• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • WEST BENGAL STATE TRANSPORT DEPARTMENT SIGN MOU TO BUILD CNG STATIONS SMJ

Petrol- Diesel-এর দাম সেঞ্চুরির মুখে, রাজ্যে CNG  STATION-এর ভাবনা পরিবহণ দফতরের

CNG STATION  থেকে যেমন সরকারি বাস ও অন্যান্য যানবাহন  CNG  সংগ্রহ করতে পারবে, তেমনই শহরের নাগরিকরাও নিজেদের যানবাহনের জন্য জ্বালানি সংগ্রহ করতে পারবেন।

CNG STATION  থেকে যেমন সরকারি বাস ও অন্যান্য যানবাহন  CNG  সংগ্রহ করতে পারবে, তেমনই শহরের নাগরিকরাও নিজেদের যানবাহনের জন্য জ্বালানি সংগ্রহ করতে পারবেন।

  • Share this:
#কলকাতা: একদিকে দূষণের মাত্রা কমানোর লক্ষ্য। অন্যদিকে Petrol- Diesel এর দাম সেঞ্চুরি ছুঁই ছুঁই। তাই শুধু সরকারি নয়, সাধারণ মানুষকেও রেহাই দিতে বিকল্প ভাবনা রাজ্য পরিবহণ দপ্তরের। CNG সরবরাহকারী একটি কোম্পানির সঙ্গে MOU স্বাক্ষরিত হল রাজ্য পরিবহণ দপ্তরের।  কলকাতায় যে সমস্ত বাস ডিপো রয়েছে সেখানে  CNG  STATION  করার বিষয়েই MOU  স্বাক্ষরিত হয়েছে। MOU স্বাক্ষরিত হওয়ার পর পরই  কসবায় পরিবহন ভবনে CNG STATION-এর সূচনা করলেন পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। ছিলেন গ্যাস কোম্পানির  প্রতিনিধিরাও। এই ধরনের CNG STATION  থেকে যেমন সরকারি বাস ও অন্যান্য যানবাহন  CNG  সংগ্রহ করতে পারবে, তেমনই শহরের নাগরিকরাও নিজেদের যানবাহনের জন্য এখান থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন CNG। কলকাতা শহর , শহরতলি ও  রাজ্যজুড়ে ১৩০ টি সিএনজি স্টেশনের পরিকল্পনার কথা জানানো  হয় গ্যাস কোম্পানির তরফে। যেভাবে পেট্রোল-ডিজেলের দাম লাফিয়ে বাড়ছে  তাতে রীতিমতো উদ্বিগ্ন রাজ্য পরিবহন দপ্তর। সবুজ কলকাতার লক্ষ্যে একদিকে দূষণ নিয়ন্ত্রণ, আর অন্যদিকে সাশ্রয়ই উদ্দেশ্য। এই দুয়ের লক্ষ্যেই MOU - জানালেন পরিবহনমন্ত্রী। আপাতত দুর্গাপুর থেকে পরিবহনের মাধ্যমে সিএনজি স্টেশনগুলোতে গ্যাস এসে পৌঁছোবে। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে রাজ্যের সমস্ত সিএনজি স্টেশনের সঙ্গে যুক্ত হবে পাইপলাইন। ''পেট্রোল-ডিজেলের যেভাবে প্রতিদিন মূল্যবৃদ্ধি হচ্ছে তাতে আমরা শুধুমাত্র সরকারি যানবাহনই নয়, সাধারণ মানুষকেও বলব সিএনজি ব্যবহার বাড়াতে। কলকাতা শহরেই বেশ কয়েকটি সিএনজি স্টেশন করা হবে। হাতের কাছে সিএনজি পাওয়ায় অনেকেই উপকৃত হবে।'' বললেন  পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তিনি আরও বলেন, ''আমরা সরকারি যানবাহনে সিএনজি ও ইলেকট্রিক  ব্যবহার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের সরকারি সিএনজি গাড়ির সংখ্যা খুব একটা বেশি নয়। সমস্ত যানবাহন সিএনজিতে রূপান্তরিত করা বর্তমানে অনেক খরচসাপেক্ষ। তাই পঞ্জাব প্রযুক্তিগতভাবে Automobile- এ অনেক উন্নত। আমরা তাই সেখানকার বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে জানার চেষ্টা করছি। খরচ নাগালের মধ্যে রেখে আদৌ ডিজেল কিংবা পেট্রোলচালিত যানবাহনকে  CNG  তে  Convert করা  সম্ভব কিনা! এই ব্যাপারে শীঘ্রই পরিবহন দপ্তরের বিশেষ টিম পাঞ্জাবে গিয়ে সেখানকার বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করবে।পাশাপাশি আমাদের এমন অনেক বাস রয়েছে যেগুলি বর্তমানে ব্যবহারের অযোগ্য। বিভিন্ন ডিপোতে  পড়ে নষ্ট হচ্ছে। সেই সমস্ত বাসগুলোকেও সিএনজি চালিত করে পুনরুজ্জীবিত করা যায় কিনা তাও খতিয়ে দেখা হবে।''
Published by:Suman Majumder
First published: