আজকের খবরের কাগজের সেরা খবর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 09, 2017 10:07 AM IST
আজকের খবরের কাগজের সেরা খবর
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 09, 2017 10:07 AM IST

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ রবিবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

১) তিস্তা নয়, জল দেব তোর্সার, প্রস্তাব মমতার

ভারত ও বাংলাদেশে চলতি সরকারের মেয়াদ কালেই তিস্তার জলবণ্টন চুক্তি সম্পাদন হবে বলে আজ দুপুরে আশা প্রকাশ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। আর তার পরেই মধ্যাহ্নভোজের আসরে এবং রাতে শেখ হাসিনার সঙ্গে একান্ত বৈঠকে তিস্তা নিয়ে জটিলতা কাটাতে বিকল্প প্রস্তাব দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে তিনি বলেন, ‘‘আপনার তো জল দরকার। তোর্সা ও আরও যে দু’টি নদী উত্তরবঙ্গ থেকে বাংলাদেশে গিয়েছে, তার জলের ভাগ ঠিক করতে দু’দেশ কমিটি গড়ুক। শুকনো তিস্তার জল দেওয়াটা সত্যিই সমস্যার।’’তিস্তার জল দিতে না-পারার বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশের মানুষ যাতে ভুল না-বোঝেন, সে জন্য পশ্চিমবঙ্গ থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ পাঠানোর প্রস্তাবও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, ১০০০ মেগাওয়াট পর্যন্ত বিদ্যুৎ বাংলাদেশকে দিতে পারে পশ্চিমবঙ্গ। বিদ্যুৎ নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই প্রস্তাব শুনে সন্তোষ প্রকাশ করে নরেন্দ্র মোদী তখনই বলেন, ‘‘সরকারি ভাবে এই প্রস্তাব দিন, আমি দেখছি কী করা যায়।’’ এর পরে রাজ্যের অফিসারদের সঙ্গে কথা বলে এ দিন রাতেই সরকারি ভাবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই প্রস্তাব জানিয়ে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

২) ট্রেন এল, আঁচলের খুঁট দিয়ে চোখ মুছলেন বৃদ্ধা

এখনও ‘দ্যাশের’ কথা ভোলেননি ওঁরা। মাটির কথা, নদীর কথা, দিগন্তের বিস্তার— এখনও ওঁদের স্বপ্নে। দেশ ছেড়ে শেষ বার অনেকে এসেছিলেন বাবা-মায়ের হাত ধরে, ট্রেনে চেপেই। তখন কয়লার ইঞ্জিন। ধোঁয়া ছাড়তে ছাড়তে ট্রেন ছুটত। সেই ট্রেনই ফের ছুটবে জেনে উত্তেজনার প্রহর গুনছিলেন ওঁরা। শনিবার বেলা দেড়টা নাগাদ কানে এল ট্রেনের হুইসল। এ পারের ইঞ্জিন টেনে আনল ও পারের বগি। পরীক্ষামূলক ভাবে চলল যাত্রিবাহী খুলনা-কলকাতা মৈত্রী এক্সপ্রেস-২। এ দিন সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ এ দেশ থেকে একটি ইঞ্জিন যায় বেনাপোলে। সেখানে খুলনা থেকে আসা ও দেশের ছ’টি কামরা অপেক্ষায় ছিল। এ দেশের ইঞ্জিন গিয়ে জোড়ে সেগুলির সঙ্গে। বেলা ১টা ৩২ মিনিট নাগাদ পেট্রাপোল স্টেশনে ঢোকে ট্রেন। ফুল দিয়ে সাজানো। সামনে প্রধানমন্ত্রী হাসিনা-মোদী, মাঝে বঙ্গবন্ধুর ছবি।

৩) সন্ত্রাস নিয়ে পাক মনোভাবের নিন্দা

কাছে টানলেন বাংলাদেশকে। জানিয়ে দিলেন, সন্ত্রাস দমনে ঢাকার ভূমিকায় তিনি আশ্বস্ত। আবার একই সঙ্গে খোঁচা দিলেন পাকিস্তানকে। নাম নিলেন না। কিন্তু সন্ত্রাসে মদতের অভিযোগ তুলে প্রচ্ছন্ন আক্রমণের মুখ ঘুরিয়ে দিলেন পশ্চিম সীমান্তের প্রতিবেশীর দিকেই। সুকৌশলে দু’টো তাসই আজ খেললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মুক্তিযুদ্ধে নিহত সেনাদের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন অনুষ্ঠানে আজ নয়াদিল্লিতে মোদীর সঙ্গে মঞ্চে তখন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই মঞ্চ থেকেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘‘দক্ষিণ এশিয়ায় এমন এক মানসিকতা আছে, যা সন্ত্রাসবাদে মদত দেয়। যে মানসিকতা বাধা দেয় গোটা এলাকার উন্নয়নে। ভারত ও বাংলাদেশ— দুই দেশকেই এর শিকার হতে হয়েছে।’’

৪) ডার্বির আগেই শিলিগুড়িতে শুরু হয়ে গেল তাল ঠোকাঠুকি

জোড়া ইলিশ নিয়ে স্টেডিয়ামের লাউঞ্জে তাঁর সঙ্গে সেলফি তোলার সময় ট্রেভর জেমস মর্গ্যান হাসি মুখ করে প্রশ্ন করছিলেন, ‘‘দিস ইজ হিলসা ফিশ? গুড ফিশ?’’

ঠিক তখনই কয়েক ফুট দূরে মোহনবাগান ড্রেসিংরুম থেকে ভিডিও ক্লিপিংস পাঠানো হচ্ছিল লাল-হলুদ কোচের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে। ম্যাচ কমিশনার রবিশঙ্করের কাছে। ডার্বির আগে শনিবার সকালের শেষ প্রস্তুতিতে নির্ধারিত সময়ের বত্রিশ মিনিট আগে দলবল নিয়ে মাঠে নেমে পড়েছিলেন মর্গ্যান। তা নিয়েই অভিযোগ। অভিযোগ সত্যি প্রমাণ হলে, কুড়ি থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা হবে ইস্টবেঙ্গলের। সেটা নিয়ে সবুজ-মেরুন শিবির এমন উচ্ছ্বসিত যে, মনে হচ্ছিল ডার্বির ফলটা তাদের দিকেই গিয়েছে।

bartaman_big11

১) তিস্তা চুক্তি করবই, ঘোষণা মোদির

নরেন্দ্র মোদির একটি ঘোষণায় তিস্তা চুক্তি বস্তুত তিস্তা রহস্যে পরিণত হয়ে গেল। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী মোদি আজ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে ঘোষণা করেছেন যে, তাঁর ও হাসিনার সরকারের সময়কালের মধ্যে তিস্তা চুক্তি সম্পন্ন হবেই। অর্থাৎ আর এক বছরের মধ্যেই। কারণ বাংলাদেশে আগামী বছর নির্বাচন। এই ঘোষণার ঠিক আগেই মোদির মন্তব্যটি আরও তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি বলেছেন, আমার বিশ্বাস আমি যতটা বাংলাদেশকে ভালবাসি, নিশ্চয়ই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাংলাদেশের প্রতি উষ্ণতা ততটাই গভীর। তাই আশা করি, খুব দ্রুত আমরা তিস্তার জট কাটিয়ে সমাধানের পথ পেয়ে যাব। পরক্ষণেই হাসিনা বললেন, তিস্তা নিয়ে আশা করি একটা সমাধানের পথে আমরা যাব।

২)ফের গোল্ড লোন সংস্থায় ডাকাতি, গুলি মহিলাকে

শনিবার সকালে খড়দহ থানার অরুণাচল এলাকায় স্বর্ণ ঋণদানকারী একটি সংস্থার অফিসে ভয়াবহ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। দুষ্কৃতীরা গ্রাহক সেজে সংস্থার অফিসে ঢোকে। এরপর আগ্নেয়াস্ত্র উঁচিয়ে নিরাপত্তারক্ষী থেকে সাধারণ কর্মী সকলকে মারধর করে নগদ কয়েক হাজার টাকা এবং কয়েক ভরি সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দেয়। শর্বরী ঘোষ নামে এক মহিলা গ্রাহক সংস্থার অফিসে ঢুকে দুষ্কৃতীদের তাণ্ডব দেখে চিৎকার জুড়ে দেন। পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখে দুষ্কৃতীরা বন্দুকের বাঁট দিয়ে ওই মহিলার মাথায় মারে।

৩) খুলনার ট্রেন পেট্রাপোল ছুঁতেই দুই দেশ ভাসল আবেগে

ঐতিহাসিক পথ বেয়ে যাত্রীবাহী ট্রেন ঘিরে দুই বাংলার আবেগ জমাট বাঁধছিল কয়েকদিন ধরেই। কিন্তু, সেই আবেগ যে এমন উন্মাদনার চেহারা নেবে, তা টের পাননি রেলকর্তারাও! শনিবার দিল্লি থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুলনা-কলকাতা ট্রেনের পরীক্ষামূলক চলাচলের সূচনা করেন। ট্রেনটি যখন পেট্রাপোল সীমান্তে ঢোকে, সেই সময় আশপাশের বাড়িতে কোনও লোক ছিল না। ভিড় আছড়ে পড়েছিল পেট্রাপোল স্টেশনে। কারও হাতে শঙ্খ, তো কারও হাতে ফুল। স্টেশন চত্বরে আবেগের এই বহিঃপ্রকাশ সামাল দিতে হিমশিম খান নিরাপত্তা বিভাগের কর্মীরাও। শঙ্খ বাজতে শুরু করে। ট্রেনের দিকে ফুল ছুঁড়ে দিতে থাকে জনতা।

৪)কলকাতা থেকে খুলনা হয়ে ঢাকা যাওয়ার বাস চালু হল

ঢাকা-কলকাতা বাস সার্ভিস আগেই চালু হয়েছে। এবার কলকাতা-খুলনা-ঢাকা যাত্রীবাহী বাস পরিষেবা চালু হল। শনিবার বেলা সওয়া একটা নাগাদ রাজ্য সরকারের সদর দপ্তর নবান্ন থেকে ওই বাস পরিষেবা চালু হয়। দিল্লি থেকে সুইচ টিপে সেই বাসযাত্রার সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্ধারিত সময়ের ৪৫ মিনিট পরে দিল্লি থেকে রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে এই যাত্রীবাহী বাস পরিষেবার উদ্বোধন করা হয়। নবান্নের উত্তর গেটের সামনে বড় পরদায় সরাসরি তা দেখা মাত্র পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, পরিবহণ সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় সবুজ পতাকা নেড়ে বাস যাত্রার সূচনা করেন। দু’টি বাস কলকাতা থেকে রওনা দেয়। বাস দু’টি পেট্রাপোল-বেনাপোল-যশোর-খুলনা হয়ে ঢাকা পৌঁছাবে।

First published: 10:06:53 AM Apr 09, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर