• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • বন্ধুত্বপূর্ণ আলিঙ্গনের নামে কেউ যৌন প্রস্তাব দিচ্ছেন কি না, বিশ্লেষণ করছেন বিশেষজ্ঞ

বন্ধুত্বপূর্ণ আলিঙ্গনের নামে কেউ যৌন প্রস্তাব দিচ্ছেন কি না, বিশ্লেষণ করছেন বিশেষজ্ঞ

আলিঙ্গন কিন্তু নানা রকমের হয়ে থাকে। শুধু মনের মানুষকেই নয়, বন্ধুদেরও আমরা আলিঙ্গন করে থাকি। আলিঙ্গন করি সহকর্মীদেরও

আলিঙ্গন কিন্তু নানা রকমের হয়ে থাকে। শুধু মনের মানুষকেই নয়, বন্ধুদেরও আমরা আলিঙ্গন করে থাকি। আলিঙ্গন করি সহকর্মীদেরও

আলিঙ্গন কিন্তু নানা রকমের হয়ে থাকে। শুধু মনের মানুষকেই নয়, বন্ধুদেরও আমরা আলিঙ্গন করে থাকি। আলিঙ্গন করি সহকর্মীদেরও

  • Share this:

#কলকাতা: খুব বেশি দিন হয়নি ভ্যালেন্টাইন'স উইক শেষ হয়েছে! ভালোবাসার ওই সপ্তাহে একটি দিন নির্দিষ্ট করে রাখা ছিল Hug বা আলিঙ্গনের জন্য। যাকে নাম দেওয়া হয়েছে Hug Day। কথা হল, এই আলিঙ্গন কিন্তু নানা রকমের হয়ে থাকে। শুধু মনের মানুষকেই নয়, বন্ধুদেরও আমরা আলিঙ্গন করে থাকি। আলিঙ্গন করি সহকর্মীদেরও। সব ক্ষেত্রেই ধরন এবং অন্তরঙ্গতা আলাদা আলাদা রকমের হয়। তাই আলিঙ্গনের মাধ্যমে বুঝে নেওয়া যায় যে অপর পক্ষ বিষয়টিকে কী ভাবে দেখছেন! অর্থাৎ সংশ্লিষ্ট সেই ব্যক্তি বন্ধুত্বপূর্ণ আলিঙ্গনের নামে খুব কাছাকাছি আসতে চাইছেন কি না, তা কিন্তু একটু সতর্ক থাকলেই বোঝা যায়!

এই পর্বে বিশেষজ্ঞা পল্লবী বার্নওয়াল আলিঙ্গনের মধ্যে লুকিয়ে থাকা বক্তব্য নিয়েই মুখ খুলেছেন। যার মূলে রয়েছে এক পাঠিকার চিঠি। সেই পাঠিকা জানতে চেয়েছেন যে বন্ধুত্বপূর্ণ আলিঙ্গনের নামে কেউ যৌন প্রস্তাব দিচ্ছেন কি না, সেটা কী করে বোঝা যাবে? পাশাপাশি, এই ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি কী ভাবে এড়িয়ে যাওয়া যায়, সে ব্যাপারেও তিনি পরামর্শ চেয়েছেন পল্লবীর কাছে।

পল্লবী জানিয়েছেন যে কেউ যদি বন্ধুত্বপূর্ণ আলিঙ্গনের নামে কেউ যৌন প্রস্তাব দিতে চান, তাহলে তাঁর আলিঙ্গনের মধ্যে একটু হলেও আলাদা কিছু থাকবে। যেমন, সেই ব্যক্তি একটু বেশিক্ষণ নিবিড় ভাবে জড়িয়ে ধরে থাকতে পারেন। এটাও হতে পারে যে তিনি আলিঙ্গন নিবিড় ভাবে করলেন না, কিন্তু শরীরের বিশেষ কোনও অংশ স্পর্শ করে গেলেন! এরকম হলে যাঁকে আলিঙ্গন করা হচ্ছে, তাঁর ষষ্ঠেন্দ্রিয়ই বুঝিয়ে দেবে যে অপর পক্ষ কী চাইছেন!

কিন্তু এটা তো হতেই পারে যে যাকে আলিঙ্গন করা হল, তিনি যৌন প্রস্তাব স্বীকার করে নারাজ! সেক্ষেত্রে পল্লবীর পরামর্শ- বিষয়টি অস্বস্তিকর মনে হলে হেসে সেই ব্যক্তিকে খুব ভদ্র ভাবে দূরে ঠেলে আলিঙ্গনমুক্ত হওয়া যায়। এবং পরের বার থেকে আর আলিঙ্গন করার সুযোগ দেওয়া বন্ধ করা যায়। তেমনই, আশ্রয় নেওয়া যায় Side Hug-এর। অর্থাৎ কাউকে দূরত্ব রেখে জড়িয়ে যদি ধরতেই হয়, তাহলে কাঁধে হাত দিয়ে এক পাশ থেকে যথেষ্ট দূরত্ব রেখেও আলতো ভাবে আলিঙ্গন করা যায়। এটা অনেক বেশি ফরম্যাল এবং তাতে অবাঞ্ছিত ঘটনা এড়িয়ে চলা যায়!

Pallavi Barnwal

Published by:Ananya Chakraborty
First published: