Partha on Srabanti : "রূপ দেখো, ভোট দাও", শ্রাবন্তীকে পার্থর কটাক্ষ

Partha on Srabanti : "রূপ দেখো, ভোট দাও", শ্রাবন্তীকে পার্থর কটাক্ষ

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ও পার্থ চট্টোপাধ্যায় বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের যুযুধান দুই দলের প্রার্থী ৷ দু'জনেই নিজেদের কেন্দ্রের বুথগুলিতে এদিন ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া ঘুরে দেখেন ৷

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ও পার্থ চট্টোপাধ্যায় বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের যুযুধান দুই দলের প্রার্থী ৷ দু'জনেই নিজেদের কেন্দ্রের বুথগুলিতে এদিন ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া ঘুরে দেখেন ৷

  • Share this:

    কলকাতা : বিজেপির বেহালা পশ্চিমের বিজেপি প্রার্থী তথা অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়কে তীব্র কটাক্ষ করলেন প্রতিপক্ষ হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা তথা বিদায়ী শিক্ষামন্ত্রী, পার্থ চট্টোপাধ্যায় । ভোটের দিন শ্রাবন্তীর বুথ পরিদর্শনে বেরোনো নিয়ে কটাক্ষ করে পার্থ বলেন, "রূপ দেখ, ভোট দাও আমায়৷" এদিন সকাল সকাল ভোট দেন বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী ৷

    শনিবার সকালবেলা নাকতলার বাড়ি থেকে বেরিয়ে সামনের উদয়ন সঙ্ঘের বুথে ভোট দেন পার্থ। তার পরে একটি মন্দিরে প্রণাম সেরে নিজের কেন্দ্রে ঢুকে একের পর এক বুথে ঘোরেন তিনি। পরে দুপুরে তাঁকে দেখা যায় রাস্তার ধারের যাত্রী প্রতীক্ষালয়ে চেয়ার-টেবিল পেতে দুপুরের খাবার খেতে। খানকতক লুচি আর তরকারি দিয়ে মধ্যাহ্নভোজন সারতে সারতে পার্থ বলেন, "ভোটে জয় নিয়ে ভাবছি না। মার্জিন কত বাড়বে, সেটাই প্রশ্ন।"

    শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ও পার্থ চট্টোপাধ্যায় বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের যুযুধান দুই দলের প্রার্থী ৷ দু'জনেই নিজেদের কেন্দ্রের বুথগুলিতে এদিন ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া ঘুরে দেখেন ৷ দুপুরে সাংবাদিক বৈঠকে আত্মবিশ্বাসী পার্থ শ্রাবন্তীকে কটাক্ষ করে বললেন, "রূপ দেখো, ভোট দাও আমায়! কোনওদিন বেরোল না, আজকে বেরোল ৷ আসলে মিডিয়ার একটা অংশ তো চায় ছবি হোক ৷ কিন্তু আজকেই ছবি হয়ে গেছে !" শ্রাবন্তীকে পার্থর পরামর্শ, "মন দিয়ে টালিগঞ্জের কাজটা করুক, সেটাই ভাল৷"

    প্রসঙ্গত, ভোটের দিন দুপুরে উত্তেজনা ছড়ায় শকুন্তলা পার্ক এলাকার একটি স্কুলে। বিজেপি প্রার্থীর অভিযোগ, সেখানে চার মতুয়া ভোটারকে আঙুলে কালি লাগানোর পরে বুথ থেকে বের করে দেওয়া হয়। তাঁদের ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। সেই খবর পাওয়ার পরে শ্রাবন্তী তাঁদের বাড়িতে যান। ওই ভোটারদের সঙ্গে করে ভোট কেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে গিয়ে ফের ঝামেলা বাধে। তবে শেষ পর্যন্ত তাঁরা ভোট দিতে পারেন। পরে সেই ঘটনা নিজে সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেন শ্রাবন্তী।

    এই ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় প্রবীণ তৃণমূল নেতা বলেন, "খুব চিনেছে মতুয়াদের! চিরকাল মতুয়াদের জন্য লড়াই করলাম আমরা৷ মতুয়াদের পাশে দাঁড়ালাম ৷ আজকে বড় বড় কথা বলছে!" তবে সবমিলিয়ে এদিন মোটের ওপর শান্তিপূর্ণ ভোট হয় বেহালায়।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: