শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগ? কী ভাবে খোলা যায় ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট?

শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগ? কী ভাবে খোলা যায় ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট?

শেয়ার কেনা-বেচা বা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য হল ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট।

শেয়ার কেনা-বেচা বা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য হল ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট।

  • Share this:

শেয়ার কেনা-বেচা বা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য হল ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট। বিনিয়োগকারীর শেয়ারের সিকিওরিটি-সহ একাধিক তথ্যকে ফিজিকাল ফরম্যাট থেকে ইলেকট্রনিক ফরম্যাটে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকরণকেই ডিম্যাটরিয়ালেইজেশন বা ছোট্ট করে ডিম্যাট বলা হয়। আর এখান থেকেই এসেছে ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট। অর্থাৎ এই অ্যাকাউন্টে শেয়ার সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য ই-ফরম্যাটে জমা থাকে। একটি সাধারণ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট অর্থাৎ সেভিং অ্যাকাউন্টের মতোই কাজ করে এটি। এ ক্ষেত্রে একজন বিনিয়োগকারী ব্রোকারের মাধ্যমে তাঁর ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। ব্রোকারের মাধ্যমে অনলাইন বা অফলাইনে রেজিস্টার করতে হয়। শুধু এটুকুই নয়, প্রয়োজনীয় নথি জমা দেওয়ার পাশাপাশি একটি আবেদনপত্র পূরণ করতে হয় সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীকে। এর পর একটি ভেরিফিকেশন প্রসেসও চলে। এই ভেরিফিকেশন প্রসেস সম্পূর্ণ হয়ে গেলে নিজেদের ক্লায়েন্ট ID ও অ্যাকাউন্ট নম্বর পেয়ে যান বিনিয়োগকারীরা ।

এ বার জেনে নেওয়া যাক Groww বিষয়ে। এটি একটি ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যাটফর্ম। যার সাহায্যে ডিজিটাল উপায়ে ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খোলা যায়। দেখে নেওয়া যাক, Groww-এর সাহায্যে কী ভাবে খোলা সম্ভব ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট- ১. প্রথমেই Groww app-এ লগ-ইন করতে হবে। এর পর ‘Stocks’ ট্যাবে যেতে হবে। সেখান থেকে ‘complete setup’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

২. এ বার ‘Open Stocks Account‘ অপশনে ক্লিক করতে হবে। প্রসঙ্গত, Groww-তে ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে কোনও টাকা লাগে না।

৩. এ বার প্রয়োজনীয় তথ্য দেওয়ার পালা। KYC-এর প্রক্রিয়াকরণ সম্পূর্ণ করার জন্য এ ক্ষেত্রে পেশা, আয়, মা-বাবার নাম-সহ একাধিক তথ্য দিতে হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য দেওয়ার পর ভেরিফিকেশন করে নিতে হবে। এবং ‘Next’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৪. এর পর ড্রপ-ডাউন লিস্ট থেকে trading experience-এ এন্টার করতে হবে এবং ‘Next’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৫. পরবর্তী পদক্ষেপ হল আধার কার্ড সম্পর্কিত। এ ক্ষেত্রে e-sign সার্ভিসে নিজের আধার নম্বর দিতে হবে। কিছুক্ষণ পরই আধার লিঙ্ক করা রেজিস্টার মোবাইল নম্বরে একটি OTP আসবে। এবার e-sign করার জন্য ‘E-SIGN AOF’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৬. এ বার এই OTP বা সিকিওরিটি কোডটি এন্টার করতে হবে এবং ‘Submit’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৭. এর পর Demat account ওপেনিং ফর্ম ভালো করে পড়ে নিতে হবে এবং ‘Sign Now’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৮. ‘Sign Now’ করার পর সরাসরি NSDL ইলেকট্রনিক সিগনেচার সার্ভিসে পৌঁছে যাবেন আবেদনকারী। এ বার যথাস্থানে আধার নম্বর ও আধার ভার্চুয়াল ID এন্টার করতে হবে। আবার ‘Send OTP’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। এবং সেই OTP এন্টার করলেই সম্পূর্ণ হবে e-sign প্রক্রিয়া।

৯. সব শেষে স্ক্রিনে ‘Signed successfully‘ দেখাবে। লেখা থাকবে ‘you can start investing now'। এ বার শুরু করার জন্য ‘Let’s start’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই অ্যাকাউন্ট ভেরিফিকেশন হয়ে যাবে এবং খুলে যাবে অ্যাকাউন্ট। তার পর শুরু করা যেতে পারে বিনিয়োগ।

Published by:Piya Banerjee
First published: