লাইফস্টাইল

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

শুধুই কি টাকা পয়সা বিবাহিত জীবনকে সুখে ভরিয়ে তোলে !

শুধুই কি টাকা পয়সা বিবাহিত জীবনকে সুখে ভরিয়ে তোলে !
Photo : ANI

অনেক সময়েই প্রায় একটি প্রশ্ন বারবার আমাদের জীবনে ঘুরে ফিরে আসে - শুধু টাকাই কি জীবনকে একমাত্র সুখী করতে পারে ? একথায় সহজ ও সরল উত্তর দেওয়াই যেতে পারে হ্যাঁ ৷ টাকাই জীবনতে সুখী করে জীবন সখে ভরিয়ে দেয় ৷

  • Share this:
#লন্ডন: অনেক সময়েই প্রায় একটি প্রশ্ন বারবার আমাদের জীবনে ঘুরে ফিরে আসে - শুধু টাকাই কি জীবনকে একমাত্র সুখী করতে পারে ? একথায় সহজ ও সরল উত্তর দেওয়াই যেতে পারে হ্যাঁ ৷ টাকাই জীবনতে সুখী করে জীবন সখে ভরিয়ে দেয় ৷ চমকাবেন না এমটাই দাবি করছে এক বিদেশি রিসার্চ সংস্থা ৷ আজকের ব্যস্ততম জীবনে সবাই নিজের ভবিষ্যত নিয়ে নির্দিষ্ট পথে এগিয়ে চলেছে ৷ জীবনের বেশ খানিকটা লক্ষপূরণ করেই মানুষ বিয়ে করতে চায় ৷ তখনই বিয়ে করতে ইচ্ছুক হয় যখন বাড়ি, গাড়ি কেনার ক্ষমতা হয়, আয় একটা নির্দিষ্ট সীমা স্পর্শ করে ৷ অর্থ জীবনে একটি বিশে, ভূমিকা পালন করে, বিবাহিত জীবনের এক গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভই টাকা পয়সা ৷ আরও পড়ুন :  কাঠুয়া গণধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্ত দুই বিজেপি মন্ত্রীর ইস্তফা গ্রহণ করলেন মহেবুবা মুফতি
বেশিরভাগ সময়েই দেখা যায় পার্টনারের বা দম্পতির দুজনের মধ্যে আয়ের পরিমাণ এক নয় কারো বেশি তো কারও কম ৷ এ ক্ষেত্রে সঙ্গীর সঙ্গে মনস্তাত্বিক লড়াই শুরু হতে পারে ৷ কিন্তু যে সঙ্গীর পরস্পরের উপার্জিত অর্থের অর্থমূল্য সমান অপেক্ষাকৃত তারা বেশি সুখী হয় ৷ গবেষণা আরও বলছে সঙ্গীর মধ্যে যার আয় মাসে কম সে তার সঙ্গীর প্রতি বেশি যত্নশীল ও আস্থাভাজন ৷ কিন্তু বাস্তবে তারা বিবাহিত জীবন নিয়ে মোটেই সুখী নয়, নিজের আয় নিয়েও অসুখী ৷ বিবাহিত জীবনের স্থায়িত্ব আসে যদি দম্পতির আয় সমান ও সমপরিমাণ হয় তবেই ৷ আরও পড়ুন : ফের গণধর্ষণে উত্তপ্ত উন্নাও, অভিযুক্ত কাউন্সিলর যারা স্বনির্ভরশীল তাদের দায়বদ্ধতা বাড়তে থাকে সব ক্ষেত্রেই এমন কী অর্থনৈতিক সাহায্য বা সংসারের অন্যান্য খরচে নিজের যোগদান এক উল্লেখযোগ্য পর্যায়ে পোঁছায় ৷ নিদ্বিধায় বলা যায় পারস্পরিক বোঝাপড়ায়ই সুখী সংসার গঠনে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয় ৷ কিন্তু এক্ষেত্রেও আয়ের সীমা একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা বহন করে ৷ টাকা পয়সা ছাড়াও সুখীগৃহকোণের আরও স্তম্ভগুলি বিশ্বাস, ভালবাসা, বন্ধুত্ব, একসঙ্গে থাকার অঙ্গীকার এগুলোও সঙ্গে থাকা চাই ৷
First published: September 11, 2018, 1:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर