মাদার টেরিজার রাজ্যে এত হিংসা কেন ? প্রশ্ন রাজ্যপালের

মাদার টেরিজার রাজ্যে এত হিংসা কেন ? প্রশ্ন রাজ্যপালের

মাদার হাউসে মাদার টেরিজার স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা জানান রাজ্যপাল। এর পাশাপাশি নিজের ক্ষোভও উগরে দিলেন তিনি।

  • Share this:

Somraj Banerjee

#কলকাতা: ফের রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে রাজ্যকে খোঁচা দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। নতুন বছরের দ্বিতীয় দিন পরিবার নিয়ে মাদার হাউস যান রাজ্যপাল। মাদার হাউসে মাদার টেরিজার স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা জানান রাজ্যপাল। এর পাশাপাশি নিজের ক্ষোভও উগরে দিলেন তিনি। বললেন "যে রাজ্যে মাদার টেরিজার মতো মানুষ থেকেছেন, সেখানে এত হিংসা কেন থাকবে, কেন এত অশান্তি থাকবে?"

বৃহস্পতিবার মিশনারিজ অফ চ্যারিটির সেবিকাদের সঙ্গে দেখা করেন রাজ্যপাল। মাদার হাউস সম্পর্কে সেবিকাদের থেকে মাদার টেরিজার বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে জেনে নেন। শুধুু তাই নয়, এদিন তিনি মাদার টেরিজার ঘরও পরিদর্শন করেন। মাদার টেরিজার স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। অংশগ্রহণ করেন মাদার হাউসের প্রার্থনা সভাতেও।

এদিন রাজ্যপাল মিশনারিজ অফ চ্যারিটি-কে ৫১ হাজার টাকা অনুদানও দেন। মাদার হাউস এর পর তিনি চলে যান ৩০০ মিটার দূরে শিশু ভবনেও। বেশ কিছুক্ষণ সময় কাটান শিশু ভবন এর অনাথ শিশুদের সঙ্গে। তাদের জন্য রাজ্যপাল এদিন কিছুু সামগ্রীও উপহার দেন। শিশুদের সঙ্গে গানে অংশ নেন রাজ্যপাল। মিশনারিজ অফ চারিটি কি কি কাজ করছে তাও এদিন জেনে নেন রাজ্যপাল। প্রায় এক ঘণ্টা এদিন মাদার হাউজে পরিবার নিয়ে ই সময় কাটান ধনখড়।

পরে অবশ্য রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে রাজ্যকে খোঁচাও দেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন যে রাজ্যে মাদার টেরিজা-র মতো মানুষ রয়েছেন সেখানে আজ এত হিংসা কেন ? পশ্চিমবঙ্গ মহামানবদের ভূমি, সারা বিশ্বকে পথ দেখিয়েছেন। সেখানে এই রাজ্যের সাম্প্রতিক অবস্থাা দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি এও বলেন নতুন বছরে মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে পুষ্পস্তবক ও মিষ্টি পাঠিয়েছেন। ২০২০-তে রাজ্যের উন্নয়নে মুখ্যমন্ত্রী ও তিনি একসঙ্গে কাজ করবেন বলেও জানান। শুধু তাই নয়, যা ঘটে গিয়েছে তা ব্যাগে করে ফেলে দেওয়ার কথা বলেন রাজ্যপাল।

First published: January 2, 2020, 7:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर