কোভিডমুক্ত দুনিয়ায় কী ভাবে লাফিয়ে বেড়াবেন তার ভিডিও দিলেন আনন্দ মাহিন্দ্রা, দেখলে হেসে ফেলতে বাধ্য!

কোভিডমুক্ত দুনিয়ায় কী ভাবে লাফিয়ে বেড়াবেন তার ভিডিও দিলেন আনন্দ মাহিন্দ্রা, দেখলে হেসে ফেলতে বাধ্য!

কোভিডমুক্ত দুনিয়ায় কী ভাবে লাফিয়ে বেড়াবেন তার ভিডিও দিলেন আনন্দ মাহিন্দ্রা, দেখলে হেসে ফেলতে বাধ্য!

মাহিন্দ্রা গ্রুপের এই কর্ণধার সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে যে ভিডিও শেয়ার করলেন, তার সঙ্গে সকলেই নিজেদের মনের যোগ ?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: সামাজিক যা শ্রেণীবিন্যাস, তা কেবল মানুষের মধ্যেই! প্রকৃতি বা রোগ কিন্তু এই ব্যাপারে ধনী এবং নির্ধনের মধ্যে কোনও প্রভেদ করে না। ফলে কোভিড ১৯-এর সংক্রমণ থেকে গা বাঁচিয়ে চলতে হচ্ছে সকলকেই। ভাইরাসের দ্বিতীয় ঝাপটায় নতুন করে মানিয়ে নিতে হচ্ছে নিজেদের ঘরবন্দী জীবনে। সেই অবস্থা যে মন থেকে মেনে নেওয়া যাচ্ছে না, আমাদেরই মতো তা এবার নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে জানান দিলেন দেশের অন্যতম বিজনেস টাইকুন আনন্দ মাহিন্দ্রা (Anand Mahindra)। মাহিন্দ্রা গ্রুপের এই কর্ণধার সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে যে ভিডিও শেয়ার করলেন, তার সঙ্গে সকলেই নিজেদের মনের যোগ খুঁজে পাবেন।

সম্প্রতি Twitter-এ যে ভিডিওটি শেয়ার করেছেন আনন্দ, সেখানে দেখা যাচ্ছে একটি পোষ্য সারমেয়কে। মালিকের সঙ্গে সে বাইরে ঘুরতে বের হয়েছে অনেক দিন পরে। বাইরে যাওয়ার সুযোগ পেয়ে সে যে কতটা উল্লসিত, সেটা তার লাফঝাঁপের বহর দেখেই দিব্যি টের পাওয়া যাচ্ছে। পথে হাঁটছে না সে, লাফিয়ে লাফিয়ে এগিয়ে চলেছে! আনন্দ জানিয়েছেন- কোভিডমুক্ত পৃথিবীতে তিনিও ঠিক এই ভাবে লাফিয়ে বেড়াবেন!

সঙ্গত কারণেই ভিডিওটি তাঁর অনুরাগীদের মধ্যে তুমুল আলোড়ন ফেলে দিয়েছে। কেউ তাঁর রসবোধের প্রশংসা করছেন, কেউ আবার জানিয়েছেন যে তিনিও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আশায় দিন গুনছেন। জনৈক ইউজার লিখেছেন যে তিনিও এই ভাবে মাহিন্দ্রা গ্রুপের অফিসে লাফিয়ে বেড়াবেন, জীবনের প্রথম চাকরি জয়েন করেও এখনও অফিসে যাওয়ার সুযোগ হয়নি তাঁর। আবার, আরেকজন কটাক্ষ করেছেন, লিখেছেন যে আনন্দ যেন ভবিষ্যতে নিজের লাফালাফির ভিডিও অবশ্যই মনে করে পোস্ট করেন!

হালফিলে মাঝে মাঝেই আনন্দের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে উঠে আসছে করোনাকালীন বদ্ধদশা এবং স্বাধীনতার কথা। কিছু দিন আগে যেমন তিনি লেখিকা ভার্জিনিয়া উলফের (Virginia Woolf) একটি উদ্ধৃতি শেয়ার করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। জানিয়েছিলেন যে মনের স্বাধীনতা কেউ কেড়ে নিতে পারে না, তাই এই করোনাকালে ঘোরাঘুরি হোক কল্পনায়। বই পড়ে সময় কাটুক, লোকের সঙ্গে কথা বলে, ভালো কোনও কনটেন্ট দেখে শানিয়ে নেওয়া হোক বুদ্ধি!

First published: