শুধু হাত ধুলেই চলবে না, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দাঁত মাজাটাও জরুরি, বলছেন দন্তচিকিৎসক

শুধু হাত ধুলেই চলবে না, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দাঁত মাজাটাও জরুরি, বলছেন দন্তচিকিৎসক

অতিমারীর আবহে যে ক্ষেত্রে যখন-তখন করোনাভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে, সে ক্ষেত্রে দিনে শুধু বেশ কয়েকবার হাত ধোওয়াটাই যথেষ্ট নয়

অতিমারীর আবহে যে ক্ষেত্রে যখন-তখন করোনাভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে, সে ক্ষেত্রে দিনে শুধু বেশ কয়েকবার হাত ধোওয়াটাই যথেষ্ট নয়

  • Share this:

পৃথিবী জুড়ে একেক দেশের একেক সরকার এবং সেই সঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্তৃপক্ষরাও কেবল ঘন ঘন হাত ধোওয়ার দিকেই জোর দিচ্ছেন! অথচ একই সঙ্গে যে দাঁত মাজাটাও ভীষণ জরুরি, সে দিকে কেউ জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেনই না! সম্প্রতি এই মর্মে রীতিমতো অনুযোগ করেছেন দন্তবিদ তথা দন্তচিকিৎসক মার্টিন অ্যাডি।

এই জায়গায় এসে জানিয়ে রাখা ভালো যে এই অধ্যাপক মার্টিন অ্যাডি আপাতত কর্মরত রয়েছেন ইউনিভার্সিটি অফ ব্রিস্টলের দন্তবিদ্যা বিভাগে। সম্প্রতি দ্য টেলেগ্রাফকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারেই তিনি বুঝিয়ে বলেছেন যে কেন তাঁর এ হেন দাবি!

অধ্যাপক মার্টিন অ্যাডির বক্তব্য, সাবানে যে উপাদান থাকে, যা কি না আমাদের ত্বককে জীবাণুমুক্ত করে, ওই একই উপাদান না কি থাকে দাঁতের মাজনেও। কাজেই এই অতিমারীর আবহে যে ক্ষেত্রে যখন-তখন করোনাভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে, সে ক্ষেত্রে দিনে শুধু বেশ কয়েকবার হাত ধোওয়াটাই যথেষ্ট নয়।

অ্যাডি এ প্রসঙ্গে জোর দিয়েছেন কণ্ঠনালী দ্বারা করোনাভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার দিকটায়। বলছেন যে এই ভাইরাস প্রথমে আমাদের কণ্ঠনালীতে প্রবেশ করে। তার পর তা সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। কাজেই এই পথে সংক্রমণ রোধ করতে হলে শুধু গরম জলে কুলকুচি করাটাই যথেষ্ট নয়।

সেই জন্যই অ্যাডি পরামর্শ দিচ্ছেন টুথপেস্ট দিয়ে ভালো করে দাঁত মাজার! তিনি বলছেন যে টুথপেস্টের অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল উপাদান প্রায় ঘণ্টা পাঁচেক পর্যন্ত জীবাণু সংক্রমণ ঠেকিয়ে রাখে। সে ক্ষেত্রে লালারসে জীবাণু থেকে যাওয়ার কোনও সম্ভাবনাই আর থাকে না!

কিন্তু অ্যাডি যা-ই বলুন না কেন, কোনও দেশের সরকারই এখনও পর্যন্ত এই দাঁত মাজার বিষয়ে জনসচেতনতার বার্তা দেননি। অন্য দিকে, এ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফেও তেমন কিছু শোনা যায়নি। তাই অধ্যাপকের সকাতর অনুরোধ- এই বিষয়টি যেন ভেবে দেখেন সবাই!

তা, এই যদি অবস্থা হয়, তা হলে দিনে কতবার দাঁত মাজলে ভালো হয়? আর কিছু না হোক, অন্তত দিনে দু'বার দাঁত মাজার উপরে জোর দেওয়া হোক, জানিয়েছেন অ্যাডি।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: