corona virus btn
corona virus btn
Loading

একে বর্ষা তায় লকডাউন, নিজেকে সুন্দর রাখার টিপস অভিনেত্রী ঋতাভরীর

একে বর্ষা তায় লকডাউন, নিজেকে সুন্দর রাখার টিপস অভিনেত্রী ঋতাভরীর

বর্ষার দিনে রূপচর্চায় কী করবেন? আর কী করবেন না? সেই নিয়ে যখন দ্বিধায় শহরবাসী, তখন এক গোছা টিপস নিয়ে এগিয়ে এসেছেন অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী।

  • Share this:

#কলকাতা: মার্চের শেষে শুরু। জুনের প্রথম দিকে এসে মিলল ছাড়। কিন্তু এখনও পার্লারে যাওয়ার কথা ভাবতে পারেন না এই শহরের অনেকেই। করোনা আতঙ্কে টান পড়েছে সুন্দররীদের রূপচর্চায়। বর্ষার বৃষ্টি ভেজা দিনে চুল কিংবা ত্বকের যত্ন টা আবার না নিলেই নয়! সব মিলিয়ে মহা ফাঁপরে বাঙালি।

বর্ষার দিনে রূপচর্চায় কী করবেন? আর কী করবেন না? সেই নিয়ে যখন দ্বিধায় শহরবাসী, তখন এক গোছা টিপস নিয়ে এগিয়ে এসেছেন অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী। আয়ুষ্মান খুরানার সঙ্গে 'ওরে মন' থেকে 'ওগো বধূ সুন্দরী'। ইউটিউব বা টেলিভিশনের পর্দায় চেনা নায়িকা রূপচর্চার ব্যাপারে বরাবরই খুঁতখুঁতে।

লকডাউনে সব নিয়ম কানুন মেনে ঘরবন্দি থেকেছেন। লকডাউন শিথিল হতেই তাই কি নিজেকে ঠিক রাখার তাগিদে বেরিয়ে পড়লেন? চোখ ধাঁধানো গ্ল্যামার আর মন ভোলানো হাসিটা মুখে ধরে রেখেই ঋতাভরীর চটজলদি উত্তর, "মাস্ক, গ্লাভস, স্যানিটাইজার সবটাই এখনও সব সময়ের সঙ্গী। কিন্তু ঘরে বসে তো আর সবটা হয় না! তাই বিউটি স্টুডিওতে আসতেই হয়। আসার আগে মনে দ্বিধা ছিল না, এমনটা বলব না। তবে আসার পর আর কোন দ্বিধা নেই।"

একে বর্ষা তার ওপর লকডাউন। তা বলে কী ত্বকের যত্ন নেবেন না? ঋতাভরীর টিপস, "সবটাই করুন। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মেনে করুন। পার্লারে গেলে নজর রাখুন, স‍্যানিটাইজেশন করা হচ্ছে কী না! পরিস্থিতি যা, তাতে করোনা এখন রোজের জীবনের আশেপাশে ওত পেতে আছে। কিন্তু আমরা সতর্ক থাকলে, স্বাস্থ্যবিধি মানলে ভয় নেই।" ঋতাভরীর পাশে দাঁড়িয়ে শহরের এক নামী বিউটি স্টুডিওর মার্কেটিং ম্যানেজার নারায়নী বন্দ্যোপাধ্যায় বলছিলেন,"মানুষের মধ্যে এখনও একটা ভীতি কাজ করছে। সেটা অবশ্য অস্বাভাবিক নয়। পার্লার বা  বিউটি স্টুডিওতে স্বাস্থ্যবিধি মানলে হয়তো সেই ভীতি বা দ্বিধাবোধটা কাটানো যাবে।"

ঋতাভরী সাহসে ভর করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন। পেশার তাগিদে না হলেও নিজেকে সুন্দর দেখতে কে না চায়! তাই সর্তকতা বজায় রেখে, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই হয়ে যাক না একটা ছোট্ট বিউটি সেশন!

PARADIP GHOSH 

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: June 25, 2020, 12:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर