পুজোর মাসের প্রথম রবিবারেও নেই সেই চেনা ছবি....ধূ ধূ করছে শপিং মল

পুজোর মাসের প্রথম রবিবারেও নেই সেই চেনা ছবি....ধূ ধূ করছে শপিং মল
এই বছর ক্রেতা অবশ্যই কম, তবে আগের মত জিনিস দেখে বাড়ি ফেরার মতো লোকের প্রবণতাও কম। যাঁরা আসছেন, তাঁরা কিনছেন ।

এই বছর ক্রেতা অবশ্যই কম, তবে আগের মত জিনিস দেখে বাড়ি ফেরার মতো লোকের প্রবণতাও কম। যাঁরা আসছেন, তাঁরা কিনছেন ।

  • Share this:

Susovan Bhattacharjee

#কলকাতা: দুর্গাপূজার দুই সপ্তাহ আগে শপিংয়ে থাকত শুধুই মাথার ভিড়। বিভিন্ন শপিং মল থেকে নামী বাজারেও স্বস্তি মিলত না ক্রেতাদের। রবিবার বাজার যেন বলে দিল ঠিক উল্টো ছবি। করোনা পরিস্থিতি সামলে অনেকেই যাচ্ছেন না শপিংয়ে। রবিবার কলকাতার নামি শপিং মলে একই অবস্থা। বিকালে হাতে গোনা কয়েকজনকে দেখা গেল শপিং মলে। যদিও এই শপিং মলে জেনারেল ম্যানেজার কে বিজায়ন জানান, এই বছর ক্রেতা অবশ্যই কম, তবে আগের মত জিনিস দেখে বাড়ি ফেরার মতো লোকের প্রবণতাও কম। যাঁরা এলেন তাঁদের মধ্যে বেশিরভাগ পছন্দের তালিকায় রাখলেন মাস্ক। এতদিন সবচেয়ে পছন্দের পাজামা, পাঞ্জাবি বা জামাটা তুলে রাখা হতো পুজোর স্পেশ্যাল দিনের জন্য। এই বছর সেই প্লানিং বদলে বিভিন্ন ডিজাইনের মাস্ক কিনতে বা দেখতে ব্যাস্ত তরুণ-তরুণীরা।

 ঋতভরী দত্ত অনেকদিন পরে পুজোর শপিং শুরু করলেও মাস্ক দেখে কিনতে চান এই বছরের পোশাক। বিভিন্ন মাস্ক কেনার পরিকল্পনা থেকেই জানালেন, এই বছর সেজে কোন লাভ নেই, মুখটাই তো দেখা যাবে না। সু্বর্ণ সাহা বললেন মাস্ক তো নিলাম,  ম্যাচিং করে সবাইকে টেক্কা দিতেই হবে। অনেকে তো আবার মাস্ক ম্যাচিং করে কিনছেন ষষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত।  সুকান্ত সাহা জানালেন, রোজই বদলাবে মাস্ক, সকালের মাস্ক থাকবে না বিকালে। অনেকের এত পরিকল্পনা থাকলেও ক্রেতার অভাবে মন খারাপ বিক্রেতাদের।


Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর