• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TMC MINISTER JYOTIPRIO MALLIK LEFT SMART PHONE STARTED USING KEYPAD PHONE IN PROTEST OF PEGASUS AKD

Jyotiprio Mallik| Pegasus| স্মার্টফোন বিসর্জন মন্ত্রী, পেগাসাসে ক্ষুব্ধ বনমন্ত্রী ফিরলেন ফেলে আসা কি প্যাড ফোনে 

স্মার্টফোন দূরে সরিয়ে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক কাছে টানলেন সিডিএমএ ফোন।

Jyotiprio Mallik| Pegasus| আপাতত সাদা আর কালো দুই রঙের সিডিএমএ ফোন কিনলেন বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

  • Share this:

#কলকাতা: সাধের স্মার্ট ফোন ছেড়ে এবার সাধারণ ফোনে ফিরলেন রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। মন্ত্রীত্বের পাশাপাশি জেলা সংগঠন সামলানো। দুটো কাজ করতেই তার দখলে ছিল পাঁচ-পাঁচটি স্মার্ট ফোন। কিন্তু পেগাসাস জুজু আর দিদির নির্দেশ দুইয়ের মাঝে পড়েই বদলে গেল সাধের স্মার্ট ফোন ব্যবহার৷ আপাতত সাদা আর কালো দুই রঙের সিডিএমএ ফোন কিনলেন বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তবে এখনও বেশ কিছুদিন তিনি ব্যবহার করবেন একটি স্মার্টফোন। কারণ সেই স্মার্ট ফোনের ফেসটাইম অ্যাপ এখনও ব্যবহার করতে চান তিনি।

পেগাসাস ইস্যুর পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী ও দলের নেতাদের সাবধান করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে নজর রাখতে বলেছেন। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী তার স্মার্ট ফোনের ব্যাক ক্যামেরা ঢেকেছেন সেলোটেপ দিয়ে৷  ২১ জুলাইয়ের ভার্চুয়াল মঞ্চ থেকে তিনি তা দেখিয়েছেন। পেগাসাস হানা দিতে পারে স্মার্ট ফোনের মাধ্যমেই। তাই সাবধানবাণী শুনিয়ে রেখেছেন তিনি। এমনকি রাজ্য মন্ত্রীসভার বৈঠকেও তিনি মন্ত্রীদের ফোন নিয়ে সাবধান করে দিয়েছেন। এই অবস্থায় স্মার্ট ফোন ছেড়ে কিপ্যাড দেওয়া সাধারণ ফোনেই আস্থা রাখলেন হাবড়ার বিধায়ক।

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, "এই ছোট ফোন ব্যবহারে আমার সমস্যা হবে না। দফতরের আধিকারিক বা দলের কারও সঙ্গে কথা বলা দরকার হলে ফোন করে ডেকে নেব বা চলে যাব। স্মার্ট ফোন থাকলে হোয়াটসঅ্যাপ প্রচন্ড ব্যবহার করতাম। এখন সেই অভ্যাস ছেড়ে দেব।" মঙ্গলবার থেকেই স্মার্টফোনকে দূরে সরিয়ে রাখছেন মন্ত্রী৷ কথা বলার জন্যে ফোন করে ডেকে নিচ্ছেন। তিনি জানিয়েছেন, "গোপন কথা বা কনফিডেনসিয়াল কথা থাকতেই পারে৷ সেই কথার জন্যে ফোনের ওপর আর নির্ভর করে থাকব না। যাকে যা বলার হবে তা মুখোমুখি বসে বলব।" তবে তিনি মানছেন, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার সুবিধা ছিল। কারণ কোনও নোটিশ থাকলে তা একেবারে গ্রুপ মারফত দেওয়া হত। সবাই দেখে নিতে পারত। এবার অবশ্য আলাদা আলাদা চিঠি দিয়ে পাঠাবেন। মন্ত্রীর কথায়, ভালোই হল, চিঠি লেখার অভ্যাস বজয় থাকবে।

Published by:Arka Deb
First published: