• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • কেন্দ্রের অনুরোধ মেনে শুধু ১৮টি নয়, ২০ এপ্রিল থেকে সব চটকলই খুলছে রাজ্যে 

কেন্দ্রের অনুরোধ মেনে শুধু ১৮টি নয়, ২০ এপ্রিল থেকে সব চটকলই খুলছে রাজ্যে 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

গত ১৩ তারিখ, মুখ্যমন্ত্রীকে এবং বুধবার মুখ্যসচিবকে বারংবার চিঠি দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। কেন্দ্রের পাঠানো ওই চিঠিতে রাজ্যের ১৮ টি জুট মিলে প্রোডাকশন শুরু করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল ।

  • Share this:

SOURAV GUHA

#কলকাতা: কেন্দ্রের সুপারিশ মেনে ১৮টি নয়, রাজ্যের সবক’টি জুটমিলেই শুরু হচ্ছে উৎপাদন। নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবি মরসুমের ফসল কাটা শুরু হয়েছে। পাঞ্জাব,  উত্তরপ্রদেশ,  তেলেংগানায় শুরু হয়েছে গম কাটার কাজ। এই সময় দরকার প্রচুর চটের ব্যাগের। সেই মর্মে গত ১৩ তারিখ, মুখ্যমন্ত্রীকে এবং বুধবার মুখ্যসচিবকে বারংবার চিঠি দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। কেন্দ্রের পাঠানো ওই চিঠিতে রাজ্যের ১৮ টি জুট মিলে প্রোডাকশন শুরু করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল । এ রাজ্যে রেজিস্টার্ড জুট মিলের সংখ্যা ৫৯ টি। এছাড়াও ছোট ছোট আরও বেশকিছু জুট মিল মিলে রাজ্যে রয়েছে মোট ৭৬টি মিল। বুধবার একটি সাংবাদিক সম্মেলনে আগামী ২০ এপ্রিল  থেকে এই সব মিলে উৎপাদন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ।

আপাতত ১৫ শতাংশ উতৎপাদন হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী । এ রাজ্যে মোট ১৬ থেকে ২০ লক্ষ মেট্রিক টন চটের ব্যাগ উৎপন্ন  হয়। লকডাউনে এই সব মিলের শ্রমিকদের ন্যুনতম বেতন দেওয়ার বিষয়ে আগাগোড়াই চাপ বজায় রেখেছিল রাজ্য শ্রম দফতর। এবার ২০ এপ্রিলের পর মিল খোলার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য। তবে প্রশাসনিক মহল সূত্রে খবর, ওই সব চটকল গুলোতে কোভিড প্রোটোকল মেনেই কাজ হবে। এমনকি অল্প সংখ্যক শ্রমিকদেরই এক একটি শিফটে কাজ করতে দেওয়া হবে।

চটকলের মতোই  বহু শ্রমিক জড়িয়ে আছে যে সব কাজে যেমন, গ্রামীণ রাস্তা নির্মাণ,  ১০০ দিনের নানা কাজ ২০ তারিখের পর থেকেই শুরু হবে । পিএইচই দফতরের নানা শ্রম, নিবিড় নানা কাজে লাগানো হবে গ্রামের মানুষকে। আপাতত  সাধারণ মানুষের হাতে নগদের যোগান  দিতেই  এই সিদ্ধান্ত। পাশাপাশি রাজ্যের নানা ছোট বড় শিল্প তালুক খুলবার ক্ষেত্রে মুখ্যসচিব উদ্যোগ নিচ্ছেন বলেও এদিন মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী।

Published by:Simli Raha
First published: