• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বামেদের ধর্মঘটে জায়গায় জায়গায় বিক্ষোভ, শিয়ালদহের সব শাখায় রেল পরিষেবা ব্যহত

বামেদের ধর্মঘটে জায়গায় জায়গায় বিক্ষোভ, শিয়ালদহের সব শাখায় রেল পরিষেবা ব্যহত

ভোগান্তি এড়িয়ে সময় মতো অফিস পৌঁছনোই আপাতত চ্যালেঞ্জ সরকারি কর্মীদের। সরকারি-বেসরকারি বাসই ভরসা আজ বহু মানুষের।

ভোগান্তি এড়িয়ে সময় মতো অফিস পৌঁছনোই আপাতত চ্যালেঞ্জ সরকারি কর্মীদের। সরকারি-বেসরকারি বাসই ভরসা আজ বহু মানুষের।

ভোগান্তি এড়িয়ে সময় মতো অফিস পৌঁছনোই আপাতত চ্যালেঞ্জ সরকারি কর্মীদের। সরকারি-বেসরকারি বাসই ভরসা আজ বহু মানুষের।

  • Share this:

    #কলকাতা: বাম ট্রেড ইউনিয়নগুলির ডাকা ধর্মঘটের প্রভাব পড়ল গণ পরিবহণে। সকাল থেকেই শিয়ালদবের বিভিন্ন শাখায় রেল চলাচল ব্যহত হচ্ছে। ইতিমধ্যেই শ্যামনগরে অবরোধে শামিল ধর্মঘটীরা। চূচুড়া স্টেশনে শুরু হয়েছে অবরোধ। ডায়মন্ডহারবার-লক্ষ্মীকান্তপুরে রেল যোগাযোগে বাধা দেওয়া হয়েছে। মধ্যগ্রাম স্টেশনে বচসা শুরু হয় ধর্মঘটী এবং নিত্যযাত্রীদের মধ্যে।

    এ দিকে প্রতিবারের মতোই ধর্মঘটে সরকারি কর্মীদের অফিসে হাজিরা বাধ্যতামূলক এমন নোটিফিকেশন জারি করেছে রাজ্য সরকার। ফলে ভোগান্তি এড়িয়ে সময় মতো অফিস পৌঁছনোই আপাতত চ্যালেঞ্জ সরকারি কর্মীদের। সরকারি-বেসরকারি বাসই ভরসা আজ বহু মানুষের।

    বৃহস্পতিবারের এই ধর্মঘটের আহ্বায়ক সিআইটিইউ, এআইটিইউসি, আইএটিইউ,ই. এইচএমএস, টিইউসিসি, এলপিএফ, সেবা, ইউটিইউসি-এর মতো সংস্থাগুলি। ধর্মঘটে দাবি তোলা হচ্ছে, দেশের সাধারণ মানুষের মাথাপিছু আয় বাড়ানোর। ট্রেড ইউনিয়ন নেতৃত্বরা বলছেন, করোনায় ধ্বস্ত দেশের অর্থনীতি, জিডিপি তলানিতে চলে গিয়েছে। পাশাপাশি বেড়েছে কলকরাখানা-সহ নানা বেসরকারি সংস্থায় ছাঁটাই। ছোট ব্যবসায়ীরাও তীব্র সঙ্কটে। এই অবস্থায মানুষের আয় বাড়াতে কর্মসংস্থানের দাবিতে পথে নামছেন তাঁরা।

    আসলে ২০২১ এর বিধানসভা ভোটের আগে এই ধর্মঘট বামেদের শক্তিপরীক্ষা। ধর্মঘটীদের ইস্যুগুলিকে সমর্থন করলেও ধর্মঘটকে সমর্থন করছে না তৃণমূল।

    ধর্মঘটীদের দাবিদাওয়া-

    ১ রেগাপ্রকল্পে ২০০ দিনের কাজ নিশ্চিত করতে হবে। শুধু গ্রামাঞ্চলেই নয়, শহরেও এই ধরনের প্রকল্প তালু করতে হবে।

    ২ শ্রম কোড বিল বাতিল করতে হবে।

    ৩ তিনটি কৃষি আইন বাতিল করতে হবে।

    ৪ অসংগঠিত শ্রমিকদের সুরক্ষার জন্য সার্বজনীন পেনশন চালু করতে হবে। মাথাপিছু মাসিক ১০ কেজি খাদ্যশস্য রেশন দিতে হবে।

    Published by:Arka Deb
    First published: