বিজেপির ইশতেহার বিশ্বাস করলেই ঠকতে হবে, অন্য রাজ্যের দিকে আঙুল তৃণমূলের

বিজেপির ইশতেহার বিশ্বাস করলেই ঠকতে হবে, অন্য রাজ্যের দিকে আঙুল তৃণমূলের

ইশতেহার না 'জুমলা'?

মহিলাদের জন্য চাকরিতে সংরক্ষণ থেকে শুরু করে কৃষক-তফসিলি জাতি-উপজাতি সকলেরই জন্য নানা জনমুখী প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিজেপি।

  • Share this:

    #কলকাতা: আগেই দলীয় ইশতেহার প্রকাশ করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার ইশতেহারে চমক ছিল দুয়ারে রেশন প্রকল্প। শনিবার নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করে বামেরা। সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের শিক্ষার প্রতিফলন চোখে পড়েছে বামেদের ইশতেহারে। কিন্তু বিজেপির ইশতেহারে একেবারেই চমকে ভরা। মহিলাদের জন্য চাকরিতে সংরক্ষণ থেকে শুরু করে কৃষক-তফসিলি জাতি-উপজাতি সকলেরই জন্য নানা জনমুখী প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিজেপি। আর বিজেপির সেই ইশতেহারকেই 'জুমলা' বলে কটাক্ষ করেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। তাঁর কথায়, 'বাংলার জন্য় একজন গুজরাতি ইশতেহার পড়ছেন। বাঙালি নেতারা বসে রয়েছেন। গোটা বক্তৃতাই তিনি করলেন হিন্দিতে। এতেই বোঝা যাচ্ছে তাঁরা কতটা সোনার বাংলা গড়তে চান।'

    সৌগতর সাফ কথা, 'বানিয়ে কথা বলছে বিজেপি। অন্নপূর্ণা ক্যান্টিনের ঘোষণা তো তৃণমূলের অনুকরণ। অন্নপূর্ণা ক্যান্টিনের ঘোষণা তো হাস্যকর। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের মা প্রকল্প তো চলছেই। আসলে বিজেপির সব বক্তব্যই জুমলা।' এবারের নির্বাচন জিততে মরিয়া অমিত শাহরা মহিলাদের জন্য ঢালাও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তাতে মহিলাদের জন্য যেমন ৩৩% সংরক্ষণের কথা বলা হয়েছে, তেমনি গণপরিবহণে মহিলাদের বিনামূল্যে যাত্রার মতো চমকে দেওয়ার মতো ঘোষণাও রয়েছে।

    আর মহিলাদের জন্য বিজেপির সেই প্রতিশ্রুতির প্রেক্ষিতে তৃণমূলের তরফে সৌগত বলেন, 'বিজেপি মহিলাদের কতটা ক্ষমতায়ন চায়, তা বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলি দেখলেই বোঝা যায়। ওরা মহিলাদের ক্ষমতা নয়, বরং মহিলাদের নীচে নামাতে চায়।'

    তফশিলি জাতি ও উপজাতি শ্রেণি ও পিছিয়ে পড়া শ্রেণির মানুষদের জন্যও একাধিক প্রতিশ্রুতি রয়েছে ইশতেহারে। ইতিমধ্য়েই অমিত শাহ বলেছেন রাজ্যে ক্ষমতায় এলেই সপ্তম বেতন কমিশন চালু হবে। ইশতেহারে উল্লেখ রয়েছে সে কথাও। ইশতেহারে বাংলার উন্নয়নের বিষয়টি নজর দেওয়া হয়েছে বলে বিজেপির দাবি। আর সেই বিষয়টিকে হাতিয়ার করে পালটা কটাক্ষের রাস্তায় হাঁটল তৃণমূল।

    Published by:Suman Biswas
    First published: