corona virus btn
corona virus btn
Loading

৩০ ঘণ্টা ঘেরাও থাকার পর মুখ খুললেন প্রেসিডেন্সি উপাচার্য

৩০ ঘণ্টা ঘেরাও থাকার পর মুখ খুললেন প্রেসিডেন্সি উপাচার্য
প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়

৩০ ঘন্টা পর বুধবার সন্ধ্যায় মুখ খুললেন উপাচার্য। এদিন সন্ধ্যা ছটা নাগাদ নিজের ঘর ছেড়ে বেরিয়ে পড়ুয়াদের সঙ্গে বারান্দায় কথা বলেন তিনি। খুব অল্প সময়ে, মাপা কিছু কথা বলে ফের ঢুকে যান নিজের ঘরে।

  • Share this:

#কলকাতা: ৩০ ঘন্টা ঘেরাও থাকার পর মুখ খুললেন প্রেসিডেন্সি উপাচার্য। সোমবার থেকে একাধিক দাবি-দাওয়া নিয়ে প্রেসিডেন্সি  পড়ুয়ারা ঘেরাও করেছিলেন তাদের উপাচার্যকে। সোমবার দিনভর ঘেরাও থাকার পর কোনওমতে বের হতে পারলেও। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে এগারোটা থেকে কার্যত নিজের ঘরে বন্দি প্রেসিডেন্সি উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া।

৩০ ঘন্টা পর বুধবার সন্ধ্যায় মুখ খুললেন উপাচার্য। এদিন সন্ধ্যা ছটা নাগাদ নিজের ঘর ছেড়ে বেরিয়ে পড়ুয়াদের সঙ্গে বারান্দায় কথা বলেন তিনি। খুব অল্প সময়ে, মাপা কিছু কথা বলে ফের ঢুকে যান নিজের ঘরে।

কী বললেন তিনি, তা জানালেন খোদ পড়ুয়ারাই৷ প্রেসিডেন্সি পড়ুয়া আত্মজিৎ মুখোপাধ্যায়ের কথায়, ‘ তোমরা আন্দোলন করোনা। ঘেরাও তুলে নাও। এতে তোমাদেরভালো হবে, বিশ্ববিদ্যালয়েরও ভালো হবে।’ উপাচার্যের এই বার্তায় অবশ্য চিঁড়ে ভিজছে না। হিন্দু হোস্টেলের ৩,৪ ও ৫নম্বর ওয়ার্ড পড়ুয়াদের হাতে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি নিয়ে আন্দোলন শুরু হলেও। এর সঙ্গে ছিল আরও ৬টি দাবি।

বুধবার সন্ধ্যায় মিটিংয়ের পর  পড়ুয়ারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে,হিন্দু হোস্টেলের পুরনো কর্মীদের ফিরিয়ে নেওয়া এবং উপাচার্যের ক্ষমা চাওয়া। এই দাবি দুটি পূরণ হলেই আপাতত ঘেরাও আন্দোলন তুলে নেবেন তাঁরা। তাই উপাচার্যের বার্তার পরেও আন্দোলনে অনড় ছাত্ররা।

মঙ্গলবার পালা করে রাত জেগেছে প্রেসিডেন্সি পড়ুয়ারা। উপাচার্যের ঘরের দুদিকের দরজাতে অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হয়েছে তাঁরা। বুধবার ফের রাত জাগতে তৈরি প্রেসিডেন্সি। ৩০ ঘন্টা আটকে থাকার পর কিছুটা অসুস্থ বোধ করেন উপাচার্য।

Published by: file 18 user
First published: February 6, 2020, 8:36 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर