কোনও প্রশ্নই পাচার হয়নি পরীক্ষা শুরুর আগে, যোগসূত্র মিলেছিল এভাবেই

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Feb 19, 2019 07:29 PM IST
কোনও প্রশ্নই পাচার হয়নি পরীক্ষা শুরুর আগে, যোগসূত্র মিলেছিল এভাবেই
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Feb 19, 2019 07:29 PM IST

#কলকাতা: মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র পাচারের তদন্তে নেমে ছ’জনকে গ্রেফতার করল সিআইডি। ধৃতদের মধ্যে চারজন মাধ্যমিক ও দু’জন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। পাচারকাণ্ডে বেশ কয়েকটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপেরও হদিশ মিলেছে। আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের সতর্ক থাকতে বলেছেন তদন্তকারীরা।

- মাধ্যমিকের প্রশ্ন পাচার

- পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপে প্রশ্ন

- তদন্তে নেমে একের পর এক গ্রেফতারি সিআইডির

- পুলিশ সুপার ও জেলাশাসকদের সতর্ক থাকতে পরামর্শ

Loading...

প্রথম ভাষা, দ্বিতীয় ভাষা, ইতিহাস এবং ভুগোল। সবশেষে অঙ্কও। মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপে পাচার হয়ে যাচ্ছে প্রশ্নপত্র। এ বছর প্রথম থেকেই কড়া নজরদারির ব্যবস্থা করেছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের মোবাইল আনা একেবারেই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এত কড়াকড়ি সত্ত্বেও, পরপর পাঁচটি পরীক্ষার ক্ষেত্রেই শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যে প্রশ্নপত্র বাইরে চলে গিয়েছে। তদন্তে নেমে প্রথমেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপগুলি খতিয়ে দেখে সিআইডি। সেই সূত্রেই ধরা পড়ে একের পর এক অভিযুক্ত।

- ধৃত মালদহের ইংরেজবাজারের খাসকোল হাইস্কুলের এক মেধাবী ছাত্র

- ইংরেজবাজারের শান্তাদেব্যা হাইস্কুলে সিট পড়েছিল তার

- কালিয়াচকের নূর নগরের এক মাধ্যমিক ছাত্রকে গ্রেফতার করা হয়

- কালিয়াচকের বেদরাবাদ হাইস্কুলে পরীক্ষা চলাকালীন তাকে গ্রেফতার করে সিআইডি

- ধৃত কালিয়াচক ও হুগলির পান্ডুয়ার ২ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

- তারা পূর্ব বর্ধমানের মেমারির মামুন ন্যাশনাল স্কুলের পড়ুয়া

- মেমারির চৌমাথার একটি লজ থেকে তাদের গ্রেফতার করে সিআইডি

- ধৃত মামুন ন্যাশনাল স্কুলেরই ২ উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

- সাহাবুল আমির ও সাহবাজ মণ্ডলকে স্কুল হস্টেল থেকে গ্রেফতার করা হয়

সোমবার পরীক্ষা শুরুর আগেই, ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক করে সিআইডি। মালদহ, জলপাইগুড়ি, উত্তর চব্বিশ পরগনা ও নদিয়ায় বাড়তি সতর্কতা নিতে বলেছেন তদন্তকারীরা।

সিআইডি সূত্রে অবশ্য খবর, কোনও প্রশ্নই পরীক্ষা শুরুর আগে ফাঁস হয়নি। পরীক্ষা শুরুর পর প্রশ্নপত্র হাতে পেয়ে তা পাচার করেছে পরীক্ষার্থীরা। উত্তর জানতেই হোয়াটসঅ্যাপে গ্রুপ তৈরি করে পাচার করা হয়েছে প্রশ্ন। তদন্তে নেমে সেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপগুলিই এখন পাখির চোখ সিআইডি।

First published: 07:29:23 PM Feb 19, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर