ফেসবুকে 'টুম্পা সোনা' শেয়ার করলেন সূর্যকান্ত মিশ্র! ভাইরাল গান নিয়ে দু' ভাগ বাম সমর্থকরা

ফেসবুকে 'টুম্পা সোনা' শেয়ার করলেন সূর্যকান্ত মিশ্র! ভাইরাল গান নিয়ে দু' ভাগ বাম সমর্থকরা
সূর্যকান্ত মিশ্র

সূর্যকান্ত মিশ্র নিজে এই ভিডিও শেয়ার করায় ফেসবুকেও সাধারণ মানুষের মধ্যেও মিশ্র প্রতিক্রিয়াই দেখা গিয়েছে৷

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজ্যের প্রবীণ সিপিএম নেতারা তরুণদের জায়গা ছাড়ছে না৷ শুধু সিপিএম কেন সামগ্রিক ভাবে এই অভিযোগ বাম নেতৃত্বের বিরুদ্ধেও বার বার উঠেছে৷ কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তৃণমূল, বিজেপি-র সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নিজেদের প্রচার কৌশলও যথাসম্ভব সময়োপযোগী করে তোলার চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছেন বাম ছাত্র-যুবরা৷ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি বাম-কংগ্রেসের ব্রিগেডে সমাবেশের প্রচারে তাই টুম্পা সোনা গানের ব্যবহারেও পিছপা নন বাম নেতৃত্ব৷

    টুম্পা সোনার মতো চটুল অথচ জনপ্রিয় গান ব্যবহার করে বামেদের ব্রিগেডের প্রচার দেখে চমকে গিয়েছেন অনেকেই৷ কিন্তু অনেকের মনেই প্রশ্ন ছিল সিপিএমের মতো কড়া অনুশাসন মেনে চলা দলে এই গানের ব্যবহার প্রবীণ বা সিনিয়র নেতারা মেনে নেবেন কি না৷ সেই সম্ভাবনা দূর করে দিয়ে সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র নিজের ফেসবুক পেজে বামেদের ব্রিগেডের সমর্থনে তৈরি টুম্পা সোনা গানের প্যারোডি শেয়ার করলেন৷ বুঝিয়ে দিলেন, টুম্পা সোনা গানের এই প্যারোডিতে পূর্ণ সমর্থন রয়েছে সিপিএম নেতৃত্বেরও৷ আরও স্পষ্ট করে বললে, সময়ের দাবি মেনেই দলের কড়া অনুশাসন বজায় রেখে প্রচার কৌশল নিয়ে নিজেদের মনোভাব বদলে ফেলছেন সিপিএম নেতারাও৷

    সূর্যকান্ত মিশ্র নিজে এই ভিডিও শেয়ার করায় ফেসবুকেও সাধারণ মানুষের মধ্যেও মিশ্র প্রতিক্রিয়াই দেখা গিয়েছে৷ অনেকেই মনে করছেন, সময়ের দাবি মেনে সহজ ভাষায় মানুষের দাবি তুলে ধরার জন্য এমন প্যারোডি গান তৈরি করলে কোনও ক্ষতি নেই৷ আবার কারও কারও মতে, 'টুম্পা সোনার' মতো গানকে প্রচারের হাতিয়ার করা বামেদের সংস্কৃতির সঙ্গে খাপ খায় না৷


    সূর্যকান্ত মিশ্রের এই পোস্টে জবাব দিতে গিয়ে একজন লিখেছেন, 'প‍্যারোডি হিসেবে গানটা চলতে পারে।কিন্তু সূর্যবাবুর ছবি সহ কমউনিস্ট পার্টির সাথে এ গান জড়াবেন না।গত বেশ কয়েক বছর মানুষের রুচি একেবারে নিম্নগামী।আর নাহয় নাই হল।' কারও অভিযোগ, 'এটা বাম সংস্কৃতির মধ্যে পড়ে না৷' আবার এই গানের সমর্থনেও সরব হয়েছেন বহু ফেসবুক ব্যবহারকারী৷ তাঁদের মধ্যে একজনের যুক্তি, 'টিভিতে বসে নেতাদের মিথ্যা ফুলের ঝুড়ি শোনার চেয়ে জীবনমুখী প্যারোডি গান সে টুম্পা হোক আর ময়না হোক সেটাই শ্রুতিমধুর। অন্তত সত্যি বলার সাহস রাখে৷ যে গানটি লিখেছে তাকে ধন্যবাদ।'

    সিপিএমের অন্দরের খবর, দলের তরফে এই গান তৈরি করা হয়নি৷ দলের কোনও সমর্থকের উদ্যোগেই গান তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়া হয়েছে৷ কিন্তু দলের রাজ্য সম্পাদক নিজে সেই গান ফেসবুকে শেয়ার করে বুঝিয়ে দিলেন, মানুষকে ব্রিগেডমুখী করতে টুম্পা সোনা গানেও আপত্তি নেই তাঁদের৷ এককথায় বললে, ব্রিগেডের সমর্থনে টুম্পা সোনার ব্যবহার চূড়ান্ত হিট৷ কারণ ইতিমধ্যেই তা ফেসবুকে ভাইরাল৷ তৃণমূল-বিজেপি সমর্থকরা যদি খেলা হবে স্লোগানে মজে থাকেন, তাহলে তার পাল্টা পেয়ে গেলেন বাম সমর্থকরাও৷ কারণ টুম্পাকে নিয়ে ব্রিগেড যাওয়ার প্যারোডি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: