জোয়ানের এই উপকারিতাগুলো আগে জানা ছিল ?

জোয়ানের এই উপকারিতাগুলো আগে জানা ছিল ?

আমরা অনেকেই খাবার খাওয়ার পর একটু মৌড়ি বা জোয়ান মুখে ফেলেনি ৷ মুখশুদ্ধি হিসেবে জোয়ানের জুড়ি নেই ৷

  • Share this:

#কলকাতা: আমরা অনেকেই খাবার খাওয়ার পর একটু মৌড়ি বা জোয়ান মুখে ফেলেনি ৷ মুখশুদ্ধি হিসেবে জোয়ানের জুড়ি নেই ৷ কিন্তু জানেন কি? এই জোয়ান আপনার শরীরের পক্ষে দারুণ উপকারি ৷

জোয়ানের সব থেকে বড়ো গুণ আমরা সবাই জানি, সেটি হল এটি হজমে দারুন ভাবে সাহায্য করে। এটি হজম শক্তি বাড়ায় ও হজম প্রক্রিয়াকে উন্নত করে। গ্যাস অম্বলের সমস্যা থেকেও মুক্তি দেয়। এর জন্য এক চামচ জোয়ান, একচামচ মৌরি, ও একচামচ আদা গুড়ো বা আদা জলে ভালো করে ফুটিয়ে সেই জলটা খাওয়া যেতে পারে।

সর্দি কাশিতেও জোয়ান বেশ উপকারী। এটি বুকে জমা সর্দি তুলতে সাহায্য করে। বন্ধ নাক থেকে আরাম দেয়। এছাড়াও সর্দি কাশি হলে মাথা যন্ত্রণা করে সেই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দেয়। অনেকেরই আবার মাইগ্রেনের ব্যাথা হয় অসহ্য। সেটি থেকেও মুক্তি দেয় জোয়ান। এর জন্য জোয়ান গুড়ো করে, পাতলা একটা কাপড়ে নিয়ে সেটির গন্ধ নিতে হবে। একটু গরম জলের সঙ্গে একটু জোয়ান চিবলে কাশি থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

কিডনির সমস্যা, বিশেষত কিডনি স্টোনের সমস্যায় সাহায্য করে জোয়ান। কিডনি স্টোন থেকে রিলিফ দিতে পারে জোয়ান। এর জন্য পেটে যে যন্ত্রণা হয় সেটিও কমাতে সাহায্য করে। আবার অনেক সময় পেটে অসহ্য গ্যাসের ব্যথা হয় তাতেও জোয়ান কার্যকরী।

হাঁটু ও কোমরের ব্যথায় কার্যকরী জোয়ান। জোয়ানের তেল ব্যথার জায়গাতে মালিশ করলে অনেকটা উপকার পাওয়া যায়।কানের ব্যথা ও দাঁতের ব্যথাতেও কার্যকরী জোয়ান। কানে ব্যথার জন্য একটু জোয়ানের তেল কানে দু থেকে তিন ফোঁটা দিলে উপকার পাওয়া যাবে। এছাড়াও দাঁতে ব্যথা হলে গরম জলে একটু জোয়ান আর একটু নুন দিয়ে গারগেল করলে ব্যথা কমে যাবে। এছাড়াও এটি ভালো মাউথ ওয়াশেরও কাজ করে। মুখের ভেতর পরিষ্কার রাখতে জোয়ান সাহায্য করে।

Loading...

মুখে ব্রনর যে লাল দাগ থাকে যেগুলি যেতেই চায় না। তা ধীরে ধীরে হালকা করে জোয়ান। জোয়ানের পেস্ট ওই জায়গাতে ১৫ থেকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। উপকার পাবেন। এছাড়াও জোয়ান ওজন নিয়ন্ত্রণ করতেও সাহায্য করে। অতিরিক্ত ওজনের কারণে হওয়া ওবেসিটিকেও নিয়ন্ত্রণ করে। সকালে খালি পেটে একটু গরম জলে জোয়ান ফুটিয়ে সেই জলটা খেলে কাজ হবে।

বাড়িতে খুব মশা? এই অতিরিক্ত মশা তাড়াতেও সাহায্য করবে জোয়ান। একটু জোয়ান এর সঙ্গে একটু সরষের তেল ভালো করে মিশিয়ে সেটি একটি কার্ডবোর্ডের ওপর রেখে বা একটু কার্ডবোর্ডের টুকরো ওই মিশ্রণে ভিজিয়ে ঘরের এক কোনে রেখে দিন বা বোর্ডটি ঝুলিয়ে দিন।

জোয়ান শরীর থেকে টক্সিন বার করে শরীরকে পরিষ্কার রাখে। রক্তকে পরিষ্কার করে এবং রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। যার ফলে শরীরের অনেক সমস্যা থেকেই মুক্তি পাওয়া যায়। এছাড়াও যারা অতিরিক্ত অ্যালকোহল নেন এবং ছাড়তে পারছেন না, তারা রোজ জোয়ান খান। তাদের এই অভ্যাস থেকে মুক্তি দিতেও জোয়ান সাহায্য করে। অতিরিক্ত অ্যালকোহলের জন্য পেটেও অনেক সময় ব্যথা হয়। সেই জন্য একচামচ জোয়ান গরম জলে ফুটিয়ে সেই জল খাওয়া যেতে পারে।

First published: 05:05:57 PM Aug 17, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर