• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন

কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন

এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বৃহস্পতিবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বৃহস্পতিবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বৃহস্পতিবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বৃহস্পতিবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

    anandabazar11

    আজ নতুন কী হল, দাদা কালো টাকার কারবারিদের চমকে দিতে চেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সমালোচকেরা বলছেন, বাস্তবে ঢের বেশি চমকেছেন তিনি নিজেই। ডিমনিটাইজেশনের ধাক্কা যে সরকারকে এত দিক থেকে সামলাতে হবে, সেটা সম্ভবত আঁচ করতে পারেননি তিনি। প্রথমত, রবি চাষ শুরু ও বিয়ের মরসুমে যে নগদ টাকা লাগবে, সেটা মাথায় রাখেননি কেন্দ্রের কর্তারা। এটাও হয়তো বোঝেননি যে, কালো টাকার কারবারিরা নতুন নিয়মের ফাঁকফোকর খুঁজে নেওয়ার চেষ্টা করবেন। ফলে অবস্থা সামলাতে জারি করতে হয়েছে নিত্যনতুন নির্দেশিকা। আর তার ঠেলায় জেরবার গোটা দেশ, বিশেষ করে গরিবরা। অর্থনীতিবিদদের একাংশের প্রশ্ন, এখনও যাঁরা ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থার বাইরে, এর পর তাঁরা ব্যাঙ্কে টাকা রাখতে ভরসা পাবেন তো? চিন্তায় ঘরের লোকই নোটের চোট অর্থনীতিকে ঘায়েল করবে বলে ইতিমধ্যেই মুখ খুলেছেন একাধিক নামজাদা অর্থনীতিবিদ। এ বার হুঁশিয়ারি এল খোদ সরকারের ঘর থেকে! বুধবার কেন্দ্রের মুখ্য আর্থিক উপদেষ্টা অরবিন্দ সুব্রহ্মণ্যন জানালেন, নোট বাতিলের জেরে চলতি আর্থিক বছরের শেষ ছ’মাস (অক্টোবর-মার্চ) বৃদ্ধির হার কী দাঁড়াবে তা যথেষ্ট অনিশ্চিত। সুব্রহ্মণ্যন ছ’মাস অনিশ্চয়তার কথা বললেও তার পরেই অর্থনীতি পুরোপুরি ছন্দে ফিরবে এমন কথা বুক ঠুকে বলতে পারছেন না অনেকেই। দেশভক্তি বাড়াতে সিনেমার আগে জনগণমন নাগরিকদের মধ্যে জাতীয়তাবাদ এবং দেশভক্তি ছড়িয়ে দিতে সমস্ত সিনেমা হল এবং মাল্টিপ্লেক্সে ছবি শুরুর আগে জাতীয় সঙ্গীত বাজানোর নিদান দিল সর্বোচ্চ আদালত। বুধবার সু্প্রিম কোর্টে জাতীয় সঙ্গীত বিষয়ক একটি জনস্বার্থ মামলার সূত্রে বিচারপতি দীপক মিশ্র এবং বিচারপতি অমিতাভ রায়ের বেঞ্চ বলেছে, ‘‘জাতীয় সঙ্গীত এবং জাতীয় পতাকার প্রতি সম্মান দেখালে মাতৃভূমির প্রতি ভালবাসা এবং শ্রদ্ধা দেখানো হয়।’’ তাই প্রেক্ষাগৃহে যখন জাতীয় সঙ্গীত বাজবে, পর্দায় দেখানো হবে জাতীয় পতাকার ছবি। সেই সময় দর্শকদের উঠে দাঁড়ানো বাধ্যতামূলক। এ ভাবেই ‘দেশপ্রেম এবং জাতীয়তাবাদের প্রতি দায়বদ্ধতা দেশবাসীর মধ্যে চারিয়ে দেওয়া’ যাবে বলে মনে করেছে সুপ্রিম কোর্ট। মাস পয়লায় নগদ তুলতে দুর্ভোগ বাড়বে দিল্লির চিত্তরঞ্জন পার্কের শিপ্রা মিত্রর মাথায় হাত। বাড়ির দুই পরিচারিকা জানিয়ে দিয়েছে, মাইনেটা নগদে দিতে হবে। দু’জনেরই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকায় শিপ্রাদেবী বলেছিলেন চেক দিয়ে দেবেন। জবাব এসেছে— ‘‘তা হলে চেক ভাঙাতে এক দিন ছুটিও দিতে হবে বৌদি!’’ বাধ্য হয়ে শিপ্রাদেবী নিজেই ব্যাঙ্কে লাইন দেবেন বলে ঠিক করেছেন।

    bartaman_big11

    বেতন তুলতে ব্যাংকে পর্যাপ্ত নোট, আশ্বাস কেন্দ্রের নজিরবিহীন! ভারতীয় সেনার সবথেকে আধুনিক ও কার্যকর এয়ারক্র্যাফট ১৩০ জে সুপার হারকিউলিস এবং সি ১৭ গ্লোবমাস্টার দেশজুড়ে উড়তে শুরু করেছে কোটি কোটি টাকার নতুন ৫০০ এবং ২০০০ টাকার নোটের বান্ডিল নিয়ে। যাতে ১২৭ কোটি জনসংখ্যার ভারতের প্রত্যন্ত এলাকার ব্যাংক ও এটিএমে আগামীকালের মধ্যেই প্রচুর নগদ টাকা ঢুকে পড়ে। যুদ্ধকালীন তৎপরতার কারণ একটাই, এসে গিয়েছে মাস পয়লার বেতনের সময়। সরকারি বেসরকারি ক্ষেত্রে মাস পয়লার বেতন শুরু হওয়ার পর ব্যাংক ও এটিএমগুলিতে যাতে টাকার জন্য হাহাকার চুড়ান্ত পর্যায়ে না পৌঁছায়, তা নিশ্চিত করতেই রিজার্ভ ব্যাংককে কড়া নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই কারণেই আজ থেকে ঝাঁপিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। রাজ্যে রাজ্যে শহরে শহরে সামরিক বিমান ভর্তি করে নোট সরবরাহ করা হচ্ছে এরকম পরিস্থিতি সাম্প্রতিককালে কখনও হয়নি। গতকাল গভীর রাত পর্যন্ত রিজার্ভ ব্যাংক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। আজই রিজার্ভ ব্যাংক সিদ্ধান্ত নিয়েছে সমস্ত ব্যাংক ও এটিএমে এতদিন ধরে যে টাকা সাপ্লাই করা হচ্ছিল তার ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ বেশি হারে জোগান বাড়ানো হবে। এতদিন ছাপানো সত্ত্বেও ইচ্ছা করেই জরুরি পরিস্থিতির জন্য রিজার্ভ করে রাখা ৫০০ টাকার নোট আজ সন্ধ্যা থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের ব্যাংক ও এটিএমে সরবরাহ করা হচ্ছে। কারণ আপাতত সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ আপৎকাল হল বেতনের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন কোটি কোটি ভারতবাসী। লালুর সমর্থন নিয়েই নীতীশকে গদ্দার বলে কটাক্ষ মমতার নোট বিভ্রাট সংক্রান্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিরোধী আন্দোলনের বর্তমান ‘মুখ’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাটনায় সভা করতে এসে বদলে দিয়ে গেলেন বিহারের চলতি রাজনৈতিক সমীকরণও। নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বুধবার পাটনার গরদানিবাগে দলের আহুত সভায় তৃণমূল নেত্রী পেলেন রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি) প্রধান লালুপ্রসাদ যাদব ও তাঁর কর্মী-সমর্থকদের তুমুল সমর্থন ও সাহচর্য। জনতার ভিড় উপচে পড়া সভাস্থলে দাঁড়িয়ে বরাবর লালুপ্রসাদ ও রাবড়িদেবীর পাশে থাকার প্রতিশ্রুতির সঙ্গেই নাম না করে ‘গদ্দার’ আখ্যা দিয়ে গেলেন নীতীশ কুমারকে। আশ্চর্যের হলেও সত্যি, তৃণমূলনেত্রীর এহেন বাক্যবানে সবচেয়ে বেশি করতালি আর উল্লাস কিন্তু প্রকাশ পেয়েছে উপস্থিত কয়েক হাজার আরজেডি সমর্থকের তরফ থেকেই। উদ্বেলিত হ্যারিকেন মার্কার পতাকা আর লালুজি আর মমতা দিদি জিন্দাবাদ ধ্বনিতে মুখরিত গোটা সভাস্থল। উচ্ছ্বাস দেখা যাচ্ছিল নীতীশের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে নেওয়া পাপ্পু যাদবের নতুন দল জন অধিকার পার্টির কর্মী-সমর্থকদের মধ্যেও। উল্লাস ছিল মমতার নতুন বন্ধু মুলায়ম আর অখিলেশের সমাজবাদী পার্টির পক্ষে হাজির থাকা লোকজনেরও। সপা’র গোটা বিহার শাখাই যেন উঠে এসেছিল এদিনের সভায়। পাচারকাণ্ডে ধৃত শিশুবিশেষজ্ঞ জেলা ও শহরের বিভিন্ন শিশু হাসপাতালে শিশু চিকিৎসক নিত্যানন্দ বিশ্বাস প্রথমে আলাপ জমাতেন বাচ্চার চিকিৎসা করাতে আসা মা-বাবাদের সঙ্গে।  কৌশলে জেনে নিতেন তাঁদের সন্তান কী অসুখে ভুগছে। এরপর ব্যক্তিগত চেম্বারে আসার জন্য পরামর্শ দিতেন। সেখানে কোনও বাবা-মা বাচ্চাকে নিয়ে এলে বিভিন্ন অজুহাত খাড়া করে বলতেন, বাচ্চার অপারেশন দরকার। তা না হলে এই রোগ সারবে না। আর অপারেশন থিয়েটারে ঢোকানোর পরই শুরু হত তাঁর খেলা। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন শিশু হাসপাতালের ডাক্তারদের মোটা টাকার টোপও দিতেন। যাতে তাঁরা তাঁর কাছে বাচ্চা পাঠান। এমনকী রোগী সেজে ঢুকে নিত্যানন্দবাবু একটি নার্সিংহোম থেকে শিশু চুরি পর্যন্ত করেছিলেন। এহেন চিকিৎসককেই বুধবার পর্ণশ্রী থেকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি। তাঁর সঙ্গে ধৃত হাতুড়ে তপন বিশ্বাসের যোগাযোগের সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ হাতে এসেছে। গ্রেপ্তার হয়েছেন দিলীপ ঘোষ নামে আর এক ডাক্তারও। যিনি আবার সল্টলেকের বিজেপি নেতাও। কলেজ স্ট্রিটের শ্রীকৃষ্ণ নার্সিংহোমে থাকাকালীন দত্তক দেওয়ার নাম করে তিনি একাধিক শিশু বিক্রি করে দিয়েছেন বলে অফিসারদের দাবি। মাঝ আকাশে বিমানের চক্কর, ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী এবার বিমান বিভ্রাটে ভুগলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল (এটিসি) থেকে জরুরি অবতরণের অনুমতি না মেলায় বুধবার সন্ধ্যায় প্রায় আধ ঘণ্টা মাঝ আকাশে ঘুরপাক খেতে হল মুখ্যমন্ত্রীর বিমানকে। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে থাকা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, কম জ্বালানি নিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ মাঝ আকাশে এই চক্কর নিয়ে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী। বিষয়টি সম্পর্কে দিল্লিতেও খবর গিয়েছে। পাশাপাশি, তিনি এও শঙ্কাপ্রকাশ করেন, নোট বাতিলের প্রতিবাদ করায় মুখ্যমন্ত্রীকে কি ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে? স্বাভাবিকভাবেই পুরমন্ত্রীর এই আশঙ্কার জেরে রাজনৈতিক বিতর্ক শুরু হয়েছে। বিমানবন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে, পাটনা থেকে রাজনৈতিক কর্মসূচি সেরে ৬টা ৪৫ মিনিটে কলকাতার উদ্দেশ্যে ইন্ডিগো সংস্থার উড়ানে রওনা দেন মুখ্যমন্ত্রী। কলকাতার কাছাকাছি আসার পর ওই উড়ানের চালকের নজরে আসে তাঁর বিমানে জ্বালানির পরিমাণ যথেষ্ট নয়।

    ei samay

    মাস পয়লায় মাথায় বাজ নোট বাতিল ঘোষণার পর তিন সপ্তাহ কেটে গিয়েছে ৷ বুধবার থেকে নবেম্বর মাসের বেতন, পেনশন ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়া শুরু হয়েছে ৷ কিন্তু নিজের উপার্জনের টাকা তুলতে কালঘাম ছুটছে সাধারণ মানুষের ৷ শিশুপাচার চক্রে সিআইডির জালে আরও দুই চিকিৎসক দু’জন আগেই ধরা পড়েছেন ৷ সদ্যোজাত শিশুপাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বুধবার সিআইডির জালে ধরা পড়লেন আও দুই চিকিৎসক ৷ তবে এখানেই শেষ নয় ৷ তদন্তের জাল যত ছড়াচ্ছে, ততই সদ্যোজাত বিক্রিতে আরও চিকিৎসকের যোগের সম্ভাবনা জোরালো হচ্ছে ৷ স্বার্থসিদ্ধিতে সব দলে সুসম্পর্ক ছিল ‘হাওয়া মোরগ’ দিলীপের যে দল ক্ষমতায়, তখনই সে দলে তিনি ৷ এ ভাবেই গত ১৫ বছরে তিনটি দলের সদস্যপদ নিয়েছেন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ দিলীপ ঘোষ ৷ বুধবার শিশু পাচারচক্রে জড়িত থাকার অভিযোগে যাঁকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি ৷ সোহনে আসতেন কোন ডাক্তার, ধন্দে গোয়েন্দারা প্রসবের ঝক্কি একা হাতেই সামলাত কোয়াক ডাক্তার তপন বিশ্বাস ৷ কিন্তু সিজার বা জটিল প্রসব হলে ডেকে আনত প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে ৷ সাধারণত এ কে দাস নামের একজন চিকিৎসকই রাতের দিকে এসে সিজার করে যেতেন বাদুড়িয়ার সোহন নার্সিংহোমে ৷

    First published: