• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ফেব্রুয়ারিতেই চাকরি হারাতে চলেছেন হাজারেরও বেশি শিক্ষক শিক্ষিকা, প্রতিবাদে আমরণ অনশনের ডাক

ফেব্রুয়ারিতেই চাকরি হারাতে চলেছেন হাজারেরও বেশি শিক্ষক শিক্ষিকা, প্রতিবাদে আমরণ অনশনের ডাক

বিতর্কের জেরে অবশেষে পুলিশ ভেরিফিকেশন ও মেডিকেল টেস্ট দেওয়া এই অংশগুলি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে উচ্চ শিক্ষা দফতরের তরফে। উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রের খবর, প্রত্যাহারের বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে ফাইলও পাঠানো হয়েছে। File Picture

বিতর্কের জেরে অবশেষে পুলিশ ভেরিফিকেশন ও মেডিকেল টেস্ট দেওয়া এই অংশগুলি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে উচ্চ শিক্ষা দফতরের তরফে। উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রের খবর, প্রত্যাহারের বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে ফাইলও পাঠানো হয়েছে। File Picture

ফেব্রুয়ারিতেই চাকরি হারাতে চলেছেন হাজারেরও বেশি শিক্ষক শিক্ষিকা, প্রতিবাদে আমরণ অনশনের ডাক

  • Share this:

     #কলকাতা: আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে চুক্তির মেয়াদ ৷ একইসঙ্গে শেষ হচ্ছে রাজ্যের চুক্তিভিত্তিক কম্পিউটার শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদও । কিন্তু এখনও সংস্থার তরফে চুক্তি পুনর্নবীকরণের কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ ৷ স্থায়ীকরণের দাবিতে বাঁকুড়ায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে মিছিল শিক্ষকদের, শুরু আমরণ অনশন ।

    বেসরকারি একটি সংস্থার মাধ্যমে রাজ্যের সাড়ে ছ’হাজার স্কুলে চুক্তির ভিত্তিতে নিযুক্ত হন প্রায় হাজার খানেক কম্পিউটার শিক্ষক ৷ মেয়াদ শেষে আশঙ্কায় স্থায়ীকরনের দাবিতে সোমবার বাঁকুড়া শহরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আমরণ অনশন শুরু করল কম্পিউটার শিক্ষকরা ।

    এদিন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় এক হাজার কম্পিউটার শিক্ষক জড়ো হন বাঁকুড়া শহরে । শহরের কলেজ মোড় এলাকায় জমা হয়ে চাকরির স্থায়িত্বের দাবিতে তাঁরা গলায় দড়ির ফাঁস লাগিয়ে প্রতিবাদ মিছিল শুরু করেন । পরে বাঁকুড়ার মাচানতলায় গিয়ে শিক্ষক শিক্ষিকারা আমরণ অনশনে বসেন ।

    আন্দোলনরত শিক্ষক শিক্ষিকাদের দাবি, গত পাঁচ বছর ধরে অল্প বেতনের বিনিময়ে বেসরকারি সংস্থার হয়ে তাঁরা বিভিন্ন স্কুলে কম্পিউটার শিক্ষকতার কাজ করে আসছেন । শিক্ষাদান ছাড়াও স্কুলের কন্যাশ্রী , শিক্ষাশ্রী , সবুজসাথী প্রকল্পের যাবতীয় কাজ করানো হয়েছে তাদের দিয়ে কিন্তু সম্প্রতি ওই শিক্ষকদের চুক্তি নবীকরণ করেনি বেসরকারি ওই সংস্থা । এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার এই শিক্ষক শিক্ষিকাদের স্থায়ীকরনের ব্যবস্থা না নিলে প্রত্যেককে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে হবে বলে দাবি আন্দোলনকারীদের ।

    First published: