বিপজ্জনকভাবে ঝুলছে কার্নিশ, হেলে পড়েছে বাড়ি, আজও ফের বউবাজারে ধসল বাড়ি

হেলে পড়েছে , বড়সড় ফাটল ধরা পড়েছে বেশ কয়েকটি বাড়িতে। যে কোনও সময় ভেঙে পড়ার আশঙ্কায় বাড়িগুলি তড়িঘড়ি খালি করে দেওয়া হয়েছে। কবে হোটেল থেকে বাড়ি ফিরবেন বাসিন্দারা। বাড়ছে দুশ্চিন্তা।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 02, 2019 08:22 PM IST
বিপজ্জনকভাবে ঝুলছে কার্নিশ, হেলে পড়েছে বাড়ি, আজও ফের বউবাজারে ধসল বাড়ি
বউবাজার
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 02, 2019 08:22 PM IST

#কলকাতা: ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজের জেরে মাথার ছাদ হারাল অসংখ্য পরিবার। আজও বৌবাজারের স্যাকরাপাড়া লেনে ভেঙে পড়ে একটি বাড়ির একাংশ। হেলে পড়েছে , বড়সড় ফাটল ধরা পড়েছে বেশ কয়েকটি বাড়িতে। যে কোনও সময় ভেঙে পড়ার আশঙ্কায় বাড়িগুলি তড়িঘড়ি খালি করে দেওয়া হয়েছে। কবে হোটেল থেকে বাড়ি ফিরবেন বাসিন্দারা। বাড়ছে দুশ্চিন্তা।

আতঙ্কের প্রহর গুনছে স্যাকরাপাড়া। সোমবার সকালে এলাকার একটি বাড়ির একাংশ হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। কয়েকটি বাড়ির কারনিস, ঝুল বারান্দা বিপজ্জনক ভাবে ঝুলছে। যে কোনও সময় ঘটে যেতে পারে বড় কোনও দুর্ঘটনা। আর ঝুঁকি নেয়নি পুলিশ-প্রশাসন। তড়িঘড়ি বিপজ্জনক বাড়ির বাসিন্দাদের অন্যত্র সরানো হয়েছে।

ধর্মতলা থেকে এসএন ব্যানার্জি রোড, জানবাজার, সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার, বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিট, কোলে মার্কেট হয়ে শিয়ালদহ স্টেশনে। এই রুটে দুটো বোরিং মেশিন দিয়ে টানেল খোঁড়ার কাজ চলাকালীন কম্পন অনুভুূত হয়। কম্পনের জেরেই ভেঙে পড়ে পুরোন বাড়ি। টানেল বোরিং মেশিনের ব্যবহারে কী হচ্ছে মাটির তলায়-

রাস্তা থেকে সুড়ঙ্গ মাটির ১৪ মিটার নীচে। এই ১৪ মিটারের মধ্যে আছে একাধিক স্তর। সুড়ঙ্গের উপরে মাটিরস্তর থাকছে। তার উপর থাকছে বালিরস্তর। বালিরস্তরের উপরে তৈরি হয় পিচ রাস্তা। যার উপর দিয়ে গাড়ি চলাচল করছে। রয়েছে একাধিক বাড়িও। মাটির তলায় আছে ওয়াটার পকেট অর্থাৎ জলস্তর। বোরিংয়ের কাজের সময় সেই জল উঠতে থাকে। তা সিমেন্ট ও রাসায়নিক দিয়ে আটকানো হয়। কিন্তু শনিবার সেই জল আটকানো যায়নি। হু হু করে জল ঢুকতে থাকে সুড়ঙ্গে।

নতুন করে বৃষ্টি হলে মাটির নীচে জলের তারতম্য হবে। সেক্ষেত্রে ফের মাটি আলগা হতে শুরু করবে। মাটির স্তর আলগা হওয়ার ফলে কোন কোন বাড়িতে চিড় ধরেছে খতিয়ে দেখা হচ্ছে । কোনও জায়গায় কম্পন অনুভূত হলে, বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যেতে বলা হয়েছে। কেন ফাটল? কেনই বা টানেলে ঢুকছে জল? পরীক্ষার জন্য ভিন রাজ্য থেকে বিশেষজ্ঞদের আনা হচ্ছে। মাটি পরীক্ষার জন্য সাহায্য নেওয়া হচ্ছে ভূতত্ববিদদের।

First published: 08:22:10 PM Sep 02, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर