West Bengal Lockdown: রাজ্যে বন্ধ গণ পরিবহণ ব্যবস্থা, অব্যাহত ক্যাব নিয়ে ধন্ধ

বিশেষ ক্ষেত্রে যোগাযোগের জন্যে চালু হেল্পলাইন নাম্বার

বিশেষ ক্ষেত্রে যোগাযোগের জন্যে চালু হেল্পলাইন নাম্বার

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যে বন্ধ গণ পরিবহণ ব্যবস্থা। কিন্তু একেবারে পরিবহণ বন্ধ থাকলে অসুবিধায় পড়বেন সাধারণ মানুষ। এই অবস্থায় জরুরি পরিষেবার জন্যে রাস্তায় অ্যাপ ক্যাব নামানো যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয়ে ক্যাব চালক সংগঠনগুলি। অনেকেই অবশ্য সকাল থেকে ক্যাব বুকিংয়ের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আইএনটিটিইউসি-র ট্যাক্সি সংগঠনের নেতা শম্ভুনাথ দে জানিয়েছেন ‘পরিস্থিতি বিবেচনা করে প্রশাসন যে নির্দেশ দেবে, আমরা সেটাই মানব। গত বছর শুরু থেকে সব বন্ধ থাকলেও শর্তসাপেক্ষে কিছু ছাড় দেওয়া হয়েছিল। দূরপাল্লার ট্রেনের বা বিমানের যাত্রীরা সফরের টিকিট দেখিয়ে যাতায়াতের অনুমতি পাচ্ছিলেন। এ বার এখনও কিছু জানতে পারিনি।’

প্রসঙ্গত এই বিষয়ে রাজ্য পরিবহণ দফতর কথা বলছে নবান্নের সাথে। অন্যদিকেসিটু-র পক্ষ থেকে করোনা রোগীদের জন্য আগেই বিশেষ পরিষেবা চালু করা হয়েছিল। সংগঠনের তরফে জানানো হচ্ছে, ৯০০৭৭৭৪১১৬, ৯৮৭৪৪০৪০৪০, ৮৯১০৯০১৩২৭ এবং ৯৭৪৮৪৬৩২৩৭ নম্বরে ফোন করে আগের মতোই পরিষেবা পাওয়া যাবে। চিকিৎসার প্রয়োজনে রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি তাঁদের পরিবারের জন্যও এই পরিষেবা দেওয়া হবে। এ ছাড়া, প্রতিষেধক বা চেক-আপের জন্য কাউকে নিয়ে যাওয়া, ওষুধ-অক্সিজেন নিয়ে আসা বা শেষকৃত্যে যোগ দিতে যাওয়ার মতো কাজেও তাদের অ্যাপ-ক্যাব মিলবে। সংগঠনের সভাপতি ইন্দ্রজিৎ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘আগের সমস্ত পরিষেবার পাশাপাশি এ বার নন-কোভিড পরিষেবাও চালু হয়েছে। আরও অনেক চালককে আমরা যুক্ত করছি।’

আইএনটিটিইউসি ঘনিষ্ঠ অ্যাপ-ক্যাব সংগঠন ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল অনলাইন ক্যাব অপারেটর্স গিল্ড’-এর সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন ফোনে ৮৯১০০৭৯২১২ এবং ৯৮০৪৪৫৮০৪৫ নাম্বারে খবর দিলে তাঁরাও জরুরি চেক-আপ এবং প্রতিষেধক নিতে যাওয়ার ক্ষেত্রে যাত্রীদের সাহায্য করবেন।  ইন্দ্রনীল ঘোষ জানিয়েছেন, ‘আমরা দু’টি হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছি। আগের লকডাউনেও পরিষেবা দিয়েছি। এ বারও অন্যথা হবে না।’ তবে শিয়ালদহ ও হাওড়া স্টেশনের বাইরে কিছু ক্যাব রয়েছে। তবে অনেকেই ক্যাব অনলাইনে বুক না করে ভাড়ায় যাচ্ছেন। ক্যাব সংগঠনগুলি চাইছে সরকার তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাক। তাহলে তাদের যাতায়াতের সুবিধা হবে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: