কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন

এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বুধবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Feb 22, 2017 09:12 AM IST
কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Feb 22, 2017 09:12 AM IST

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বুধবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

নিখরচার পরিষেবা শেষে মাসুলের কুস্তি

নিখরচার (ফ্রি) পরিষেবা শেষ হচ্ছে ৩১ মার্চ। কিন্তু তার পরের দিন (১ এপ্রিল) থেকেই মাসুলের ‘দঙ্গল’ শুরুর দামামা বাজিয়ে দিল রিলায়্যান্স জিও। উস্‌কে দিল এ দেশের টেলি পরিষেবা বাজারে ফের এক প্রস্ত উথাল-পাথালের সম্ভাবনাও। যার মধ্যে ‘ব্র্যান্ড বিমল’-এর হাত ধরে কাপড় ব্যবসায় ধীরুভাই অম্বানীর ‘বিধ্বংসী পরিবর্তন’ আনার ছায়া দেখছেন অনেকে।

দুই যুবাকে ঘিরেই উচ্ছ্বাস

Loading...

এই সেই আনন্দ ভবন। ওই দোতলার দখিনা বারান্দায় দাঁড়িয়ে বহু বার কর্মী-সমর্থকদের সম্বোধন করেছেন মোহনদাস কর্মচন্দ গাঁধী। দোতলায় ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক হতো যে ঘরটিতে, ঠিক তার পাশেই ইন্দিরার ঘর। একটা ছোট্ট বিছানা। মাথার কাছে রাখা রামকৃষ্ণ, সারদামণি ও আনন্দময়ীর ছবি।

হাফিজকে বিপজ্জনক মেনে বিপাকে আসিফ

ভিতর ভিতর আগুনটা জ্বলছিলই। তাতে ঘি ঢাললেন পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রী খাজা আসিফ। গৃহবন্দি হাফিজ সইদ যে পাকিস্তানের পক্ষেও বিপজ্জনক, সে কথা আন্তর্জাতিক আলোচনা সভায় স্বীকার করে নিয়েছিলেন আসিফ। আর হাফিজের বিরুদ্ধে এ ভাবে ‘প্রকাশ্যে মুখ খোলায়’ দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সমালোচনায় সরব হয়েছে পাকিস্তানের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। রাস্তায় নেমেছে হাফিজের সংগঠন জামাত-উদ দাওয়া-ও। আজ ইসলামাবাদ, করাচি, লাহৌর রাওয়ালপিন্ডি-সহ বিভিন্ন শহের তারা বিক্ষোভ দেখিয়েছে। পুড়েছে আসিফের কুশপুতুলও।

বাথরুমে পুড়ে মরলেন কঙ্কাল কাণ্ডের পার্থ

বছর দুয়েক আগে বাবা। এ বার ছেলে। ২০১৫-র ১০ জুন। রবিনসন স্ট্রিটের একটি বাড়ির শৌচাগার থেকে উদ্ধার হয়েছিল ৭৭ বছরের এক ব্যক্তির অগ্নিদগ্ধ দেহ। সেই বাড়িতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে, মৃত ব্যক্তির ছেলে তাঁর দিদির কঙ্কালের সঙ্গে মাসের পর মাস ওই বাড়িতে রয়েছেন। দিদির কঙ্কালকে খেতেও দিতেন ভাই— পার্থ দে। মঙ্গলবার খিদিরপুরের এক অভিজাত আবাসন থেকে রবিনসন স্ট্রিটের কঙ্কাল কাণ্ডে অভিযুক্ত সেই পার্থ দে (৪৬)-রই অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

bartaman_big11

ভারতের শক্তি বৃদ্ধিতে আশঙ্কা প্রকাশ চীনের

ভারতের অগ্রগতিতে গভীর উদ্বেগে চীন। একই রকেটে ১০৪টি উপগ্রহ সফলভাবে নিক্ষেপ করে গোট বিশ্বের মহাকাশবিদ্যাকে তাক লাগিয়ে দিলেও ভারতের এই চমকপ্রদ সাফল্যকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই দেখছে বেইজিং। সমীহও করতে শুরু করেছে। আগামীকাল চীন ও ভারতের মধ্যে দীর্ঘদিন পর বহু প্রতীক্ষিত উচ্চপর্যায়ের বিদেশসচিব স্তরের বৈঠক শুরু হচ্ছে। আর সেই বৈঠকের প্রাক্কালে চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যম  (গ্লোবাল টাইমস) আজ সরাসরি জানিয়েছে ভারত ক্রমেই মহাকাশ প্রযুক্তি ও গবেষণায় বড়সড় ‘থ্রেট’ হয়ে উঠছে। ভারতীয় বিজ্ঞানীদের ভূয়সী প্রশংসা করে বলা হয়েছে, এত কম ব্যয়ে এই বিরাট সাফল্য অর্জন করে ভারত বিশ্বের অন্যতম প্রথম সারির মহাকাশ প্রযুক্তির শক্তি হিসাবে জায়গা করে নিয়েছে। এটা চীনের কাছে চিন্তার। কারণ চীন বিপুল অর্থ খরচ করে মহাকাশ বিজ্ঞানের পিছনে। সেই তুলনায় সাফল্য মোটেই আশাব্যঞ্জক নয়। এর আগেই একবারের প্রয়াসেই ভারত মঙ্গল অভিযান করেছে মঙ্গলযান পাঠিয়ে। অথচ চীন ২০১২ সালে ব্যর্থ হয়েছে। সুতরাং সামগ্রিকভাবে ভারত অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। চীনকে এখন থেকেই এই ব্যাপারে সাবধান হতে হবে। আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া ভারতের বিদেশসচিব এস জয়শংকরের চীন সফরে একঝাঁক ইস্যু নিয়ে আলোচনা হবে এবং সেই আলোচনায় যে যথেষ্ট কূটনৈতিক টানাপোড়েনও হতে চলেছে তা নিয়ে সন্দেহ

গোটা বিশ্বে অস্ত্র কেনায় শীর্ষে ভারত

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি অস্ত্রের খরিদ্দার এখন ভারত। এই পরিমাণ চীন ও পাকিস্তানের থেকেও বেশি। এমনটাই দাবি করেছে সুইডেনের স্টকহোমের এক সংস্থা। স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট নামে ওই সংস্থা বলছে, ২০১২ থেকে ২০১৬-র মধ্যে গোটা বিশ্বে যত অস্ত্র রপ্তানি হয়েছে, তার ১৩ শতাংশ আমদানি করেছে ভারতই। পরিমাণটা অন্য সব দেশের থেকে বেশি। চীন এখন আমদানি কমিয়ে চেষ্টা করছে, দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি অস্ত্র বেশি করে ব্যবহার করার। তাদের লক্ষ্য পাকিস্তানের মতো দেশগুলির বাজার ধরা। অস্ত্র বিক্রির ক্ষেত্রে ইসলামাবাদও এখন চাইছে আমেরিকার উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে চীন-রাশিয়ার জন্য দরজা খুলে দিতে। কিন্তু ভারত এখনও অস্ত্র তৈরির প্রযুক্তির জন্য রাশিয়া, আমেরিকা, ইউরোপ, ইজরায়েল ও দক্ষিণ কোরিয়ার ওপর নির্ভরশীল রয়ে গিয়েছে।

গায়ে আগুন দিয়ে আত্মঘাতী কঙ্কাল-কাণ্ডের সেই পার্থ দে

বাবার মতোই বাথরুমে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মঘাতী হলেন রবিনসন স্ট্রিটের কঙ্কাল-কাণ্ডের সেই পার্থ দে। প্রাথমিক তদন্তের পর লালবাজারের হোমিসাইড শাখার গোয়েন্দারা নিশ্চিত, আত্মঘাতী হয়েছেন পার্থ। এমনটাই জানিয়েছেন কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা প্রধান বিশাল গর্গ। কিন্তু কেন? সেটাই রহস্যের। ঘটনাস্থল থেকে কোনও সুইসাইড নোট মেলেনি। তবে প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে পার্থর জীবনের শেষ কয়েক প্রহরের ইতিবৃত্ত জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা। গোয়েন্দা বিভাগের এক সূত্রের কথায়, অন্যদিনের মতো কেয়ারটেকার প্রদীপ সরকার সকাল ৯টা নাগাদ ১৫ নম্বর ওয়াটগঞ্জ স্ট্রিটের মার্লিন রিভারভিউ আবাসনের ওয়েব টাওয়ারের বারোতলায় পার্থর ভাড়ার ফ্ল্যাটে আসেন। পার্থ তাঁকে জানান, পেটের গোলমাল চলছে। আজ আর যাদবপুরে কম্পিউটার শেখাতে যাবেন না। ২৭ নম্বর যাদবপুর ইস্ট রোডে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানে পিছিয়ে পড়া ছাত্রছাত্রীদের কম্পিউটার শেখাতেন তিনি। এরপর পার্থ তাঁকে বলেন, একটি পেন ড্রাইভ ওই সেন্টারে পৌঁছে দিতে। সাড়ে ৯টা প্রদীপবাবু পেন ড্রাইভ নিয়ে ফ্ল্যাটের সদর দরজা টেনে দিয়ে বেরিয়ে যান।

ফেসবুকে সেলফি নয়, ফতোয়া সিপিএমের

‘সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ছবি তুলে পোস্ট করে আত্মপ্রচার কমিউনিস্টদের শোভা পায় না। এটি বাঞ্ছনীয়ও নয়। কারও কারও এরকম ব্যক্তিগত অভ্যাস থাকতেই পারে। কিন্তু তা ঠিক নয়। দলের সবার কাছেই এই বার্তা স্পষ্ট হওয়া উচিত।’ মঙ্গলবার সরাসরি এ কথা বললেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। ঋতব্রত-কাণ্ড থেকে তাঁর দল যে শিক্ষা নিচ্ছে, স্বয়ং সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যেই এদিন তা পরিষ্কার হয়ে গেল। রাজ্যসভার এমপি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের আচরণে উদ্বিগ্ন সিপিএম দলের সর্বস্তরে এই বার্তাই পৌঁছে দিতে চলেছে। অর্থাৎ এভাবে মুখে বার্তা দেওয়ার কথা বললেও ভবিষ্যতে এ সংক্রান্ত যাবতীয় বিতর্ক এড়িয়ে যাওয়ার জন্য কার্যত ফতোয়াই জারি হয়ে যাচ্ছে।

ei samay

বিল নিয়ে আজ বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী

বছর খানেক আগের ঘটনা ৷ চিকিৎসক বাবা অমলেন্দুবিকাশ দাসকে স্ট্রোকের সমস্যা নিয়ে দক্ষিণ কলকাতার একটি নামী নিউরো স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছিলেন চিকিৎসক পুত্র-কন্যা ৷

মোট্রো-যজ্ঞ হাওড়া স্টেশনের নীচেই, সুড়ঙ্গ সরগরম

ধীর অথচ মসৃণগতিতে অমৃতসর মেল তখন ঝুকছিল হাওড়া স্টেশনে ৷ আমরা তখন রেল লাইনের ঠিক ১২০ ফুট নীচে এক সুড়ঙ্গে দাঁড়িয়ে ৷ উপরে ট্রেনের ঝমঝম শব্দ ৷ সুড়ঙ্গেও ক্রমশ জোর হচ্ছে একটা ট্রেনের আওয়াজ ৷

গীতাঞ্জলি হাতে কাটিয়ে দিত ঘণ্টার পর ঘণ্টা

অসংখ্য মানিক রোগীর চিকিৎসা করেছি ৷ করছিও ৷ অনেকে দীর্ঘ দিন হাসপাতালে  ভর্তিও থাকেন  কিন্তু পার্থ দে-র মতো এত মিষ্টি স্বভাবের সরল সাদাসিধে মানুষ খুব একটা দেখেছি বলে মনে পড়ে না ৷

কন্যাশ্রীতে ভর করে আজ মাধ্যমিক

টাকার অভাবে স্কুল যাওয়া বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছিলেন শ্রাবণী মাইতি ৷ কারণ সামান্য মুদিখানা চালিয়ে বড় মেয়ের পড়ার খরচ টানতে পারেননি সুনীল মাইতি ৷ একই খাতে  হয়তো বইত ছোট মেয়ে লাবণির ভবিষ্যতও ৷ কিন্তু ‘কন্যাশ্রী’র দৌলতে সিনেমার মতো পাল্টে গেল ছবিটা ৷

First published: 09:12:51 AM Feb 22, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर