন গির্জায়।

এই করোনাকালে পোশাকের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফ্যাশনেবল ফেস মাস্ক এঁটে এক মা তাঁর ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে গিয়েছেন গির্জায়।

এই করোনাকালে পোশাকের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফ্যাশনেবল ফেস মাস্ক এঁটে এক মা তাঁর ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে গিয়েছেন গির্জায়।

  • Share this:

ছোট্ট ওই বাচ্চা মেয়ে না গির্জার যাজক- কার কাণ্ড দেখে আপনার বেশি মজা লাগছে বলুন তো?সত্যি বলতে কী, এই নিয়েই আপাতত ধন্দে রয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ার মানুষজন। শৈশব আর তার সারল্যের আবেদন যে অমোঘ, কে অস্বীকার করবে সে কথা? তাই একরত্তি ওই মেয়ের কাণ্ড দেখে সবাই হাসছেন তো বটেই! কিন্তু পাশাপাশি ঘটনায় রেগে না গিয়ে ওই ধর্মযাজকও যে হাসি চাপার চেষ্টা করে চলেছেন আপ্রাণ, সেটাও আমাদের কম মজা দিচ্ছে না।

দেখা যাচ্ছে যে এই করোনাকালে পোশাকের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফ্যাশনেবল ফেস মাস্ক এঁটে এক মা তাঁর ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে গিয়েছেন গির্জায়। ধর্মযাজক যখন খুদেকে আশীর্বাদের জন্য হাত তুললেন, তখনই সে একটু দুই পায়ে ভর দিয়ে লাফিয়ে উঠে তাঁকে হাই ফাইভ দিল! যা দেখে মা হাঁ-হাঁ করে উঠলেও ধর্মযাজক শুধু হা-হা করে হেসে উঠতে বাকি রেখেছেন!

কাজেই এই যে খবর বলছে, ভিডিও ক্লিপটা এর মধ্যে ২ মিলিয়নেরও বেশি বার দেখে ফেলেছেন সবাই, তা মোটেও অবিশ্বাস্য বলে মনে হচ্ছে না। আপনিও দেখুন না, ঠিক নিচেই সেটা রইল আপনার জন্য!

এই জায়গায় এসে খুব স্বাভাবিক ভাবেই সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতিক্রিয়ার কথাও বলতে হয়, ওটাকেও বাদ দেওয়া যায় না। কেন না, এই খুদের প্রসঙ্গেই অনেক বড়রাও ফিরে যাচ্ছেন তাঁদের ছোটবেলার স্মৃতির সফরে। একজন যেমন জানিয়েছেন রেডিট.কম-এ, ছোটবেলায় একবার এক উপাসনাসভায় ধর্মযাজক বেশ অভিনয় করে গসপেল ব্যাখ্যা করছিলেন। এই জায়গায় এসে তিনি যখন যিশুর মহিমা বোঝাতে দুই হাত ছড়িয়ে দেন ঈশ্বরের পুত্রের মতো, ওই ব্যক্তির মনে হয় যে তিনি একটা হাগ চাইছেন! এর পর আর তিনি থাকতে পারেননি, ছুটে গিয়ে জড়িয়ে ধরেছিলেন ধর্মযাজককে!

আর ট্যুইটারেতিরা কী বলছেন? তাঁরা বলছেন যে এক শিশুর চোখ দিয়ে দুনিয়াকে দেখার চেয়ে ভালো আর কিছু হতেই পারে না! আরেকজন আবার জানিয়েছেন যে সম্প্রতি তাঁর ছেলে প্রায় এই কাণ্ড করেছে স্কুলের প্রথম দিনে। প্রিন্সিপাল হাত তুলে স্যানিটাইজেশনের গুরুত্ব বোঝাতে চেয়েছিলেন, সে দিয়েছে হাই ফাইভ !

Published by:Piya Banerjee
First published: